Advertisement

রাজ্যে ৩ কেন্দ্রের ভোটের ফল: জোট ভাঙার বিপদ, তলানিতে বামেদের ভোট, আশা বাড়ছে কংগ্রেসের

08:32 AM Oct 04, 2021 |

ভবানীপুরের উপনির্বাচন-সহ রাজ্যের তিন কেন্দ্রের ভোটগণনা আজ। জঙ্গিপুর এবং সামসেরগঞ্জের সাধারণ নির্বাচনের দিকে নজর থাকলেও আসল ফোকাস থাকছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কেন্দ্র ভবানীপুরেই। তিন কেন্দ্রের ফলাফলের প্রতি মুহূর্তের আপডেট পেতে নজর রাখুন:

Advertisement

সন্ধে ৮.৪০: ভবানীপুরে তৃণমূলের প্রাপ্ত ভোট ৭১.৯ শতাংশ, বিজেপির প্রাপ্তি ২২.৩, সিপিএম পেয়েছে ৩.৬ শতাংশ ভোট।

সন্ধে ৮.১৯: রাজ্যের তিন কেন্দ্রে ভোটের ফলে আশার আলো দেখছে কংগ্রেসে। চরম হতাশায় বামেরা। জোট ভাঙার খেসারত দিতে হল আলিমুদ্দিনকে। মুর্শিদাবাদের সামশেরগঞ্জে দ্বিতীয় স্থানে কংগ্রেস। কিন্তু তিন কেন্দ্রেই জমানত খোয়া গেল বামেদের। শতাংশের হিসাবে কংগ্রেসের প্রাপ্ত ভোটের গ্রাফ ঊর্ধ্বমুখী হলেও তলানিতে ঠেকল বামেদের ভোটপ্রাপ্তি।         

সন্ধে ৮: তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিপুল ভোটে জয়ে উচ্ছ্বাস ত্রিপুরার তৃণমূল শিবিরে। কংগ্রেসের কর্মীদের মধ্যে। সকাল থেকেই জড়ো হতে থাকে অস্থায়ী পার্টি অফিসে। ফল ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে চলে বিজয় উৎসব। মিষ্টি বিতরণ, শুভেচ্ছা বিনিময়। 

সন্ধে ৭.৫০: ভবানীপুরের রিটার্নিং অফিসারের হাত থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জয়ের শংসাপত্র নিলেন তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সি। 

বিকেল ৫.৪৭: ‘শুভেন্দু পাগল, বিজেপি ছাগল’, ভবানীপুরে মমতার জয়ের পরই ফের বেফাঁস মন্তব্য অনুব্রত মণ্ডলের। 

বিকেল ৪.৪৫: জঙ্গিপুরের ৯২ হাজারের বেশি ভোটে জিতলেন তৃণমূল প্রার্থী জাকির হোসেন। 

বিকেল ৪:  সামশেরগঞ্জে জয়ী তৃণমূল প্রার্থী আমিরুল ইসলাম। ভোটের ব্যবধান ২৬,৬১১। দ্বিতীয় স্থানে কংগ্রেস জইদুর রহমান। জঙ্গিপুরে ৭১ হাজারের বেশি ভোটে এগিয়ে তৃণমূল প্রার্থী জাকির হোসেন।

দুপুর ৩.১২: রেকর্ড ভোটে জয়ের জন্য মমতাকে শুভেচ্ছা জানালেন অখিলেশ যাদব, এম কে স্ট্যালিন, আনন্দ শর্মা।  

দুপুর ২.৪০: ভবানীপুরে জয়ের পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “আমাকে হারানোর চক্রান্ত করা হয়েছিল। তারই জবাব দিল ভবানীপুর। কোনও ওয়ার্ডের ভোটার আমাকে হারায়নি। সারা বাংলার মানুষকে ধন্যবাদ।” 

