Madan Mitra: অবশেষে মিলল পুরস্কার, রাজ্যের নয়া দায়িত্বে ‘রঙিন ছেলে’মদন মিত্র

09:41 PM Nov 23, 2021 |
Advertisement

স্টাফ রিপোর্টার: চওড়া হাসি ‘রঙিন ছেলে’ মদন মিত্রের মুখে। বাংলার পরিবহণ নিগমের নতুন চেয়ারম্যান হলেন কামারহাটির বিধায়ক। উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন পর্ষদের চেয়ারম্যানের পদ দেওয়া হল রবীন্দ্রনাথ ঘোষকে।

Advertisement

মঙ্গলবার পরিবহণ দপ্তরের তরফে বিজ্ঞপ্তি জারি করে মদন মিত্রের (Madan Mitra) চেয়ারম্যান হওয়ার কথা জানানো হয়। দায়িত্ব নিয়েই মঙ্গলবার পরিবহণ ভবনে পৌঁছে যান প্রাক্তন পরিবহণমন্ত্রী। আধিকারিকদের সঙ্গে পরিচয়পর্ব সারেন। দপ্তরের খোঁজখবর নেন। নতুন দায়িত্ব দেওয়ার জন্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Mamata Banerjee) ধন্যবাদও জানান তিনি। বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আশীর্বাদ নিয়ে নতুন দায়িত্ব শুরু করলাম। যথাসাধ্য তা পালনের চেষ্টা করব। মুখ্যমন্ত্রী যা কথা দেন, তা যে অক্ষরে অক্ষরে পালন করেন, আজ ফের তা দেখলাম।” উল্লেখ্য, সিটিসি, সিএসটিসি এবং ডাব্লবিএসটিসি এই তিনটি নিগম মিলিয়ে ডাব্লুবিটিসি বা পশ্চিমবঙ্গ পরিবহণ নিগম তৈরি হয়েছে।

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1630720090-3');});

[আরও পড়ুন: চোখের সামনে প্রেমিকের বাইকে চেপে পালাল বউ, শ্বশুরবাড়িতে আত্মহত্যা স্বামীর]

একুশের বিধানসভায় কামারহাটিতে তৃণমূলের টিকিটে দাঁড়িয়ে বিপুল ভোটে জিতেছিলেন মদন মিত্র। কিন্তু তারপরও বিশেষ কোনও পদ তাঁকে দেয়নি প্রশাসন। মন্ত্রী তকমা চাপেনি তাঁর গায়ে। যার জন্য নিজেকে দলের বিশ্বস্ত সৈনিক বলেও আড়ালে দুঃখপ্রকাশ করেছিলেন তিনি। এমনকী ফেসবুক লাইভে কামারহাটি পুরসভার দায়িত্বও চেয়েছিলেন মদন মিত্র। সেই দায়িত্ব না পেলেও অবশেষে ইচ্ছেপূরণ হল তাঁর। পরিবহণ নিগমের গুরুভার সামলাবেন পোর খাওয়া এই তৃণমূল নেতা।

Advertising
Advertising

এদিকে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন পর্ষদের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব দেওয়া হল রবীন্দ্রনাথ ঘোষকে। ভাইস চেয়ারম্যান হলেন বিনয়কৃষ্ণ বর্মণ, সাবিত্রী মিত্র এবং মৃদুল গোস্বামী। প্রশাসনের তরফে এদিন বিজ্ঞপ্তি দিয়ে জানানো হয়, চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানের পাশাপাশি ন’জনকে সদস্য করা হয়েছে। এছাড়াও একজন সদস্য সচিব থাকবেন। জেমস কুজুর, ফজলে করিম মিঞাঁ, হামিদুল রহমান, কল্পনা কিস্কু, মিতালি রায়, প্রতিভা সিং, বিজয় চন্দ্র বর্মণ, রঞ্জন সরকার ও গৌতম দাস। সদস্য সচিব হবেন অতিরিক্ত মুখ্যসচিব/প্রিন্সিপ্যাল সেক্রেটারি/উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের সচিব।

[আরও পড়ুন: এ কেমন মানসিকতা! বিয়ের বিজ্ঞাপনে হবু স্ত্রীর স্তন ও কোমরের মাপ নির্দিষ্ট করে দিল যুবক]

Advertisement
Next