Advertisement

‘পার্ট টাইম নেতার কাছে জ্ঞান শুনব না’, লখিমপুর কাণ্ডে রাহুলকে তীব্র কটাক্ষ কুণাল ঘোষের

05:11 PM Oct 06, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তৃণমূল সাংসদদের লখিমপুর (Lakhimpur) যাওয়া নিয়ে এরাজ্যের শাসকদলের দিকে পরোক্ষে কটাক্ষের ‘ইট’টি প্রথমে ছুঁড়েছিলেন রাহুল গান্ধীই। রাহুলের ছোঁড়া সেই ইটের জবাব পাটকেল দিয়ে দিল তৃণমূল। প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতিকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করে টুইট করলেন তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক কুণাল ঘোষ। সাফ জানিয়ে দিলেন, রাহুলের (Rahul Gandhi) মতো পার্ট-টাইম রাজনীতিবিদদের কাছে তাঁরা কোনও জ্ঞান শুনবেন না। কারণ, কংগ্রেস যেখানে নিজেদের গড়ে বিজেপিকে হারাতে ব্যর্থ হচ্ছে, সেখানে তৃণমূল বাংলায় বিজেপিকে হারাচ্ছে।

Advertisement

বুধবার লখিমপুরের উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন রাহুল গান্ধী। এর আগে রবিবার ঘটনার রাতেই সেখানে যাওয়ার চেষ্টা করেন প্রিয়াঙ্কা গান্ধী (Priyanka Gandhi)। কিন্তু তাঁকে আটকে দেয় উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। কোনও ওয়ারেন্ট ছাড়াই আটক করে রাখা হয় তাঁকে। আজ শুরুতে রাহুলকেও লখিমপুর যাওয়ার অনুমতি দিতে চায়নি যোগী প্রশাসন। এ প্রসঙ্গে বিজেপিকে আক্রমণ করতে গিয়ে প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি বলেন, “বিজেপি (BJP) সরকার শুধু কংগ্রেসকে লখিমপুর যেতে বাধা দিচ্ছে। সব রাজনৈতিক দলকে আটকানো হচ্ছে না। তৃণমূল (TMC) বা ভীম সেনার মতো দলকে যেতে দেওয়া হচ্ছে।” রাহুলের এই মন্তব্য তৃণমূলের প্রতি শ্লেষ ছিল বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

[আরও পড়ুন: লখিমপুর নিয়ে যোগীকে ফোন মোদির, রাহুল-প্রিয়াঙ্কাকে ঘটনাস্থলে যাওয়ার অনুমতি]

এরপরই কংগ্রেস নেতার বিরুদ্ধে তেড়েফুঁড়ে আসরে নামেন তৃণমূল মুখপাত্র তথা রাজ্য সম্পাদক কুণাল ঘোষ (Kunal Ghosh)। রাহুলকে উদ্দেশ্য করে তাঁর টুইট, “রাহুল গান্ধীর জানা উচিত তৃণমূল সাংসদরা অনেক লড়াইয়ের পর লখিমপুর যেতে পেরেছেন। আগরতলায় শুধু অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Abhishek Banerjee) আটকাতে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।  কংগ্রেস আমেঠির মতো নিজেদের গড়েও হেরো পার্টি। বিজেপিকে বাংলায় হারিয়েছে তৃণমূলই।”

[আরও পড়ুন: ডিভিসির ছাড়া জলে রাজ্যে বন্যা পরিস্থিতি, নালিশ জানিয়ে মোদিকে চিঠি ‘ক্ষুব্ধ’ মুখ্যমন্ত্রীর]

কুণালের বক্তব্য, “এভাবে তথ্য বিকৃত করে মানুষকে বিভ্রান্ত করা উচিত নয় রাহুলের। রাহুলের মতো পার্ট টাইম নেতা, যিনি বিজেপিকে হারাতে পুরোপুরি ব্যর্থ, তাঁর কাছে কোনও রাজনৈতিক জ্ঞানহীন ভাষণ তৃণমূল শুনবে না। আমরাও কংগ্রেসকে শ্রদ্ধা করি। আমরাও বিজেপি বিরোধী ঐক্যে বিশ্বাস করি। তাই আমরা আজ রাস্তায়। শুধু টুইটারে আটকে নেই।”

Advertisement
Next