Advertisement

‘নেতারাই পারেন ইচ্ছেমতো নিয়ম ভাঙতে এবং গড়তে’, দেবের পোস্ট ঘিরে শোরগোল

10:40 AM Apr 19, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তিনি অভিনেতা। আবার নেতাও বটে। বারবার অভিনেতা দেবকে দেখা যায় করোনা সচেতনতা নিয়ে বার্তা দিতে। আবার ভোটের মরশুমে সেই দেবকেই দেখা যায় হাজার হাজার জনসমাগম করে সভা করতে। তবে, রাজনীতির মঞ্চ থেকেও ব্যতিক্রমী দেবকে (Dev) একাধিকবার বলতে শোনা গিয়েছে, ‘মাস্ক পরুন। ভোট আসবে-যাবে, জীবন ফিরে আসবে না।’ দেবের এই ব্যতিক্রমী স্বত্ত্বা আরও একবার ফুটে উঠল তাঁর সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে। করোনা আবহে মাস্ক পরা নিয়ে অভিনেতা দেব কটাক্ষ করলেন রাজনীতিবিদদের। বলে দিলেন, আমাদের দেশে একমাত্র নেতারাই পারেন ইচ্ছেমতো নিয়ম গড়তে এবং ভাঙতে। তাঁর এই মজার অথচ, বুদ্ধিদীপ্ত টুইট নিয়ে ইতিমধ্যেই শোরগোল পড়েছে রাজনৈতিক মহলে।

Advertisement

ঠিক কী বলেছেন দেব? আসলে সদ্যই প্রকাশিত হয়েছে দেব অভিনীত ‘গোলন্দাজ’ ছবির টিজার। ভারতে ‘ফুটবলের জনক’ নগেন্দ্রপ্রসাদ সর্বাধিকারীর ভূমিকায় তাঁর অভিনয় দেখার জন্য মুখিয়ে ছিল তাঁর অনুরাগীকূল। ১লা বৈশাখ প্রকাশিত হয়েছে ছবির টিজার। যা দেখে প্রশংসায় পঞ্চমুখ সকলেই। অনুরাগীদের ভালবাসা পেয়ে আপ্লুত দেব সোশ্যাল মিডিয়ায় পালটা পোস্টে ধন্যবাদ জানিয়েছেন অনুরাগীদের এবং সংবাদমাধ্যমকে। সেই সঙ্গে যেন প্রচ্ছন্নভাবে খোঁচা দিয়েছেন রাজনীতিবিদদের। নিজের পোস্টে অভিনেতা লিখছেন,”গোলন্দাজের টিজারকে এতটা ভালবাসা দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ। আমরা সত্যিই আপ্লুত।” এরপরই তৃণমূল সাংসদের সতর্কতা,”করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে অকারণে বাইরে বেরবেন না। বাইরে গেলেই মাস্ক পরুন। অবশ্য যদি আপনি কোনও রাজনৈতিক দলের নেতা না হন(আমাদের দেশে একমাত্র রাজনৈতিক নেতারাই ইচ্ছামতো নিয়ম ভাঙতে ও তৈরি করতে পারেন)।”

[আরও পড়ুন: যেখানে নির্বাচন হয়ে গিয়েছে, সেখানে হোক লকডাউন! করোনা মোকাবিলায় পরামর্শ দেবের]

দেবের এই ব্যঙ্গোক্তি নিয়ে শোরগোল শুরু হয়েছে নেটদুনিয়ায়। প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে নিজে রাজনীতিবিদ হয়েও রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত নেতানেত্রীদের কটাক্ষের কারণ কী? তাহলে কী করোনা পরিস্থিতিতে এভাবে ভোটের প্রচারে বিরক্ত অভিনেতা? বস্তুত এবারের নির্বাচনে তিনি নিজেও বহু সভা-সমাবেশে অংশ নিয়েছেন। তাঁর সভায় মানুষের ভিড় একেবারে হুমড়ি দিয়ে পড়ে। যদিও প্রতিটি সভা থেকেই করোনা নিয়ে সতর্ক করতে দেখা গিয়েছে অভিনেতাকে। কিন্তু, রাজনৈতিক নেতাদের এই তির্যক খোঁচার কারণ কী? এখনও উত্তর খুঁজছে নেটদুনিয়া।

Advertisement
Next