‘পাকিস্তানও আমাদের বন্ধু’, জয়শংকরের তোপের জবাবে সাফাই আমেরিকার

09:17 AM Sep 27, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পাকিস্তানকে সামরিক সাহায্য দেওয়ার কারণে গতকালই আমেরিকাকে তোপ দেগেছিলেন ভারতের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শংকর (S Jaishankar)। সোমবারই মধ্যরাতে সুর নরম করে পালটা সাফাই দিল আমেরিকা। সেদেশের বিদেশ মন্ত্রকের তরফে বলা হয়েছে, ভারত ও পাকিস্তান দুই দেশের সঙ্গেই বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে আমেরিকার। দুই দেশের সঙ্গে আমেরিকার বিদেশনীতি একেবারেই আলাদা। কোনও দেশের সম্পর্কের উপর ভিত্তি করে সেই নীতি প্রণয়ন করা হয় না। 

Advertisement

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782001027-0'); });

সোমবারই সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছিলেন আমেরিকার (USA) বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র নেড প্রাইস। জয়শংকরের বক্তব্য নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, “পাকিস্তান ও ভারতের সঙ্গে আমাদের স্বতন্ত্র বিদেশনীতি রয়েছে। এক দেশের সঙ্গে আমরা যেভাবে সম্পর্ক রাখি, তার প্রভাব কখনই অন্য দেশের উপরে পড়ে না। আমাদের কাছে এই দুই দেশের গুরুত্ব আলাদা রকমের। আমরা মনে করি এই দুই দেশই কূটনৈতিক ভাবে আমেরিকার পার্টনার। তাই আমরা ভারতের সঙ্গে যেভাবে সম্পর্ক রাখি, পাকিস্তানের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কে তার প্রভাব পড়বে না। একই কথা ভারতের ক্ষেত্রেও খাটে।”

window.unibots = window.unibots || { cmd: [] }; unibots.cmd.push(()=>{ unibotsPlayer('sangbadpratidin'); });

[আরও পড়ুন: আমেরিকার উপর চাপ বাড়িয়ে এডওয়ার্ড স্নোডেনকে নাগরিকত্ব দিল রাশিয়া]

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই আমেরিকার তরফ থেকে পাকিস্তানের এফ-১৬ (F-16) যুদ্ধবিমান রক্ষণাবেক্ষণের জন্য অনুদান দেওয়া হয়েছিল। সেই প্রসঙ্গে সোমবার জয়শংকর বলেছিলেন, পাকিস্তানের (Pakistan) সঙ্গে সম্পর্ক রেখে আমেরিকার কোনও লাভ হচ্ছে না। আমার মনে হয়, বিষয়টি নিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ভেবে দেখার সময় হয়েছে। আপনারা বলছেন, এফ-১৬ যুদ্ধবিমান সন্ত্রাসবিরোধী লড়াইয়ে ব্যবহার করবে পাকিস্তান। আপনারা কাকে নির্বোধ কাকে ভাবছেন! সবাই জানে এই বিমান কার বিরুদ্ধে ব্যবহার হবে। কোনও মার্কিন নীতিনির্ধারকের সঙ্গে কথা হলে আমি বলব, ভেবে দেখুন আপনারা কী করছেন।”

Advertising
Advertising

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1652782050143-0'); });

বিশেষজ্ঞদের মতে, এফ-১৬ বিমান শুধুমাত্র জঙ্গি দমনের কাজে ব্যবহার করা হয় না। তার জন্য তুলনামূলক কম তীব্রতার অস্ত্রই কাজে লাগানো হয়। তা সত্বেও কেন এই যুদ্ধবিমান ব্যবহার করতে পাকিস্তানকে উৎসাহ দিচ্ছে আমেরিকা, সেই প্রশ্ন তুলেই সরব হয়েছে ভারত। অনুমান করা হচ্ছে, রাশিয়া থেকে কম দামে তেল আমদানি করছে ভারত। সেই কারণেই ক্ষুব্ধ হয়ে ভারতকে চাপে রাখতে চাইছে আমেরিকা। তবে প্রকাশ্যে দুই দেশের মধ্যে সুসম্পর্কের চিত্র বজায় রাখতে মরিয়া হয়ে উঠেছে তারা। সেই কারণেই বারবার পাকিস্তানকে অনুদান দেওয়া নিয়ে সাফাই দিচ্ছে আমেরিকা।

[আরও পড়ুন: রাজস্থানে বিদ্রোহের জের, কংগ্রেস সভাপতির দৌড়ে গেহলটকে চান না রাহুল-সোনিয়া]

Advertisement
Next