Advertisement

‘প্রধানমন্ত্রী বাঙালিদের পছন্দ করেন না’, মোদিকে তোপ বাবুল সুপ্রিয়র

03:08 PM Sep 29, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাজনৈতিক মহলকে তাক লাগিয়ে বিজেপি ছেড়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ‘নয়নের মণি’ বাবুল সুপ্রিয় (Babul Supriyo)। এবার প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধেই তোপ দাগলেন আসানসোলের (Asansol MP) সাংসদ। বললেন, “আমার মনে হয়, প্রধানমন্ত্রী বাঙালিদের পছন্দ করেন না। তাই গত ৭ বছরে বাংলা থেকে একজনও পূর্ণমন্ত্রী হননি।” সদ্য তৃণমূলে যোগ দেওয়া সাংসদের বিরুদ্ধে পালটা তোপ দেগেছে বিজেপিও।

Advertisement

মঙ্গলবারই দিল্লি থেকে কলকাতায় ফিরেছেন সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়। লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লা তাঁকে সময় দিতে না পারায় সাংসদ পদ থেকে ইস্তফা না দিয়েই রাজ্যে ফিরেছেন বাবুল। এর পর বুধবারই সরাসরি প্রধানমন্ত্রীর (PM Narendra Modi) বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন তিনি। রীতিমতো মোদিকে বাঙালি বিদ্বেষী বলে কটাক্ষ করলেন তিনি।

[আরও পড়ুন: বৃষ্টি অব্যাহত রাজ্যে, দুর্যোগ মোকাবিলায় নবান্নে জরুরি বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী-মুখ্যসচিব]

বাবুলের কথায়, “আমার মনে হয়, প্রধানমন্ত্রী বাঙালিদের পছন্দ করেন না। তাই গত ৭ বছরে বাংলা থেকে একজনও পূর্ণমন্ত্রী হননি। ভোটে জিতে আসা বাঙালিদের প্রতি অসামঞ্জস্যপূর্ণ আচরণ করা হচ্ছে।” এদিন আসানসোলের সাংসদের কথায় উঠে এসেছে আরেক বিজেপি সাংসদের কথাও। বর্ধমান-দুর্গাপুরের সাংসদ সুরিন্দর সিং আলুওয়ালিয়াও দলে সম্মান পাচ্ছেন না বলে দাবি করেছেন বাবুল। এদিন তিনি বলেন, “আমার নিজের কথা বলছি না। আলুওয়ালিয়াজিও অনেক প্রবীণ মানুষ। কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে গিয়েছেন। ওঁকেও তো কোনও স্বাধীন মন্ত্রক দেওয়া হয়নি।” তিনি আরও বলেন, “মানুষের জন্য কাজ করতে পারাই আসল। দিদির নেতৃত্বে তা করতে পারলে ভালই হবে।”

তাঁর এহেন মন্তব্যে পালটা প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন রাজ্য বিজেপি নেতা জয়প্রকাশ মজুমদার। তাঁর কথায়,”মন্ত্রিত্ব না পেয়ে তো দল ছেড়েছেন। তখন মত-পথ সব এক ছিল। সবটাই ভাল লাগছিল। এখন তো অন্য কথা বলবেন-ই। উনি আসলে কিছুই জানেন না। দলটাই তৈরি করেছেন শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়। সেই দলে বাঙালি বিদ্বেষ নিয়ে প্রশ্ন তোলা অনুচিত।”

[আরও পড়ুন: করোনার বছরেও বেনজির অর্থনৈতিক সাফল্য, GDP বৃদ্ধির হারে রেকর্ড বাংলার]

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন বাবুল। দলবদল করার পর এতদিন প্রধানমন্ত্রী বা বিজেপি নেতৃত্বের বিরুদ্ধে তাঁকে কোনও কথা বলতে শোনা যায়নি। কিন্তু দিল্লি থেকে ফিরে সেই ‘রীতি’ ভাঙলেন বাবুল। সরাসরি প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন তিনি। এ প্রসঙ্গে বলে রাখা ভাল, বাবুল বরাবরই প্রধানমন্ত্রী ঘনিষ্ঠ হিসেবে পরিচিত। ভোট প্রচারে এসে আসানসোলের সাংসদের হয়ে সওয়াল করে বলেছিলেন, “মুঝে বাবুল চাহিয়ে।” কিন্তু এবার মন্ত্রিসভা রদলবদলের পরই তাল কাটে। পূর্ণ মন্ত্রিত্ব তো দূরে থাক, প্রতিমন্ত্রীর পদ থেকেও তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হয়।

 

Advertisement
Next