Advertisement

দলত্যাগ মামলায় শুনানি পিছনোর আরজি, স্পিকারকে চিঠি Mukul Roy-এর

03:48 PM Aug 17, 2021 |
Advertisement
Advertisement

বুদ্ধদেব সেনগুপ্ত: দলত্যাগ মামলার শুনানিতে স্পিকারের কাছে হাজিরা এড়ালেন বিজেপি নেতা মুকুল রায় (Mukul Roy)। মঙ্গলবারই বিধানসভার স্পিকারের কাছে হাজিরা দেওয়ার কথা ছিল মুকুলের। কিন্তু এদিন তিনি চিঠি দিয়ে স্পিকারকে জানিয়েছেন, তাঁর শারীরিক অবস্থা ভাল নয়। তাই তাঁকে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করার জন্য আরও একমাস সময় দেওয়া হোক।

Advertisement

প্রসঙ্গত, ২০২১ বিধানসভা নির্বাচনে মুকুল রায় কৃষ্ণনগর উত্তর কেন্দ্র থেকে বিজেপির (BJP) টিকিটে জিতে এসেছিলেন। কিন্তু ভোটের কিছুদিন পরই তিনি বিজেপি ছেড়ে নিজের পুরনো দল তৃণমূল কংগ্রেসে ফিরে যান। অন্তত তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়ে গিয়ে দলের উত্তরীয় গলায় জড়াতে দেখা গিয়েছিল তাঁকে। তবে, বিধানসভায় খাতায় কলমে এখনও তিনি বিজেপির সদস্য। বিজেপির সদস্য হিসাবেই তাঁকে পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটির (Public Accounts Chairman) চেয়ারম্যান করেছেন স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়। যা নিয়েও বিতর্ক বেঁধেছে। বিজেপির দাবি, তাঁরা মুকুলকে মনোনীতই করেনি। মুকুলের পিএসি চেয়ারম্যান হওয়া নিয়ে মামলা গড়িয়েছে হাই কোর্ট পর্যন্ত।

[আরও পড়ুন: ‘গণতন্ত্র মানে কি পোশাক ছাড়া রাস্তায় ঘুরে বেড়ানো?’, বিতর্কিত মন্তব্য Dilip Ghosh-এর]

এদিকে, তৃণমূলে যোগ দেওয়ার পর মুকুলের বিরুদ্ধে দলত্যাগ বিরোধী আইন কার্যকর করে তাঁর বিধায়ক পদ বাতিলের দাবিতে স্পিকারের কাছে আবেদন জানিয়েছেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। শুভেন্দুর করা আবেদনের ভিত্তিতে বার দুই শুনানিও হয়েছে স্পিকারের ঘরে। দুবারই বিরোধী দলনেতা উপস্থিত ছিলেন। মঙ্গলবারই এই অভিযোগের তৃতীয় শুনানি হওয়ার কথা ছিল। এবং হাজির থাকার কথা ছিল মুকুল রায়ের নিজের। কিন্তু তিনি নিজে না উপস্থিত থেকে চিঠি লিখে সময় চেয়ে নিয়েছেন। মুকুলের আবেদন মেনে নিয়ে স্পিকার তাঁকে অতিরিক্ত সময় দেওয়ারও সিদ্ধান্ত নিয়েছেন স্পিকার। 

[আরও পড়ুন: ‘শহিদ সম্মান যাত্রা’য় বাধা, পুলিশের সঙ্গে বচসা বিজেপি কর্মীদের, আটক Shantanu Thakur-Jay Prakash]

প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার মুকুল রায় পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটির মিটিংয়ে যোগ দেন। এবং সেই বৈঠকে যোগ দেওয়ার পরও বর্ষীয়ান নেতা দাবি করেন, তিনি বিজেপির মনোনীত প্রার্থী হিসাবে PAC চেয়ারম্যান পদে বসেছেন। যা তাঁর ভবিষ্যৎ নিয়ে ধোঁয়াশা বাড়িয়ে তুলেছে।

Advertisement
Next