Advertisement

বিধানসভায় সিবিআই, ইডি হাজিরা মামলার কোনও নির্দেশ না দিয়েই নিষ্পত্তি করল হাই কোর্ট

09:40 PM Oct 08, 2021 |

স্টাফ রিপোর্টার: সিবিআই (CBI) ও ইডি (ED) আধিকারিকদের বিধানসভার অধ্যক্ষ তলব করতে পারেন কি না, এই প্রশ্নে দায়ের হওয়া মামলার কোনও নির্দেশ না দিয়েই নিষ্পত্তি করল কলকাতা হাই কোর্ট।

Advertisement

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1630720090-3');});

বিধানসভায় তলবের ঘটনায় অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে সিবিআই এবং ইডির দায়ের করা মামলায় শুক্রবারের শুননি-পর্বে বিরক্তি প্রকাশ করেন বিচারপতি রাজাশেখর মান্থা (Rajshekhar Mantha)। এই প্রশ্নের সরাসরি কোনো উত্তর না দিয়ে বিচারপতি রাজাশেখর মন্থার মন্তব্য, ‘‘অনেক হয়েছে, আর নয়। দু’পক্ষকেই বলছি যথেষ্ট রাজনৈতিক ঝগড়া হয়েছে। এ বার আপনারা এ সব বন্ধ করুন। সব ভুলে কাজে মন দিন। পরবর্তীকালে এই ধরনের পরিস্থিতি উদ্ভূত হলে আইন নিজের কাজ করবে।’’

[আরও পড়ুন: পুজোয় ক্লাবগুলিকে অনুদানে রইল না কোনও বাধা, সবুজ সংকেত হাই কোর্টের]

মামলায় সরাসরি কোনও নির্দেশ না দিলেও এদিন আদালত জানিয়ে দিয়েছে, আগামী দিনে সিবিআই এবং ইডিকে অধ্যক্ষ তলব করলে তাদের কাছে আদালতের দ্বারস্থ হওয়ার সুযোগ রয়েছে। এ প্রসঙ্গে কেরল বিধানসভার (Kerala Assembly) অধ্যক্ষের পদক্ষেপ সংক্রান্ত সুপ্রিম কোর্টের (Supreme Court) রায়ের প্রসঙ্গও উল্লেখ করেছেন বিচারপতি মন্থা। যদিও সিবিআই এবং ইডির আধিকারিকদের তলবের ক্ষেত্রে অধ্যক্ষের কোনও এক্তিয়ার রয়েছে কি না, সে বিষয়েও স্পষ্ট কোনও মত জানাননি বিচারপতি মন্থা।

[আরও পড়ুন: বিপন্ন শিশুদের ‘আদর’, ‘সংবাদ প্রতিদিন’-এর উদ্যোগে পুজোয় হাসি ফিরল কচিকাঁচাদের মুখে]

উল্লেখ্য রাজ্যের দুই মন্ত্রীসহ চার হেভিওয়েট নেতার নারদ মামলায় অধ্যক্ষের অনুমতি ছাড়াই চার্জশিট পেশ করেছে দুই তদন্তকারী সংস্থা। বিধানসভার সচিবালয়ের বক্তব্য, এক্ষেত্রে অধ্যক্ষের অনুমতি নেওয়া হয়নি, যা বেআইনি। সে কারণেই ইডি ও সিবিআইকে চিঠি লিখে বিধানসভায় হাজিরা দিতে বলা হয়। এর আগে ২২ সেপ্টেম্বর তাদের ডেকে পাঠানো হয়েছিল তাঁদের। হাজিরা এড়িয়ে উলটে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয় সিবিআই ও ইডি। এরপর আদালতের নির্দেশে ৪ অক্টোবর সিবিআইয়ের প্রতিনিধি দল বিধানসভায় যান। এরপর এই মামলার শুনানির পর ও কোন নির্দেশ এই মামলা নিষ্পত্তি করলেন বিচারপতি রাজাশেখর মন্থা।

Advertisement
Next