Advertisement

‘এক যুগ কেটে গেলেও ক্ষত এখনও দগদগে’, ২৬/১১ মুম্বই হামলার স্মৃতিচারণা প্রধানমন্ত্রীর

04:11 PM Nov 26, 2020 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এক যুগ কেটে গিয়েছে তবু সেদিনটা ভোলার নয়। ২৬/১১-এর ক্ষত এখনও দগদগে। বৃহস্পতিবার গুজরাটে এক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে এভাবে মুম্বই হামলায় শহিদের প্রতি শ্রদ্ধা জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (PM Narendra Modi)। একইসঙ্গে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাওয়ারও প্রতিজ্ঞা করলেন তিনি। হামলার পিছনে পাকিস্তানের ভূমিকার তীব্র সমালোচনাও করলেন।

Advertisement

এদিন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেন, “২০০৮ সালে হামলার ক্ষত এখনও ভোলেনি দেশবাসী।” তাঁর কথায়, ২০০৮-এর মুম্বই হামলা (26/11 Mumbai Attack) দেশের সবচেয়ে বড় সন্ত্রাসবাদী হামলা। পাকিস্তান থেকে আসা জঙ্গিদের হামলায় প্রাণ হারিয়েছিলেন বহু ভারতীয়। অন্যান্য দেশের নাগরিকরাও প্রাণ হারান। তাঁদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান মোদি। এ প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে সন্ত্রাসে মদতদাতাদের বিরুদ্ধে কড়া হুঁশিয়ারি দিয়ে মোদি জানান, নাশকতামূলক কার্যকলাপের বিরুদ্ধে লড়াই করতে ভারত অঙ্গীকারবদ্ধ।

[আরও পড়ুন : স্পষ্ট জঙ্গিযোগ! ২৬/১১ মুম্বই হামলায় খতম লস্কর সদস্যদের স্মৃতিতে প্রার্থনাসভা পাকিস্তানে]

একা প্রপধানমন্ত্রী নন, এদিক ২৬/১১-এর মুম্বই হামলায় শহিদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান দেশের উপ রাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নাইডু, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ-সহ অনেকেই। এদিন উপরাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নাইডু জানান, “২৬/১১-এর মুম্বই হামলায় শহিদদের প্রতি আমি শ্রদ্ধা নিবেদন করি। তাঁদের ত্যাগ, সাহসিকতাকে দেশ কোনওদিনও ভুলবে না।” অমিত শাহ লেখেন, “এই হামলায় যাঁরা প্রাণ হারিয়েছেন তাঁদের পরিবারের জন্য আমার সমবেদনা রইল। যে নিরাপত্তাকর্মীরা সন্ত্রাসবাদীদের সামনে বুক চিতিয়ে লড়েছিলেন তাঁদের স্যালুট। গোটা দেশ তাঁদের সাহসিকতাকে মনে রেখেছে।”

এদিকে, ভারতে ঘটে যাওয়া সমস্ত রকম সন্ত্রাসবাদী হামলার পিছনে যে পাকিস্তানই জড়িত ফের তার প্রমাণ পাওয়া গেল। ২৬/১১ মুম্বই হামলার ১২ বছরপূর্তিতে ভারতবাসী যখন অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে মৃতদের স্মরণ করছে। ঠিক তখনই মুম্বই হামলার ঘটনায় খতম হওয়া ১০ জন লস্কর জঙ্গির স্মৃতিতে প্রার্থনাসভার আয়োজন করার খবর পাওয়া গেল পাকিস্তানে। বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পরেই এই হামলার পিছনে যে ইসলামাবাদের প্রত্যক্ষ মদত ছিল ফের তা বোঝা গেল।

[আরও পড়ুন : মুম্বই হামলায় নিহতদের শ্রদ্ধাজ্ঞাপন ইজরায়েলের, দোষীদের শাস্তির দাবি জেরুজালেমের]

Advertisement
Next