দুপুর ২.২৯: ১৫ রাউন্ড শেষে সামশেরগঞ্জে ১৫০১৪ ভোটে এগিয়ে তৃণমূল প্রার্থী আমিরুল ইসলাম।
দুপুর ২.১২:
ভবানীপুরের বিজেপির সংগঠনের দুর্বলতার কথা স্বীকার করলেন পরাজিত প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল। বললেন, ”প্রতি বুথে অন্তত ১০০ টি ছাপ্পা ভোট হয়েছে।” 

দুপুর ২.০৭: ভবানীপুরের সিপিএম প্রার্থী শ্রীজীব বিশ্বাসের প্রাপ্ত ভোট ৪২০১। বিজেপি প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা পেয়েছেন ২৬ হাজার ৩১০ ভোট।

দুপুর ২: রেকর্ড ভাঙলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ২১ রাউন্ড গণনা শেষে ভবানীপুর কেন্দ্র থেকে ৫৮ হাজার ৮৩৫ ভোটে জয়ী হলেন তৃণমূল সুপ্রিমো। ২০১১-এর চেয়ে দ্বিগুণ ভোটে জয় পেলেন মমতা।

দুপুর ১টা ৪৭:ভবানীপুরে ১৯ রাউন্ড গণনা শেষ। মমতার প্রাপ্ত ভোট ৭৬ হাজার ৪১৩ ভোট।  এগিয়ে ৫২ হাজার ১৭ ভোটে। 

দুপুর ১টা ৩০: ১৭ রাউন্ড শেষে ৪৫ হাজারের বেশি ভোটে এগিয়ে তৃণমূল নেত্রী। 

দুপুর ১টা ২০:  ১৬ তম রাউন্ড শেষে তৃণমূল পেয়েছে ৬২ হাজার ৭৬০। বিজেপি পেয়েছে ২০ হাজার ৪৬৮ টি ভোট। ৪২ হাজার ২৯২ ভোটে এগিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

দুপুর ১টা ২০: মমতার জয়ের আঁচ পেতেই কালীঘাটে শুরু তৃণমূলের বিজয়োৎসব। এই মুহূর্তে মুখ্যমন্ত্রী এগিয়ে ৪২ হাজার ২৯২ ভোটে।

দুপুর ১টা: প্রায় ৪০ হাজার ভোটে এগিয়ে গেলেন মমতা। পঞ্চদশ রাউন্ড শেষে মুখ্যমন্ত্রীর প্রাপ্ত ভোট ৫৮ হাজার ৫০৩। প্রিয়াঙ্কা পেয়েছেন ১৮ হাজার ৮৪৬ ভোট।    

দুপুর ১২ টা ৫০: ১৩ তম রাউন্ডের গণনা শেষ। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৫২ হাজার ২৭৮টি। বিজেপি ১৫ হাজার ৮২১ । তৃণমূল এগিয়ে ৩৬ হাজার ৪৫৭ ভোটে। ৬৪ শতাংশ অবাঙালি ভোটার থাকা সত্ত্বেও ৭০ নম্বর ওয়ার্ডে হাজারের বেশি ভোটে লিড তৃণমূলের। ৭৪ নম্বর ওয়ার্ডে ৫৫০০ লিড।

দুপুর ১২টা ৩৫: জঙ্গিপুরে তৃণমূলের প্রাপ্ত ভোট ৪৪ হাজার ৯৬৬। বিজেপি পেয়েছে ১৮ হাজার ১৮০ ভোট। সমশেরগঞ্জে তৃণমূলের প্রাপ্ত ভোট ৩৯ হাজার ১৭৯। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কংগ্রেসের প্রাপ্ত ভোট ৩৩ হাজার ৩৪২। ভোটের ব্যবধান ৫ হাজার ৮৩৭। 

দুপুর সাড়ে ১২টা: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এগিয়ে ৩৪ হাজার ৯৭০ ভোটে। শুভেচ্ছা জানাতে কালীঘাট গেলেন অভিষেক।

দুপুর ১২টা ১০ মিনিট: ১২ রাউন্ডের গণনা শেষ। ৩৩৯০০-র বেশি ভোটে এগোলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

দুপুর ১২টা: দশম রাউন্ডে তৃণমূলের প্রাপ্ত ভোট ৮২ হাজার ১২২। বিজেপি পেয়েছে ১০ হাজার ৪৭৭ জন।

