ব্যর্থ প্রেমের প্রতিশোধ, তিন বছর পর তরুণীর বাড়িতে লুটের চেষ্টায় গ্রেপ্তার ২

10:43 PM Feb 25, 2022 |
Advertisement

অর্ণব আইচ: ব্যর্থ প্রেমের প্রতিশোধ। তিন বছর পর তরুণীর বাড়িতে ঢুকে রিভলভার দেখিয়ে লুটপাটের (Loot) চেষ্টা। কিন্তু বান্ধবীর মাকে দেখেই দৌড়ে পালাতে গিয়ে মুখ থেকে খুলে গেল মাস্ক। তাই চেহারার ভোল পালটেও লাভ হল না সৈয়দ আবুল হুসেনের। সঙ্গী মহম্মদ আরবাজের সঙ্গে আবুলকে গ্রেপ্তার করল মধ্য কলকাতার জোড়াসাঁকো থানা (Jorasanko PS)। 

Advertisement

পুলিশ জানিয়েছে, জোড়াসাঁকোর রতু সরকার লেনে ঘটেছে এই ঘটনাটি। এখানেই একটি বাড়িতে থাকেন প্রৌঢ়া ও তাঁর মেয়ে। ওই তরুণী বছর কয়েক আগে কলেজ যাওয়ার সময় মূল অভিযুক্ত আবুল রাস্তায় তাঁর পিছু নিত। প্রথমে বিরক্ত হতেন তরুণী। শেষ পর্যন্ত একদিন যুবক তাঁকে প্রেম ও বিয়ের প্রস্তাব দেয়। যদিও তাকে প্রত্যাখান করে দেন তরুণী। তিনি যুবককে এড়িয়ে চলতে শুরু করেন। প্রেমে ব্যর্থ হয়ে যুবক ওমানে (Oman) চলে যায়। সেখানে বছর তিনেক ধরে কাজও করে।

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1630720090-3');});

[আরও পড়ুন: ‘তোমাকে বিছানায় চাই’, ইউক্রেনে পা রেখেই সুন্দরীদের কুপ্রস্তাব রুশ সেনার!]

সম্প্রতি সে ফের কলকাতায় (Kolkata)ফিরে আসে। গত বুধবার রাতে হঠাৎই সঙ্গী আরবাজকে সঙ্গে নিয়ে ওই তরুণীর বাড়িতে ঢুকে পড়ে আরবাজ। দু’জনের মুখে ছিল মাস্ক। আবছা অন্ধকারে তরুণী ওই ‘ব্যর্থ প্রেমিক’কে প্রথমে চিনতেও পারেননি। সামনের ঘরে তরুণীকে একা পেয়ে তাঁকে ওই দু’জন পিস্তল দেখায়। গলার স্বর পাল্টে আবুল তরুণীকে বলে, তাঁর কাছে যা টাকা ও গয়না আছে, তা দিয়ে দিতে। চোখের সামনে দুই ‘ডাকাত’কে দেখে ঘাবড়ে যান তরুণী। তিনি যাতে বাইরে বের হতে না পারেন, তাই তাঁর দরজাও আটকে দেয় তারা।

Advertising
Advertising

শেষপর্যন্ত রুখে দাঁড়ান তরুণী। নিজেকে বাঁচাতে প্রাণপণে চিৎকার করে ওঠেন তিনি। মেয়ের চিৎকার শুনেই পাশের ঘর থেকে দৌড়ে চলে আসেন তরুণীর মা। তিনি চোখের সামনে আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে দুই যুবককে দেখে প্রথমে চমকে উঠে চেঁচিয়ে ওঠেন। এর পর সাহসে ভর করেই তাড়া করেন দু’জনকে। তরুণীর মায়ের তাড়া খেয়ে আর দাঁড়ানোর সাহস কুলোয়নি ‘ব্যর্থ প্রেমিক’ আবুল ও তার সঙ্গী আরবাজের। পালানোর সময়ই মুখ থেকে মাস্ক খুলে যায় আবুলের। তিন বছরে চেহারা কিছুটা পালটালেও মুখ থেকে মাস্ক (Mask)খসে পড়া মাত্রই আবুলকে শনাক্ত করে ফেলেন তরুণী।

[আরও পড়ুন: ‘ক্ষমতা দখল করুন’, ইউক্রেনীয় সেনাকে ‘সামরিক অভ্যুত্থানে’র উসকানি পুতিনের]

তিনি আবুল ও তাঁর সঙ্গীর বিরুদ্ধে জোড়াসাঁকো থানায় লুটপাটের চেষ্টা ও অস্ত্র নিয়ে ভয় দেখানোর অভিযোগ দায়ের করেন। তারই ভিত্তিতে পুলিশ তদন্ত করে জোড়াসাঁকো এলাকা থেকেই প্রথমে আবুলকে গ্রেপ্তার করেন। তাকে জেরা করে সন্ধান মেলে তার সঙ্গী আরবাজের। শুক্রবার দু’জনকে ব্যাঙ্কশাল আদালতে তোলা হলে তাদের ৭ মার্চ পর্যন্ত পুলিশ হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেন বিচারক। ধৃতদের জেরা করে তারা কোথা থেকে আগ্নেয়াস্ত্রটি পেল, তা জানার চেষ্টা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

Advertisement
Next