‘টাকা কি ভগবান তোমার?’, SSC দুর্নীতিতে পার্থ-অর্পিতাকে ব্যঙ্গ টোটোর ব্যানারে, ভাইরাল চালক

06:19 PM Aug 06, 2022 |
Advertisement

ভাস্কর মুখোপাধ্যায়, বোলপুর: এসএসসি (SSC) দুর্নীতি মামলায় ইডির হাতে গ্রেপ্তার পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও অর্পিতা মুখোপাধ্যায়। আপাতত তাঁরা জেল হেফাজতে। অর্পিতার একাধিক ফ্ল্যাট, বাড়ি থেকে উদ্ধার হয়েছে কোটি কোটি টাকা। ইডি (ED) আধিকারিকদের জিজ্ঞাসাবাদে পার্থ এবং অর্পিতা – উভয়েই দাবি করছেন, সেই টাকা তাঁদের নয়। কার টাকা, তাও কেউ জানেন না বলে দাবি। এই পরিস্থিতিতে তাঁদের ব্যঙ্গ করে টোটোয় ব্যানার লাগিয়ে রাতারাতি নজর কাড়লেন বীরভূমের (Birbhum)টোটোচালক। তাঁর টোটোর ব্যানারে লেখা – ‘এ টাকা কি ভগবান তোমার’। নয়া সাজের টোটোয় চড়া হোক বা না হোক, ছবি তুলতে তুমুল আগ্রহ পথচলতি মানুষজনের।

Advertisement

পার্থ-অর্পিতাকে ব্যঙ্গ করে ব্যানার লাগিয়ে বোলপুর শহরজুড়ে টোটো চালাচ্ছেন অনুব্রত মণ্ডলের এক প্রতিবেশী। নাম সুকেশ চক্রবর্তী। এসএসসি (SSC) দুর্নীতি মামলায় ইডির হাতে গ্রেপ্তার পার্থ ও অর্পিতার ছবি-সহ ব্যানার লাগানো হয়েছে তাঁর টোটোয়। ব্যানারে লেখা – ‘এ টাকা কি ভগবান তোমার’। অভিনব এই টোটোটি দেখতে, ছবি তুলতে উৎসুক পথচলতি মানুষজন। টোটোচালক (Toto Driver) সুকেশ চক্রবর্তী অবশ্য জানাচ্ছেন, প্রতিবাদ করতেই নিজের যানে এই ধরনের ব্যানার লাগিয়ে ঘুরছেন তিনি৷

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: আম্পায়ারের ‘পক্ষপাতিত্বে’ হকিতে সোনা হাতছাড়া ভারতীয় মহিলাদের, রাগে ফুঁসছে নেটদুনিয়া]

বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের (Anubrata Mandal) পাড়ার বাসিন্দা সুকেশবাবু। এলাকায় ‘ঠাকুর’ নামে পরিচিত তিনি। পেশায় টোটোচালক। তার টোটোর পিছনে লাগানো ব্যানার এখন বোলপুর-শান্তিনিকেতনে চর্চার বিষয়৷ ব্যানারে টাকা-সহ পার্থ চট্টোপাধ্যায় ও অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের ছবি দেওয়া রয়েছে৷ ছবির নিচে লেখা রয়েছে ‘এ টাকা তো আমার নয়’। তার নীচে লেখা আছে ‘ভগবান এ টাকা কি তোমার?”

প্রসঙ্গত, এসএসসি দুর্নীতি কাণ্ডে ধৃত পার্থ-অর্পিতাকে নিয়ে ট্রোল, মিমে ভরে গিয়েছে নেটদুনিয়া৷ শান্তিনিকেতনের ফুলডাঙায় তাঁদের ‘অপা’ বাড়িটিও কার্যত পর্যটন স্থলে পরিণত হয়েছে। এছাড়া বোলপুর-শান্তিনিকেতনে পার্থ-অর্পিতার নামে-বেনামে একাধিক সম্পত্তির হদিশ পেয়েছে ইডি।
তাই এই মুহুর্তে এই রকম ব্যঙ্গাত্মক ব্যানার লেখা টোটো রাস্তায় ঘোরাফেরা করায় নজর কাড়ছে সকলের।

[আরও পড়ুন: শেষযাত্রায় ছিঁড়ে নেওয়া হয় রবীন্দ্রনাথের চুল-দাড়ি! শুধু শোক নয়, বাইশে শ্রাবণ এক লজ্জার ইতিহাসও]

টোটোচালক সুকেশ চক্রবর্তী অবশ্য বলেন, “রোদ-বৃষ্টি উপেক্ষে করে চাকরির জন্য কলকাতায় ধর্না দিচ্ছেন প্রার্থীরা৷ আর এরা মানুষের টাকা চুরি করে বসে আসে৷ এই দুর্নীতির প্রতিবাদ করতে ও মানুষকে সচেতন করতেই আমি টোটোতে এই রকম ব্যানার লাগিয়েছি। যাত্রীরা দেখেও খুশি।”

দেখুন ভিডিও:

This browser does not support the video element.

Advertisement
Next