স্বামী বিবেকানন্দের চিন্তাধারা চারিদিকে ছড়িয়ে দিন, জাতীয় যুব দিবসে আহ্বান মোদির

01:07 PM Jan 12, 2021 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ইচ্ছাশক্তির জোর থাকলে বয়স কোনও বিষয় নয়। করোনা মহামারীর মোকাবিলা করার সময় সেকথা বারবার প্রমাণ হয়েছে। স্বামী বিবেকানন্দের (Swami Vivekananda) জন্মদিন উপলক্ষে সংসদ ভবনে আয়োজিত যুব উৎসবে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তাই তাঁর চিন্তাধারা চারিদিকে ছড়িয়ে দেওয়ার আহ্বান জানালেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী। দেশের যুব সম্প্রদায় সেই কাজ করতে সমর্থ হবে বলেও উল্লেখ করে তিনি।

Advertisement

মঙ্গলবার স্বামী বিবেকানন্দের ১৫৮তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ভারতের সংসদ ভবনে জাতীয় যুব উৎসবের আয়োজন করেছিলেন লোকসভার অধ্যক্ষ ওম বিড়লা। সেই অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi) বলেন, ‘ভারতের যুব শক্তি চাইলে যে সব কিছু করতে পারে অতীতে তার বহুবার প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে। আজ থেকে অনেক বছর আগে স্বামীজি আমাদের যে শিক্ষা দিয়ে গিয়েছিলেন আজও তা প্রাসঙ্গিক। করোনা মহামারীর মোকাবিলা করতে গিয়ে সেকথা বারবার প্রমাণ হয়েছে। তাই দেশের যুব সম্প্রদায়ের কাছে অনুরোধ করব স্বামীজির চিন্তাধারা চারিদিকে ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য।’

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: ২৪ ঘণ্টায় দেশে অনেকটা কমল করোনা সংক্রমণ, সেরাম থেকে ১৩ শহরে রওনা দিল ভ্যাকসিন]

লোকসভায় এই ধরনের অনুষ্ঠানের আয়োজন করার জন্য স্পিকার ওম বিড়লার প্রশংসা করে প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ‘স্বামী বিবেকানন্দের মহান চিন্তাধারার দ্বারা অনুপ্রাণিত হয়ে ও যুব সমাজকে তাঁর বিষয়ে সচেতন করার জন্য ওম বিড়লাজি যে উদ্যোগ নিয়েছেন তা অত্যন্ত প্রশংসার যোগ্য। এই মঞ্চ ভারতের যুব সম্প্রদায়ের দক্ষতা প্রমাণের একটা উৎকৃষ্ট মাধ্যম। এক ভারত, শ্রেষ্ট ভারত তৈরির জন্য স্বামীজির চিন্তাধারার দেশে ছড়িয়ে দেওয়ার এই উদ্যোগ খুবই কার্যকরী হবে।’

স্বামী বিবেকানন্দকে স্মরণ করার ফাঁকেই নাম না করে কংগ্রেসকেও তোপ দাগেন মোদি। গান্ধী পরিবারকে কটাক্ষ করে বলেন, ‘পরিবারতান্ত্রিক রাজনীতি দেশ গঠনের পথে খুব বড় একটা বাধা। তাই একে সম্পূর্ণ উৎখাত করতে হবে। একটা সময় ছিল যখন এই দেশে মানুষ নির্বাচনে লড়াই করতে গিয়ে পদধি ব্যবহার করতেন। রাজনীতিতে পরিবারতন্ত্রের সেই রোগকে এখনও নির্মূল করা যায়নি।’

[আরও পড়ুন: মর্মান্তিক গাড়ি দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর স্ত্রী ও আপ্ত সহায়ক, আশঙ্কাজনক মন্ত্রীও]

Advertisement
Next