প্রাকৃতিক AC! তীব্র গরমে যাত্রীদের স্বস্তি দিতে অটোর মাথায় বাগান করলেন চালক

06:39 PM May 03, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একদিকে মাত্রা ছাড়া দূষণ, অন্য দিকে কাঠফাটা গরম। গ্রীষ্মের দিল্লি যেন বিভীষিকা। গড় তাপমাত্রা থাকছে ৪৫ ডিগ্রির আশাপাশে। তার মধ্যেই মরুদ্যানের মতো দিল্লির (Delhi) পথে আচমকা দেখা মেলে ‘গাছ অটো’র। যে অটো (Auto) পেলে অন্য যানবাহনে ওঠার কথা ভাবেন না যাত্রীরা। এমনকী প্রাকৃতিক এসির স্বস্তি পেয়ে বাড়তি টাকা উপহার দেন চালককে। ব্যাপারটা কী?

Advertisement

আশ্চর্য কাণ্ড করে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন রাজধানীর জনৈক অটো চালক মহেন্দ্র কুমার (Mahendra Kumar)। তিনি তাঁর অটোর ছাদে সবুজ বাগান করেছেন। সেই বাগানে রয়েছে ২০টি বেশি জাতের ফসল। আরও রয়েছে বেশ কিছু ফুলের গাছ। উদ্দেশ্য, পিচ গলা গরমে তাঁর অটোতে তুলনামূলক আরামদায়ক পরিবেশ তৈরি করা। তাতেই মজেছেন রাজধানীর যাত্রীরা। সকলেই ‘গাছ অটো’তে চড়তে আগ্রহী। অনেকে না চড়লেও মহেন্দ্র ওই অটোর সঙ্গে একটা সেলফি তুলে নিতে চান।

[আরও পড়ুন: ১ টাকা দিলে মানুষ পেত ১৫ পয়সা! হাতিয়ার রাজীব গান্ধীর মন্তব্য, জার্মানি থেকেও কংগ্রেসকে তোপ মোদির]

মহেন্দ্র বলেন, “এটা আমার গত দু’বছরের ভাবনা ছিল। ভেবেছিলাম অটোর ছাদে কিছু গাছ লাগালে গাড়ি যেমন ঠান্ডা থাকবে, যাত্রীরাও খানিক স্বস্তি পাবেন।” সেই কাজ বাস্তবে করে ফেলে সকলকে চমকে দিয়েছেন অটো চালক।” বলেন, “এটা আসলে প্রাকৃতিক এসি। অনেক যাত্রী এমন পরিষেবা পেয়ে অতিরিক্ত দশ-বিশ টাকা দিয়ে যান।” কিন্ত অটোর মাথায় কীভাবে বাগান গড়লেন?

Advertising
Advertising

মহেন্দ্র জানিয়েছেন, প্রথমে অটোর ছাদে একটি মাদুর বিছানো হয়। তারপর মোটা বস্তা পেতে তার উপর মাটি ছড়ানো হয়েছে। এই মাটিতেই ভেসজ, ফুলের গাছ, এমনকী ঘাসও রোপণ করেছেন তিনি। যা দিনে দিনে ছোটখাটো বাগানের আকার ধারণ করেছে।

[আরও পড়ুন: একশোয় ৫৫৫! মার্কশিট পেয়ে হতবাক বিহারের স্নাতক পড়ুয়া! বিতর্ক তুঙ্গে]D

এদিকে খুব শীঘ্রই উত্তর ভারতের তাপমাত্রা ৫০ ডিগ্রি পেরিয়ে যাবে, এমন ভবিষ‌্যদ্বাণী করেছে মৌসম ভবন। এইসঙ্গে জানা গিয়েছে, চলতি বছরের এপ্রিলের গড় তাপমাত্রা গত ১২২ বছরের তাপমাত্রার ইতিহাসে রেকর্ড গড়েছে। তার মধ্যে দিল্লির অটো ড্রাইভার মহেন্দ্রর কুমারের এই কাজ প্রশংসা পাচ্ছে সকলের। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে মহেন্দ্র ‘গাছ অটো’র ছবি, ভিডিও। সকলেই কুর্নিশ জানাচ্ছেন চলন্ত বাগনের মালিককে। 

Advertisement
Next