FIR খারিজের আরজি নিয়ে এবার কলকাতা হাই কোর্টে রোদ্দুর রায়

05:16 PM Jul 11, 2022 |
Advertisement

গোবিন্দ রায়: ফের চর্চার কেন্দ্রে রোদ্দুর রায়। বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Mamata Banerjee) নিয়ে কুরুচিকর মন্তব্য করায় ইউটিউবারের বিরুদ্ধে কলকাতার একাধিক থানায় অভিযোগ দায়ের হয়। যার জন্য জেলেও থাকতে হয়েছে তাঁকে। এবার সেই FIR খারিজ করার আরজি নিয়ে কলকাতা হাই কোর্টের দ্বারস্থ হলেন রোদ্দুর। চলতি সপ্তাহেই তাঁর মামলার শুনানি হওয়ার কথা।

Advertisement

রোদ্দুর রায়ের আবেদনে নিম্ন আদালতের চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেটকে পার্টি করা হয়েছে। প্রশ্ন তোলা হয়েছে নিম্ন আদালতের একটি নির্দেশনামা নিয়েও। সূত্রের খবর, নিজের মন্তব্যর জন্য প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে বলা হয়েছে রোদ্দুর রায়কে। নির্দেশনামার সেই অংশ নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন এই ইউটিউবার।

[আরও পড়ুন: ‘জানি না কেন এদের বিশেষজ্ঞ বলা হয়’, কোহলির পাশে দাঁড়িয়ে সমালোচকদের একহাত নিলেন রোহিত]

উল্লেখ্য, বিভিন্ন বিষয় নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় লাইভ করে কিংবা ইউটিউব (Youtube) ভিডিও করে বিতর্ক তৈরি করেন রোদ্দুর (Roddur Roy)। সম্প্রতি ফেসবুক লাইভ করেছিলেন তিনি। দেড় ঘণ্টার সেই লাইভে একাধিক বিষয়ে কথা বলেন। নিজস্ব ভঙ্গিতেই আক্রমণ করেন একাধিক বিশিষ্টজনকে। সেই তালিকা থেকে বাদ পড়েননি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও (CM Mamata Banerjee)। এরপরই তাঁর নামে চিৎপুর থানায় অভিযোগ দায়ের হয়। গোয়া থেকে ইউটিউবারকে গ্রেপ্তার করা হয়। তারপর থেকে গরাদের ওপারেই ছিলেন। বারবার আদালতে পেশ করা হলে একটি মামলায় জামিন পেলেও অন্য মামলায় জামিন মঞ্জুর না হওয়ায় জেলবন্দিই ছিলেন তিনি। 

Advertising
Advertising

অবশেষে গত ২৭ জুন জামিনে মুক্ত হন ইউটিউবার। শোনা গিয়েছে, ব্যাঙ্কশাল কোর্টের বিচারপতি নিজের কৃতকর্মের জন্য ভিডিও তৈরি করে ক্ষমা চাইতে বলা হয়েছে রোদ্দুর রায়কে। তাঁর বিরুদ্ধে জাতীয় পতাকা অবমাননার অভিযোগও দায়ের হয়েছিল। সেই মামলাতেই ভিডিও করে ক্ষমা চাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এই নির্দেশের বিরুদ্ধে আদালতে গেলেন ইউটিউবার। 

Advertisement
Next