তৃতীয় বা চতুর্থ ফ্রন্ট করে বিজেপিকে হারানো যাবে না! বিরোধী বৈঠকের আগে বিস্ফোরক PK

12:00 PM Jun 22, 2021 |
Advertisement

বিশেষ সংবাদদাতা, নয়াদিল্লি: তৃতীয় বা চতুর্থ ফ্রন্টের ধারণা সেকেলে। এভাবে বিজেপিকে চ্যালেঞ্জ করা যাবে না। শরদ পওয়ারের বাড়িতে ১৫টি বিরোধী দলের বৈঠকের ঠিক একদিন আগে একপ্রকার বিস্ফোরণ ঘটালেন প্রশান্ত কিশোর (Prashant Kishor)। সোমবার রাতে একটি বেসরকারি টিভি চ‌্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে প্রশান্ত কিশোর জানিয়েছেন, তিনি বিজেপির (BJP) বিরুদ্ধে কোনও তৃতীয় বা চতুর্থ মোর্চা করতে নামেননি। তৃতীয় বা চতুর্থ মোর্চার সেকেলে ধারণা দিয়ে বিজেপিকে ঠেকানো সম্ভব বলেও তিনি মনে করেন না।

Advertisement

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবারই দেশের অবিজেপি এবং অকংগ্রেসি ১৫টি রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিদের দিয়ে দিল্লিতে বৈঠকে বসছেন শরদ পওয়ার (Sharad Pawar)। যে রাষ্ট্রমঞ্চের ছাতার নিচে আজকের বৈঠক হতে চলেছে, তা ২০১৮ সালের ৩০ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সরকারের নীতির বিরুদ্ধে তৈরি করেছিলেন যশবন্ত সিনহা (Yashawant Sinha)। যিনি সদ‌্য তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন। যশবন্তকে সামনে রেখে এই সলতে পাকানোর কাজে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছেন ভোটকুশলী প্রশান্ত কিশোর। পওয়ারের বাড়িতে এই বৈঠক ডাকার পিছনে প্রধান ভূমিকা প্রশান্ত কিশোরেরই। বিগত পনেরো দিনে পিকে-র সঙ্গে দু’-বার বৈঠক করেছেন পাওয়ার। গত রবিবার পিকে’র সঙ্গে বৈঠকের পর সোমবারই বৈঠক ডাকার কথা প্রকাশ্যে এসেছে। যা তাৎপর্যপূর্ণ। দেশের করোনা আবহে এই প্রথমবার ভার্চুয়ালি নয়, সশরীরে বৈঠকে হাজির হওয়ার ক্ষেত্রে নেতাদের সম্মতি তারই উদারহণ। জানা গিয়েছে, এদিনের বৈঠকে থাকবেন জম্মু-কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লা, আপ নেতা সঞ্জয় সিং, বাম নেতা ডি রাজার পাশাপাশি জাভেদ আখতার, করণ থাপার, প্রাক্তন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার এস ওয়াই কুরেশি, অর্থনীতিবিদ অরুণ কুমার, প্রীতীশ নন্দী, আইনজীবী কে টি তুলসীর মতো সমাজের বিশিষ্ট ব্যক্তিরাও।

[আরও পড়ুন: উত্তরপ্রদেশে মোদির ভোটপ্রচার শুরু হলেই আছড়ে পড়বে করোনার তৃতীয় ঢেউ, তোপ সায়নীর]

পিকে’র অনুরোধেই কংগ্রেসকে (Congress) বাদ দিয়ে জাতীয় এবং আঞ্চলিক দলগুলিকে নিয়ে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে আগামী লোকসভা নির্বাচনের জন্য একজোট করার দায়িত্ব নিতে রাজি হয়েছেন পাওয়ারও। তিনি নিজেও আজই প্রথমবার রাষ্ট্রমঞ্চের বৈঠকে যোগ দেবেন। প্রশান্ত কিশোরও স্বীকার করে নিয়েছেন, শরদ পাওয়ারের সঙ্গে তাঁর দু’দফার বৈঠকে পুরোদস্তুর রাজনৈতিক আলোচনা হয়েছে। রাজ‌্য ধরে ধরে তাঁরা বিচার করেছেন, কীভাবে আগামী লোকসভা ভোটে বিজেপিকে পরাস্ত করা যায়। ২০২৪ সালে বিজেপির বিরুদ্ধে একটা সামগ্রিক বিকল্প তৈরি করতেই তিনি কাজ করছেন। এ হেন বৈঠকের আগে তৃতীয় বা চতুর্থ ফ্রন্ট নিয়ে পিকের এই বক্তব্য প্রশ্ন তুলছে, তাহলে কি তথাকথিত মহাজোটে কংগ্রেসকেও শামিল করতে চান তিনি? সে বিষয়ে মতামত চাইতেই কি আজকের বৈঠক?

Advertising
Advertising

Advertisement
Next