অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ১৪ হাতের কালী প্রতিমা, অশনি সংকেত নাকি অলৌকিক কাণ্ড? উঠছে প্রশ্ন

12:27 PM Nov 27, 2022 |
Advertisement

রাজা দাস, বালুরঘাট: আচমকা দাউদাউ করে জ্বলে উঠল চোদ্দ হাতের কালী প্রতিমা। রবিবার সকালের এই ঘটনাটিকে কেন্দ্র করে দক্ষিণ দিনাজপুরের হিলি সীমান্তে জোর শোরগোল। কেউ উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে কালীপ্রতিমাতে আগুন লাগিয়ে দিল নাকি অলৌকিক কোনও কাণ্ড ঘটেছে, তা নিয়ে চলছে আলোচনা। কালীপ্রতিমায় আগুন লেগে যাওয়ার ঘটনা অশনি সংকেত নয় তো, সেই ভাবনাতেও দুশ্চিন্তায় স্থানীয় বাসিন্দারা। 

Advertisement

Advertising
Advertising

রবিবার সকালে আচমকাই প্রতিমার চারপাশে আগুন জ্বলতে দেখেন স্থানীয়রা। সঙ্গে সঙ্গে খবর দেওয়া হয় দমকলে। খবর পাওয়ার পর ঘটনাস্থলে পৌঁছয় দমকলের একটি ইঞ্জিন। ততক্ষণে স্থানীয়রাই আগুন নেভানোর কাজ শুরু করেন। বেশ কিছুক্ষণের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। তবে অগ্নিকাণ্ডে কালী প্রতিমার ক্ষতি হয়। আগুনে পুড়ে যায় কাঠামো।

[আরও পড়ুন: ‘সুবিধে নিলে সরকারকেও দেখতে হবে’, দুয়ারে সরকার শিবিরে দাঁড়িয়েই হুঁশিয়ারি TMC ব্লক সভাপতির]

অগ্নিকাণ্ডের কারণ নিয়ে তৈরি হয়েছে ধোঁয়াশা। উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে কেউ প্রতিমায় আগুন লাগিয়ে দিল নাকি অলৌকিক কোনও ঘটনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। কালীপ্রতিমায় অগ্নিকাণ্ডকে অশুভ ও অমঙ্গল বলেই আখ্যা দিচ্ছেন স্থানীয়দের একাংশ। কারো মতে পুজোতে অনিয়ম হওয়ার ফলে এমনটা হতে পারে। স্থানীয়রা যা-ই বলুন না কেন, আগুন লাগার আসল কারণ খতিয়ে দেখছে হিলি থানার পুলিশ ও দমকল।

গত ২৩ নভেম্বর থেকে হিলি সীমান্ত চোদ্দ হাতের কালীপুজো শুরু হয়েছে। পুজোকে ঘিরে ১৫ দিন ধরে ওই এলাকায় বসে বিরাট মেলা। সেখানে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বিভিন্ন প্রান্ত তো বটেই, পাশ্ববর্তী বাংলাদেশ থেকে আসেন পুর্ণার্থীরা। ঐতিহ্যবাহী এই পুজো চত্বরে প্রতি বছরই সিসিটিভির বন্দোবস্ত করা হয়। তবে এবার সিসিটিভির ব্যবস্থা করা হয়নি। তার উপর আবার অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা। সব মিলিয়ে নিরাপত্তা নিয়ে উঠছে বড়সড় প্রশ্নচিহ্ন।

[আরও পড়ুন: লক্ষ্মীর ভাণ্ডার নিয়ে উলটো সুর! ‘ক্ষমতায় এলে ৫০০’র বদলে ২ হাজার দেব’, প্রতিশ্রুতি সুকান্তর]

Advertisement
Next