বিবেকানন্দের জন্মদিনেও ‘রাজনীতি’? শুভেন্দুর মিছিলের পালটা কর্মসূচি ঘোষণা অভিষেকের

01:21 PM Jan 11, 2021 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: স্বামী বিবেকানন্দের (Swami Vivekananda) জন্মদিনে ‘বিবেকের ডাকে’ কর্মসূচির ঘোষণা আগেই করেছে বিজেপি। বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারীর (Suvendu Adhikary) নেতৃত্বে ১২ জানুয়ারি শ্যামবাজার থেকে সিমলা স্ট্রিট অর্থাৎ বিবেকানন্দের বাড়ি পর্যন্ত পদযাত্রা হবে। দেশের যুব সম্প্রদায়ের আইকন স্বামী বিবেকানন্দের জন্মজয়ন্তী উদযাপনে তৃণমূল কংগ্রেসও পালটা সামনে আনল দলের যুব সংগঠনকে। ওই দিন উত্তর কলকাতায় শুভেন্দু যখন মিছিল করবেন, সেসময় দক্ষিণ কলকাতায় বিবেক জয়ন্তী পালিত হবে তৃণমূল যুব সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Abhishek Banerjee) নেতৃত্বে। নতুন করে এই কর্মসূচি গ্রহণ করেছে রাজ্যের শাসকদল।

Advertisement

তৃণমূল সূত্রে খবর, মঙ্গলবার বিকেলে গোলপার্কের বিবেকানন্দ মূর্তিতে মাল্যদান করে জন্মদিন উদযাপনের সূচনা করবেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। গোলপার্ক থেকে হাজরা পর্যন্ত মিছিলের নেতৃত্বে থাকবেন তৃণমূলের যুব সভাপতি। অন্যদিকে, প্রায় একই সময়ে উত্তর কলকাতায় বিজেপির কর্মসূচি – ‘বিবেকের ডাকে’। শ্যামবাজার থেকে সিমলা স্ট্রিট পর্যন্ত মিছিলে থাকবেন শুভেন্দু অধিকারী, মুকুল রায়, কৈলাস বিজয়বর্গীয়রা। দুই মিছিলের মধ্যে কলেবরে কোনটি বেশি বড় হয় এবং কোনটি অধিক জনবহুল হয়, সেদিকে অবশ্যই নজর থাকবে সকলের।

[আরও পড়ুন: রাতে জাতীয় সড়কে দুষ্কৃতী দৌরাত্ম্য, ছিনতাইয়ে বাধা দিয়ে হাওড়ায় গুলিবিদ্ধ ইঞ্জিনিয়ার]

স্বামী বিবেকানন্দ, নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর মতো মনীষীদের জন্মদিন উদযাপনে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের বিভিন্ন কর্মসূচি থাকে। কিন্তু একুশের ভোটের আগে বাংলার চিরস্মরণীয় এই ব্যক্তিত্বরাই যেন হয়ে উঠছেন রাজনৈতিক লড়াইয়ের একেকটা অংশ। চলতি বছর ২৩ জানুয়ারি, নেতাজির ১২৫ তম জন্মদিন ভালভাবে পালন করতে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তৈরি করেছেন নেতাজি কমিটি, যার শীর্ষে রয়েছেন আজকের দিনের বিশিষ্ট ব্যক্তিরা। গত সপ্তাহে কমিটির প্রথম বৈঠক থেকে একগুচ্ছ পরিকল্পনার কথা ঘোষণা করেছেন তিনি।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: সারমেয়দের ভালবেসে মেয়াদের ১০ বছর আগেই চাকরি ছাড়ছেন রেলকর্মী]

তার ঠিক পরই সকলকে নিয়ে বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও। নিজেকে শীর্ষে রেখে একটি কমিটি তিনি তৈরি করে ফেলেছেন। সেই কমিটিতে তিনি রেখেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-সহ বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের। ২৩ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী কলকাতায় এসে নেতাজি জয়ন্তী পালন করতে চান। এই বিশেষ দিন ঘিরে দুই রাজনৈতিক দলের কর্মসূচি, পালটা কর্মসূচি দেখে রাজনৈতিক মহলেরই একাংশের মত, এসবের পিছনে নিশ্চিত রাজনৈতিক উদ্দেশ্য রয়েছে, নিছকই মনীষীদের প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন নয়। বিবেকানন্দের জন্মদিনে বিজেপির ঘোষিত কর্মসূচির পর তৃণমূলের নতুন পরিকল্পনা প্রকাশেও তা বেশ স্পষ্ট হয়ে গেল। সুতরাং, একুশের লড়াইয়ে দুই যুযুধান শিবিরের হাতিয়ার হয়ে উঠছে মনীষীদের নিয়ে তাদের ভূমিকা।

Advertisement
Next