Advertisement

‘আমি ভাগ্যবান যে কাস্টিং কাউচের মুখোমুখি হইনি’, অকপট সৌরসেনী

06:17 PM Oct 24, 2019 |

সৌরসেনী মৈত্র-র সঙ্গে আড্ডায় শ‌্যামশ্রী সাহা

Advertisement

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

কোন ছবির ডাবিং থেকে এলেন?
সৌরসেনী: ‘হেডকোয়ার্টার্স লালবাজার’। সরি, এখন তো নাম চেঞ্জ হয়ে গেছে। ‘লালবাজার ক্রাইম ইন দ্য সিটি’ হয়েছে।

কেন নাম চেঞ্জ হল?
সৌরসেনী: এটা আমি ঠিক জানি না।

এবার পুজোয় ক‘টা ফিতে কাটলেন?
সৌরসেনী: (হাসতে হাসতে) একটাও না।

তাহলে পুজোয় কী করলেন?
সৌরসেনী: এই পুজোটা আমার বেস্ট কেটেছে। আগের বছর অনেক কাজ ছিল। এই বছর পুরো ফ্যামিলির সঙ্গে কাটিয়েছি। আর প্রচুর খেয়েছি, ঘুরেছি। এই যেমন এখানে এসেও আমি প্রচুর খাই।

আপনাকে দেখে তো সেটা মনে হচ্ছে না।
সৌরসেনী: বিশ্বাস করো।

প্রচুর খাওয়ার পর কতক্ষণ ওয়ার্ক আউট করেন?
সৌরসেনী: আমি খুব লেজি। জিম, যোগা আমার একদম ভাল লাগে না। একবার কী হয়েছে জানো, আমরা বন্ধুরা মিলে বাড়ির কাছেই একটা জিমে মেম্বারশিপ নিয়েছিলাম। আমি এতটাই অলস যে, বাড়ির পাশের জিমে যেতেও আমার ইচ্ছে করত না। সারা বছরের মেম্বারশিপ নিয়ে মাত্র দু্’দিন জিমে গিয়েছিলাম। (হাসি) আমার শুধু ঘুমোতে ভাল লাগে। তবে বাড়িতে কিছু হালকা ব্যায়াম করি। আমার বিএমআর, মানে মেটাবলিক রেট খুব ভাল তাই এত খেয়েও মোটা হই না। (হাসি)

মডেলিং থেকে অভিনয়ে আসার আগে মানসিক প্রস্তুতি কেমন ছিল? তখন তো আপনি মডেলিং-এর জগতে পরিচিত নাম। আর অভিনয়ের জগতে কেউ আপনাকে চিনত না।
সৌরসেনী: ছোটবেলা থেকেই আমার অভিনয় ভাল লাগত। আমার ফ্যামিলি ব্যাকগ্রাউন্ড আবার কনজারভেটিভ। বাবা স্কুলের হেডমাস্টার ছিলেন, আমিও হয়তো ওই প্রফেশনেই যেতাম। কিন্তু, ছোটবেলায় একটা কাজ করার পর আরও কাজ আসতে শুরু করে। প্রচুর অ্যাডে কাজ করতে শুরু করি। আর থ্যাঙ্ক গড আমার বাড়ি থেকে কোনও অবজেকশন আসেনি। আমার কাছে প্রথম অভিনয় করার ডাক আসে ‘চিটাগং’ ছবি থেকে। আমার এক্সপেরিমেন্ট করতে ভাল লাগে। ভাবলাম একবার ট্রাই করে দেখি। তখন তো আমি অনেকটাই ছোট। পুরো ব্যাপারটাই আমার কাছে স্বপ্নের মতো ছিল। ‘আমেরিকা’ করার সময় আমাকে মুম্বইয়ে থাকতে হয়েছিল। ছবিটা করার সময় অভিনয়কে আমি সত্যিই ভালবেসে ফেলি। তখন ঠিক করে নিই আমি অভিনয় করব। প্রথমে অনেক গল্পই শুনেছিলাম কিন্তু আমায় সুযোগ পাওয়ার জন্য এমন কিছুই করতে হয়নি।

[ আরও পড়ুন: নোবেল পেয়েও সমালোচিত অভিজিৎ, নিন্দায় সরব অপর্ণা-কবীর সুমনরা ]

কাস্টিং কাউচের কথা বলছেন?
সৌরসেনী: হ্যাঁ। আমি ভাগ্যবান আমাকে সেসব কিছু ফেস করতে হয়নি।

ওয়েব সিরিজ ছাড়া আর কোন ছবি সাইন করলেন?
সৌরসেনী: এই বছরে আমি চারটে ওয়েব সিরিজ করলাম। তার মধ্যে ‘লালবাজার ক্রাইম ইন দ্য সিটি’ ১৫ নভেম্বর রিলিজ করছে।

