WB Civic Polls: করোনা কালে টেলিকলারেই প্রচার, অভিনব উদ্যোগ চন্দননগরের তৃণমূল প্রার্থীর

04:06 PM Jan 13, 2022 |
Advertisement

দিব্যেন্দু মজুমদার, হুগলি: করোনাবিধি নিয়ে নির্বাচন কমিশনের নিয়মকানুনকে গুরুত্ব দিয়ে অভিনব প্রচারে নামলেন চন্দননগরের (Chandannagar)এক তৃণমূল প্রার্থী। ২ নং ওয়ার্ডের প্রার্থী মোহিত নন্দী টেলিকলারের (Telecaller) মাধ্যমে জনসংযোগ সারছেন। তাঁর এই ডিজিটাল প্রচারে বেশ খুশি এলাকাবাসীও। সরাসরি টেলিফোনে প্রার্থীর সঙ্গে কথাও বলা যাচ্ছে, জানানো যাচ্ছে অভিযোগ। আবার এড়ানো যাচ্ছে শারীরিক দূরত্বও। তাঁর হয়ে এই ডিজিটাল প্রচারের মূল দায়িত্ব সামলাচ্ছেন দলেরই ৬ জন মহিলাকর্মী।

Advertisement

করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের মধ্যেই রাজ্যজুড়ে পৌরসভাগুলির নির্বাচন হতে চলেছে। আগামী ২২ জানুয়ারি চন্দননগর পুরনিগমের ভোট। ইতিমধ্যেই বিভিন্ন রাজনৈতিক দলগুলি দেওয়াল লিখন, ব্যানার, হোর্ডিং টাঙানোর মধ্য দিয়ে নিজেদের প্রচার শুরু করে দিয়েছে। কোভিডবিধি বলবৎ থাকার কারণে এখনও পর্যন্ত কোনও রাজনৈতিক দলই সভা করেনি। দলীয় সমর্থকদের সঙ্গে নিয়ে বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচারে নানা রকম সমস্যা দেখা দিতে পারে, এই আশঙ্কায় প্রচারের মাধ্যম হিসেবে টেলি কলারকেই বেছে নিয়েছেন চন্দননগরের ২ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূল (TMC) প্রার্থী মোহিত নন্দী।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: নবদ্বীপ স্টেশনের বোর্ড থেকে উধাও ‘প্লেস অফ শ্রীচৈতন্য’ লেখা, ক্ষুব্ধ স্থানীয়রা]

সম্প্রতি কোভিডবিধি (COVID-19) ভঙ্গ করে চন্দননগরে প্রচারে বিপুল সংখ্যক মানুষের জমায়েত করার অভিযোগে বিধায়ক-সহ সাত বিজেপি (BJP) নেতাকে গ্রেপ্তার করেছিল পুলিশ। সেক্ষেত্রে মোহিত নন্দীর এই অভিনব পদক্ষেপ এক ব্যতিক্রমী দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। মোহিত বাবু নিজেই তার ওয়ার্ডের কাঁটাপুকুর এলাকায় নির্বাচনী কার্যালয় থেকে বুধবার টেলি কলারের মধ্য দিয়ে প্রচার চালু করেন। দলের ৬ মহিলা নিরাপদ শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে ২ নম্বর ওয়ার্ডের প্রত্যেকটি ভোটারকে ফোন করে জোড়া ফুলে ভোট দেওয়ার জন্য আবেদন জানাচ্ছেন। দলের মহিলা কর্মীরা ফোন করে প্রথমেই নতুন ইংরেজি বছরের শুভেচ্ছা জানিয়ে তৃণমূল প্রার্থীকে জোড়া ফুল চিহ্নে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করার আবেদন জানাচ্ছেন।

[আরও পড়ুন: ‘তোকে জ্যান্ত কবর দেব, আসছি’, সোশ্যাল মিডিয়ায় তৃণমূল নেতাকে খুনের হুমকি ঘিরে চাঞ্চল্য]

ইতিমধ্যে এই কাজের জন্য ওয়ার্ডের সমস্ত ভোটারদের ফোন নাম্বারের একটি তালিকাও তৈরি হয়ে গিয়েছে। আর সেই তালিকা ধরে ভোটারদের ফোন করে ভোট দেওয়ার আবেদন জানানো হচ্ছে। অতিমারী পরিস্থিতিতে ফোনের মধ্য দিয়ে ভোট প্রচারের কাজ পেয়ে রীতিমত খুশি মহিলা কর্মীরাও। এই প্রসঙ্গে তৃণমূল প্রার্থী মোহিত নন্দী জানান, সবার আগে মানুষের স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রাখতে হবে যাতে এই অবস্থায় সাধারণ মানুষকে কোনও সমস্যায় না পড়তে হয়। বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রচারের ক্ষেত্রে অনেক সময় উৎসাহী মানুষের ভিড় দেখা যায়। তাই এই ভিড় এড়াতে তিনি টেলিকলারে প্রচার শুরু করেছেন।  ২ নম্বর ওয়ার্ডের ভোটারদের প্রতিক্রিয়া, নিঃসন্দেহে এটা খুব ভাল উদ্যোগ। তাঁদের আবেদন, মানুষের মঙ্গলের কথা চিন্তা করে অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলিও যদি এই পথ অবলম্বন করে, তবে খুব ভাল হয়।

Advertisement
Next