Advertisement

মাঝরাতে দফায় দফায় পড়ুয়াদের সঙ্গে আলোচনা, ভোরে ঘেরাওমুক্ত আর জি করের অধ্যক্ষ

09:22 AM Oct 02, 2021 |

ক্ষীরোদ ভট্টাচার্য: রাতভর দফায় দফায় আলাপ-আলোচনার পর অবশেষে ভোরের দিকে ঘেরাওমুক্ত হলেন আর জি কর মেডিক্যাল কলেজ (RG Kar Medical College) হাসপাতালের অধ্যক্ষ ডাক্তার সন্দীপ ঘোষ। জানা গিয়েছে, সাড়ে তিনটে নাগাদ তিনি ঘেরাওমুক্ত হয়ে কলেজ থেকে বেরিয়ে যান। আলোচনার পর পড়ুয়ারা সন্তুষ্ট হয়েছেন বলে খবর। সেই কারণেই তাঁরা অবস্থান বিক্ষোভ তুলেছেন।

Advertisement

শুক্রবার সন্ধে থেকে একাধিক দাবিতে আর জি কর মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ ও বিভাগীয় অধ্যাপকদের ঘেরাও শুরু করেন জুনিয়র ডাক্তারদের একাংশ। তাঁদের অভিযোগ, কলেজে কোনও সিন্ডিকেট নেই। সামান্য বিষয় নিয়ে বড় বেশি সমস্যা তৈরি করা হচ্ছে। যদিও কলেজ কর্তৃপক্ষ এই বিষয়ে বিশেষ কোনও মন্তব্য করতে চায়নি। এদিকে সূত্রের খবর, জুনিয়র ডাক্তারদের দাবি মেনে আগামী সপ্তাহে কলেজের স্টুডেন্টস কাউন্সিল (Students Council) গঠিত হচ্ছে। তার খসড়াও তৈরি। এমনকী মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (CM Mamata Banerjee) নির্দেশে কলেজের ছাত্রছাত্রীদের জন্য ১০ একর জমিতে নতুন হস্টেল তৈরি হবে।

[আরও পড়ুন: ‘মানুষকে বিশ্বাস করাতে পারিনি আমরা জিততে পারি’, বিধানসভায় হার নিয়ে স্বীকারোক্তি দিলীপের]

সূত্রের আরও খবর, কলেজ লাগোয়া অনাথ নাথ দেব লেনে এই জমি পাওয়া গিয়েছে। সঙ্গে প্রায় ১৫ কাঠা জমির একটি বড় পুকুর। খুব শীঘ্রই সেখানে কলেজ হস্টেল (Hostel) তৈরির কাজ শুরু হতে চলেছে। কিন্তু এসব সম্পর্কে পড়ুয়ারা অবহিত নয় বলে শুক্রবার ঘেরাও কর্মসূচি শুরু করেন তাঁরা। অধ্যক্ষকেই ঘেরাও করা হয়। কলেজের বিক্ষোভকারী পড়ুয়াদের একাংশের দাবি, তাঁদের সঙ্গে কোনও রাজনৈতিক দলের মদত নেই। অধ্যক্ষ কথা বললেই সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে বলে আশা তাঁদের। পরে অনেক রাতে রোগী কল্যাণ সমিতির চেয়ারম্যান সুদীপ্ত রায় পৌঁছে যান আর জি কর হাসপাতালে। তাঁর মধ্যস্থতায় আলোচনার মাধ্যমে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে বলে তিনি নিজেই জানিয়েছে।

[আরও পড়ুন: মাথাপিছু আয়বৃদ্ধিতে দেশের সেরা বাংলা, ঘোষণা অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্রর]

Advertisement
Next