আর মুম্বইয়ের অফার?
সৌরসেনী: আমার হাতে এখন যা কাজ আছে, তাতে আমি মুম্বইয়ে ছবির জন্য ডেট দিতে পারব না। তাই ফিল্মের অফারটা ছাড়তে হল। তা ছাড়া আমি মনে করি যেখানে আমি আগে কথা দিয়েছি বা ডেট দিয়েছি, সেটাই আমার প্রায়োরিটি। আর এটা নিয়ে আমার কোনও আক্ষেপ নেই।

ছেড়ে দিলেন। আপনি তো শাহরুখ খানের ফ্যান। অপোজিটে যদি শাহরুখ থাকতেন?
সৌরসেনী: (হা হা হা) তাহলে ছাড়তাম না। ভিকি কৌশল বা রণবীর সিং থাকলেও চলে যেতাম। কিন্তু এই ক্ষেত্রে কাজ করাটা সম্ভব ছিল না। তবে আ্যাডের কাজের জন‌্য আমাকে মুম্বই যেতে হয়।

ডিরেক্টর কে ছিলেন?
সৌরসেনী: আমি বলতে পারব না। কারণ ওই ছবিতে এখন অন্য কেউ কাজ করছেন, তাই আমার বলাটা ঠিক দেখায় না।

গত দু’বছরে এমন কোনও চরিত্র আপনার কাছে আসেনি যেখানে আপনি লিড করছেন। আগামিদিনে কি এরকম অফার আছে?
সৌরসেনী: আমি কিন্তু কখনও কোনও স্ট্র্যাটেজি নিয়ে চলিনি। আমার অভিনয়ের কোনও ব্যাকগ্রাউন্ডও নেই। আমি যা শিখেছি, কাজ করতে করতে। আমার কাছে যা সুযোগ এসেছে আমি অ্যাকসেপ্ট করেছি। হয়তো আগামিদিনে আরও ভাল সুযোগ আসবে। আমার একটা ছবিতে কাজ করার কথা চলছে যেটা যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। নভেম্বরে শুটিং শুরু হওয়ার কথা ছিল। একটু পিছিয়ে গেছে। ডিসেম্বর বা জানুয়ারিতে শুটিং শুরু হবে।

পরিচালক কে?
সৌরসেনী: সরি, এখনই বলতে পারব না।

এই ছবিতে আপনার ক্যারেক্টার কতটা গুরুত্বপূর্ণ?
সৌরসেনী: আমি এখন এটুকুই বলতে পারি, এটা একটা মিষ্টি সম্পর্কের ছবি।

টালিগঞ্জের দৌড়ে আপনি এখনও নাম লেখাননি।
সৌরসেনী: না। তবে এখানে কম্পিটিশন আছে। আমি সুস্থ প্রতিযোগিতার পক্ষে।

এই সময়টা তো কাজে লাগাতে পারতেন? অনেক নায়িকাই এখন রাজনীতিতে ব্যস্ত। ফিল্মের ডেট দেওয়া কঠিন তাঁদের পক্ষে।
সৌরসেনী: আমরা এমন একটা ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করি, যেখানে রিপ্লেসমেন্ট পাওয়াটা চাপের নয়। কিন্তু আমি কারওর জায়গায় নয়, নিজের যোগ্যতায় কাজ পেতে চাই।

[ আরও পড়ুন: অনেক বঞ্চনা সহ্য করেছেন, এবার কি দাদাগিরির পালা সৌরভের? ]

বোঝা গেল কেরিয়ারই এখন আপনার পাখির চোখ। ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে কোনও প্ল্যান নেই?
সৌরসেনী: প্রেম করি কি না জানতে চাইছ?

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

জানতে চাইছি সম্পর্ককে কতটা সময় দিচ্ছেন?
সৌরসেনী: আমি কোনও সম্পর্কে নেই। এখন দেখি যে কোনও কারণে ঝগড়া হল আর সেই সম্পর্ক শেষ। দু’মাসের মধ্যে আরেকটা সম্পর্ক তৈরি হয়ে গেল। এইরকম সম্পর্কে আমি বিশ্বাসী নই। আমি এখন যদি কোনও সম্পর্কে থাকতাম, কাজের ব্যস্ততার জন্য সেই সম্পর্কটাকে সময় দিতে পারতাম না। আমি কাজ ভালবাসি, তাই সময়টা কাজকেই দিচ্ছি।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

The post ‘আমি ভাগ্যবান যে কাস্টিং কাউচের মুখোমুখি হইনি’, অকপট সৌরসেনী appeared first on Sangbad Pratidin.

Advertisement
Next