সুরমায় বিজেপিকে হারান, কথা দিচ্ছি পেট্রল-ডিজেলের দাম কমবে: অভিষেক

05:38 PM Jun 20, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ত্রিপুরা বিধানসভা উপনির্বাচনের (Tripura By polls) প্রচারে গিয়ে ফের বিজেপিকে (BJP) বিঁধলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর চ্যালেঞ্জ, “সুরমায় বিজেপিকে হারান, কথা দিচ্ছি ফের পেট্রল-ডিজেলের দাম কমবে। বাংলায় হারিয়েছিলাম, পেট্রল-ডিজেলের দাম কমেছে।” একইসঙ্গে বিরোধী ভোট একজোট রাখার আবেদন জানালেন তিনি। “তৃণমূল বাদে অন্য দলকে ভোট দিলে তা আদপে বিজেপিরই সুবিধা করে দেবে”, বলছেন তৃণমূলের সেনাপতি।

Advertisement

জুনের শেষে ত্রিপুরার (Tripura) চার আসনে উপনির্বাচন। তার আগে পাহাড়ি রাজ্যে প্রচার তুঙ্গে। চার আসনে জয় পেতে মরিয়া তৃণমূল (TMC)। ইতিমধ্যে সে রাজ্য দুবার প্রচার সারলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় (Abhishek Banerjee)। সভা-ব়্যালি করছেন হেভিওয়েট নেতারা। সোমবার সুরমায় জনসভা করলেন অভিষেক। তাঁর সভায় ছিল উপচে পড়া ভিড়। সেই জনসভা থেকেই বিজেপিকে তুলোধোনা করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সুযোগ্য সেনাপতি। বললেন, “একমাত্র মমতা বন্দ্যোপাধ্যাই চোখে চোখ রেখে লড়াই করছেন। তৃণমূলকে ধমকে চমকে লাভ নেই।”

[আরও পড়ুন: নিয়োগ করা যাবে না অন্তঃসত্ত্বা মহিলাদের, ইন্ডিয়ান ব্যাংকের বিজ্ঞপ্তির তীব্র প্রতিবাদ মহিলা কমিশনের]

ত্রিপুরার ডবল ইঞ্জিন সরকারকে ডবল চোরের সরকার বলেও কটাক্ষ করলেন অভিষেক। তাঁর কথায়, “দিল্লিতেও ওরা চুরি করছে। ত্রিপুরাতেও করছে। রাস্তা বানাতে গিয়ে লক্ষ-লক্ষ টাকা তছরুপ করছে।” একইসঙ্গে বিজেপি ভয় পেয়েছে বলেও তোপ দাগলেন তিনি। অভিষেকের কথায়, “তৃণমূল ত্রিপুরাতে আসতেই বিজেপি ভয় পেয়েছে। ওদের পায়ের তলার মাটি সরে গিয়েছে। তৃণমূল আসার পর বিরোধীরা রাস্তায় বেরচ্ছে। বিরোধী রাজনীতি কী, তা তৃণমূল বুঝিয়ে দিয়েছে।”

Advertising
Advertising

বাংলার উন্নয়নের সঙ্গে ত্রিপুরার তুলনা টানেন তৃণমূল সাংসদ। অভিষেক অভিযোগ, “একশো মিটার রাস্তা তৈরি করতে কোটি কোটি টাকা তছরুপ হয়েছে। বাংলার ব্লকে ব্লকে সুপার স্পেশ্যালিটি হাসপাতাল রয়েছে, ত্রিপুরায় তা হয়নি। কেন হয়নি জানতে চান বিজেপি নেতার কাছে।” ত্রিপুরায় তৃণমূল সরকার গড়লে লক্ষ্মীর ভান্ডার গড়ার আশ্বাসও দিলেন তিনি। একইসঙ্গে ত্রিপুরাবাসীর কাছে অভিষেকের আবেদন, “২০২৩ সালের ৬০টি আসনের মধ্যে বিজেপি যাতে ছ’টা আসনও না পায়, সেটা আপনারা নিশ্চিত করুন।”

[আরও পড়ুন: Roddur Roy: এখনই কাটছে না বন্দিদশা, জামিন পেলেও আপাতত হেফাজতেই রোদ্দুর]

Advertisement
Next