মাত্র পাঁচ দিনেই আয় প্রায় দু’কোটি, ‘পোস্ত’, ‘হামি’কেও টেক্কা ‘বেলাশুরু’র

08:25 PM May 24, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় এবং স্বাতীলেখা সেনগুপ্ত। এই দুই নামের ম্যাজিকে বক্স অফিসে বিপুল আয় ‘বেলাশুরু’র (Belashuru)।  শিবপ্রসাদ-নন্দিতা জুটি পরিচালিত ‘পোস্ত’, ‘হামি’, ‘প্রাক্তনে’র মতো সিনেমাকেও টেক্কা দিয়েছে নতুন এই ছবি। মাত্র পাঁচ দিনেই ছবির আয় প্রায় দু’কোটি।

Advertisement

২০১৫ সালে মুক্তি পেয়েছিল ‘বেলাশেষে’। বড়পর্দায় বিশ্বনাথ ও আরতির কাহিনি দেখে মুগ্ধ হয়েছিলেন দর্শকরা। তার সাত বছর পর সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছে ‘বেলাশুরু’। ভারতবর্ষের এমন এক সিনেমার যাঁর নায়ক ও নায়িকা আর বেঁচে নেই। কিন্তু শিল্পী তো শিল্পের মাধ্যমেই অমর থাকে। সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় (Soumitra Chatterjee) এবং স্বাতীলেখা সেনগুপ্তর (Swatilekha Sengupta) ক্ষেত্রেও এমনটাই হয়েছে। বাংলা সিনেমার কিংবদন্তিকে একসঙ্গে বড়পর্দায় দেখতে সিনেমা হলে ভিড় করেছেন দর্শকরা। 

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: ফাঁস করা যাবে না নতুন ছবির লুক, ছাতায় মুখ ঢেকে বিমানবন্দরে গেলেন কিং খান!]

মুক্তির দিনই ৩৫ লক্ষ টাকার ব্যবসা করেছে ‘বেলাশুরু’। উইকএন্ডে ছবির ব্যবসা আরও ভাল হয়েছে। তৃতীয় দিনেই ১ কোটি ৪১ লক্ষ টাকা আয় করে শিবপ্রসাদ ও নন্দিতা জুটি পরিচালিত ছবি। চতুর্থ দিনে ছবির আয় ছিল প্রায় ২৮ কোটি টাকা। আর পঞ্চম দিন? পঞ্চম দিনের আয় প্রায় দু’কোটি টাকার কাছাকাছি।   

এ শুধু ‘বেলাশুরু’র সাফল্য নয়, গোটা বাংলা সিনেমা জগতের সাফল্য বলেই মনে করেন ছবির অন্যতম পরিচালক শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় (Shiboprosad Mukherjee)। এর আগে সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটালের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে তিনি জানান, ‘বেলাশুরু’র এই সাফল্য সৌমিত্র-স্বাতীলেখা জুটির ম্যাজিকের জোরে। তাছাড়া বাংলার দর্শক  ভাল কনটেন্ট পেলে তাঁরা হলে সিনেমা দেখতে চলে আসেন। করোনা পরিস্থিতিতেও সিনেমা হলে আসার অভ্যাস তৈরি হয়েছে। সুদিনের এই সাফল্যে প্রত্যেক বাংলা সিনেমার অবদান রয়েছে বলেই মত শিবপ্রসাদের।  

[আরও পড়ুন: ‘আমায় কাজ দিন!’, ফেসবুক পোস্টে অনুরোধ অনিন্দ্যর, হঠাৎ কী হল অভিনেতার?

Advertisement
Next