Advertisement

গাড়ি চালানো শিখতে গিয়ে পরপর ৪ জনকে ধাক্কা, মৃত্যু একজনের, বড়সড় দুর্ঘটনা নিমতায়

09:05 PM Oct 05, 2021 |

অর্ণব দাস, বারাসত: গাড়ি চালানো শিখতে গিয়ে বড়সড় দুর্ঘটনা (Road Accident) ঘটাল এক তরুণ। নিমতার (Nimta) ব্যস্ত রাস্তায় চারজনকে ধাক্কা মারল সে। গাড়ির ধাক্কায় একজনের মৃত্যু এবং তিনজনের আহত হওয়ার ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ায় এলাকায়। মঙ্গলবার সকালে ঘটনাটি ঘটে নিমতা থানার মাজেরহাটি মোড় সংলগ্ন এলাকায়। 

Advertisement

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মৃতের নাম কিরণ চন্দ্র গায়েন (৫৫)। আহত তিনজন কামারহাটি সাগর দত্ত মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ঘাতক গাড়িটিকে আটক করেছে নিমতা থানার পুলিশ।

মঙ্গলবার সকালে দ্রুত গতিতে একটি গাড়ি বিরাটি দিকে যাওয়ার সময় মাজেরহাটি মোড় এলাকায় নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পরপর চার জনকে ধাক্কা মারে বলে অভিযোগ। এরপরই গাড়িটি ঘটনাস্থলে দাঁড়িয়ে পড়ে। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করতে গেলে সুযোগ বুঝে গাড়ি ছেড়ে চম্পট দেয় চালক। আহতদের মধ্যে দু’ জন এলাকার সবজি বিক্রেতা। জখম চারজনকে দ্রুত উদ্ধার করে কামারহাটি সাগর দত্ত হাসপাতালে ভরতি করা হয়। তাঁদের মধ্যে দু’ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে খবর।

[আরও পড়ুন: আদিবাসী মহিলাকে ‘ধর্ষণ’ মন্তেশ্বরে, বাধা দিতেই মার স্বামীকেও]

সাধারণত, সকাল বেলা এই রাস্তার দু’ধারে বাজার বসে। ভিড় থাকে রাস্তায়। সেই রাস্তায় কেন গাড়ি শিখতে বের হল, তা নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কাউকে আটক বা গ্রেপ্তার করেনি পুলিশ। গাড়িটিকে আটক করে রাখা হয়েছে। জখম এক ব্যক্তির স্ত্রী তানিয়া চক্রবর্তী দোষীদের কঠিন শাস্তির দাবি জানিয়েছেন। তাঁর কথায়, “আমরা তো দিন আনা দিন খাওয়া মানুষ। এভাবে আমাদের আঘাত করে কী লাভ হল? আমার স্বামীর কিছু হলে, পরিবার তো ভেসে যেত।”

[আরও পড়ুন: ধর্ষণের পর খুন? বালির স্তূপ থেকে তরুণীর বিবস্ত্র দেহ উদ্ধার ঘিরে শোরগোল উলুবেড়িয়ায়]

Advertisement
Next