সকাল ১১টা ৫০: ভবানীপুরে ২০২১ সালে শোভনদেবের ব্যবধান টপকে গেল তৃণমূল। মমতার লিড পেরল ৩০ হাজার।  

কাল ১১টা ৪৫: মমতার জয়ে শুভেচ্ছা জানিয়ে চমকপ্রদ টুইট অখিলেশ যাদব। লিখলেন, মমতার এই জয়ই সত্যমেব জয়তের রীতি।

সকাল ১১টা ৪০: গণনাকেন্দ্রে এলেন রাসবিহারীর বিধায়ক দেবাশিস কুমার।

সকাল সাড়ে ১১টা ৩০: অষ্টম রাউন্ড শেষে ২৭ হাজার ৫০২ ভোটে এগিয়ে গেলেন মমতা। টপকে গেলেন ২০১৬ সালে নিজের জয়ের ব্যবধান। ২০১৬ বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের দীপা দাশমুন্সীকে ২৫ হাজারের সামান্য বেশি ভোটে হারান মুখ্যমন্ত্রী।

সকাল ১১টা ২০: সপ্তম রাউন্ড শেষে তৃণমূলের প্রাপ্ত ভোট ৩১ হাজার ৩৩। বিজেপির প্রাপ্ত ভোট ৫ হাজার ৭১৯।

সকাল ১১টা ১৫: ষষ্ঠ রাউন্ডের ভোটগণনা শেষ। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এগিয়ে ২৩ হাজার ৯৫৭ বেশি ভোটে। 

সকাল ১১টা ১০: জঙ্গিপুরে ব্যবধান বাড়াল তৃণমূল। জাকির হোসেন এগিয়ে ১১ হাজার ৪৮৩ ভোটে।

সকাল ১১টা ৫ মিনিট: ভবানীপুরে মমতার প্রাপ্ত ভোট ১৬ হাজার ৩৯৭, প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়ালের প্রাপ্ত ভোট ৩ হাজার ৯৬২।

সকাল ১১টা: সামশেরগঞ্জে ৩ হাজার ৭০০ ভোটে এগিয়ে তৃণমূলের আমিরুল ইসলাম। দ্বিতীয় স্থানে কংগ্রেসের জইদুর। ধারেকাছে নেই বিজেপি। জঙ্গিপুর চতুর্থ রাউন্ড শেষে ৪৯৩৯ ভোটে এগিয়ে তৃণমূল।

সকাল ১০টা ৫৫: ভবানীপুরে ৭৭ নম্বর ওয়ার্ডে বিশাল লিড পেয়েছেন মমতা। 

সকাল ১০টা ৫০: চতুর্থ রাউন্ডে ১২ হাজারের বেশি ভোটে এগিয়ে মমতা। জামানত বাঁচানোর লড়াই প্রিয়াঙ্কার। ধারেকাছে নেই শ্রীজিব।

সকাল ১০টা ৩০: ভবানীপুরে তৃতীয় রাউন্ডের গণনা শেষ। ৬ হাজার ১৪৬ ভোটে এগিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কালীঘাটে উৎসবের মেজাজে তৃণমূল সমর্থকরা। শুনশান বিজেপি অফিস। 

গণনাকেন্দ্রের বাইরে তৃণমূল সমর্থক

সকাল ১০টা ১৫: জঙ্গিপুর বিধানসভায় তৃণমূল কংগ্রেস ৪৭০৫ ভোটে এগিয়ে। দ্বিতীয় রাউন্ড শেষে।

সকাল ১০টা ১০: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৫০ হাজারের বেশি ভোটে জিতবেন, ফের দাবি করলেন পরিবহণমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। 

সকাল ১০টা: প্রথম রাউন্ডে প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল পেয়েছেন ৮৮১ ভোট, সিপিএমের শ্রীজিব বিশ্বাস পেয়েছেন ৮৫ ভোট। মমতার প্রাপ্ত ভোট ৩ হাজার ৬৮০। ব্যবধান ২৭৯৯।

