Advertisement

কিরণ বেদীকে অপসারণের দাবিতে রাজভবনের সামনে ধরনা পুদুচেরির মুখ্যমন্ত্রীর

02:50 PM Jan 10, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: উপ-রাজ্যপাল কিরণ বেদীকে ক্ষমতা থেকে অপসারণের দাবিতে রাজভবনের সামনে ধরনায় বসেছেন পুদুচেরির মুখ্যমন্ত্রী ভি নারায়ণস্বামী। শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া এই কর্মসূচিতে রয়েছেন পুদুচেরির কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন সেকুলার ডেমোক্র্যাটিক অ্যালায়েন্সের সমস্ত সদস্যরাও।

Advertisement

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ক্ষমতায় বসার পর থেকেই পুদুচেরির উপ-রাজ্যপাল কিরণ বেদী (Kiran Bedi) রাজ্যের নির্বাচিত সরকারকে কাজ করতে দিচ্ছে না বলে অভিযোগ। এর আগেও বিভিন্ন সময় এর প্রতিবাদ জানিয়ে কেন্দ্রের কাছে তাঁকে অপসারণের দাবি তুলেছে পুদুচেরির মুখ্যমন্ত্রী ভি নারায়ণস্বামীর নেতৃত্বাধীন মন্ত্রিসভা। বিষয়টি নিয়ে রাষ্ট্রপতিরও দ্বারস্থ হয়েছেন নারায়ণস্বামী। কিন্তু, কিছুতেই তাঁদের সমস্যার সমাধান হয়নি বলে অভিযোগ। এর জেরে বাধ্য হয়ে গত শুক্রবার থেকে পুদুচেরির রাজভবনের সামনে মুখ্যমন্ত্রী ভি নারায়ণস্বামীর নেতৃত্বে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করেছে রাজ্যের শাসক জোটের সদস্যরা। কিরণ বেদীকে অবিলম্বে অপসারণের বিষয়ে প্রতিশ্রুতি দেওয়া না হলে আরও বৃহত্তর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়েছে।

[আরও পড়ুন: বিয়ের পরও ‘পরকীয়া’! সদ্যবিবাহিত মেয়েকে গুলি করে খুনের পর আত্মসমর্পণ বাবার]

পুদুচেরির (Puducherry) প্রশাসন সূত্রে খবর, শুক্রবার থেকে শুরু হওয়ায় এই ধরনায় মুখ্যমন্ত্রী ভি নারায়ণস্বামী ছাড়াও রয়েছেন তাঁর মন্ত্রিসভার সদস্যরা, শাসক জোটের বিধায়ক ও কর্মীরা। অবস্থান বিক্ষোভ কর্মসূচির জায়গায় কিরণ বেদীকে অপসারণের দাবিতে লেখা পোস্টারের পাশাপাশি মোদির বিরুদ্ধেও পোস্টার চোখে পড়ছে। তাতে লেখা রয়েছে, ‘কর্পোরেট মোদি কুইট! কুইট! কল ব্যাক কিরণ বেদি’।

বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ, রাজ্যের উপ-রাজ্যপাল কিরণ বেদী স্বৈরাচারী মনোভাব নিয়ে কাজ করছেন। দীর্ঘদিন ধরেই মন্ত্রিসভায় যা সিদ্ধান্তই নেওয়া হচ্ছে উনি সেগুলি বাতিল করে দিচ্ছেন। নিজের সরকারি পদের অপব্যবহার করে ভারতীয় সংবিধানের অপমান করেছেন। তিনি যে শপথ নিয়ে পদে বসেছিলেন তা মানছেন না। সরকারের প্রতিদিনের কাজে অযথা হস্তক্ষেপ করছেন। উনি সংবিধান ও আইন ভেঙে পুদুচেরিতে সমান্তরাল সরকার চালানোর চেষ্টা করছেন। তার বাতিল করে দেওয়া অনেকগুলি সিদ্ধান্তে পরে সিলমোহর দেয় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। এই ঘটনাগুলি প্রমাণ করে যে ড. কিরণ বেদি লেফটেন্যান্ট গর্ভনর পদের যোগ্য নন।

[আরও পড়ুন: ‘বিরিয়ানি খেয়ে আন্দোলনরত কৃষকরা বার্ড ফ্লু ছড়াচ্ছেন’, বিজেপি বিধায়কের মন্তব্যে বিতর্ক]

Advertisement
Next