কাল ৯ টা ৪০:  দ্বিতীয় রাউন্ড শেষে সামশেরগঞ্জে প্রাপ্ত ভোট: TMC-4235, INC-3095, BJP-995।

সকাল ৯টা ৩৫: জঙ্গিপুরে দ্বিতীয় স্থানে বিজেপির সুজিত দাস। সামশেরগঞ্জে দ্বিতীয় রাউন্ড শেষে ১২০০ ভোটে এগিয়ে তৃণমূল।

সকাল ৯টা ২৫ মিনিট: দ্বিতীয় রাউন্ড শেষে ভবানীপুরে প্রায় ৩ হাজার ভোটে এগিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সকাল ৯টা ১৫ মিনিট: সামশেরগঞ্জে তৃণমূল প্রার্থী আমিরুল ইসলাম এগিয়ে ৫০০ ভোটে। দ্বিতীয় স্থানে কংগ্রেসের জইদুর রহমান। জঙ্গিপুরেও ১৩০০ ভোটে এগিয়ে তৃণমূলের জাকির হোসেন। দ্বিতীয় স্থানে আরএসপির জানে আলম মিঞা।  

সকাল ৮টা ৫৭: সামশেরগঞ্জে প্রথম রাউন্ড শেষে ২৫০ ভোটে এগিয়ে তৃণমূলের আমিরুল ইসলাম। 

সকাল ৮টা ৫০: প্রথম রাউন্ডের গণনা শেষে জঙ্গিপুরে এগিয়ে ১৭৭২ ভোটে এগিয়ে তৃণমূলের জাকির হোসেন। দ্বিতীয় স্থানে আরএসপির জানে আলম মিঞা।

সকাল ৮.৪৫: ভবানীপুরে এগিয়ে গেলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। 

সকাল ৮টা ৪০: সামশেরগঞ্জে তৃণমূল প্রার্থী আমিরুল ইসলাম পেয়েছেন ২৩৪টি ভোট। কংগ্রেস প্রার্থী জইদুর রহমান পেয়েছেন ২১৮ ভোট।

সকাল ৮টা ৩৫: সামশেরগঞ্জ কেন্দ্রের প্রাথমিক ট্রেন্ডে স্বস্তির খবর তৃণমূল শিবিরে। পোস্টাল ব্যালটে ১৬ ভোটে এগিয়ে রাজ্যের শাসকদলের প্রার্থী আমিরুল ইসলাম।

সকাল ৮টা ২০: গণনার পর যাতে হিংসা না হয়, নিশ্চিত করতে কলকাতা হাই কোর্টকে চিঠি লিখেছেন ভবানীপুরের বিজেপি প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল। পালটা দিলেন পরিবহণ মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। তাঁর দাবি, বিজেপি রাজ্যের বিরুদ্ধে কুৎসা ছড়াচ্ছে। 

সকাল ৮টা ৫: কড়া নিরাপত্তায় তিন কেন্দ্রে শুরু হল ভোটগণনা। ভবানীপুরে ভোট গোনা হবে ২১ রাউন্ড। সামশেরগঞ্জে গণনা ২৩ রাউন্ড এবং জঙ্গিপুরে গণনা ২৬ রাউন্ড।

সকাল ৭টা ৫০: ভবানীপুরে বড় ব্যবধানে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী তৃণমূল। অন্য দুই কেন্দ্রেও জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী শাসক শিবির। মানুষের ভরসায় বিজেপি।

সকাল ৭ টা ৪০:  ইতিমধ্যেই গণনাকেন্দ্রে পৌঁছে গিয়েছেন বিভিন্ন দলের এজেন্টরা। গণনাকেন্দ্রে মানা হচ্ছে কোভিড বিধি।

সকাল ৭.৩০: ৩ কেন্দ্রের গণনাকেন্দ্রগুলিতে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা। তৈরি হয়েছে ত্রিস্তরীয় নিরাপত্তা বলয়। কড়া নজরদারিতে স্ট্রং রুম থেকে গণনাকেন্দ্রে আনা হয়েছে ইভিএম।

Advertisement
Next