সফটওয়্যার সংস্থার চাকরি ছেড়ে খুলেছেন গাধার খামার! লাখ টাকা আয় তরুণের

04:19 PM Jun 13, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বোকার সমর্থক শব্দ ‘গাধা’! বুদ্ধিহীন অকর্মার ঢেঁকি এক প্রাণী, এমনটাই সাধারণ ধারণা। সেই গাধার দুধ যে বহুমূল্য। তার ঔষধি গুণ রয়েছে, আন্তর্জাতিক বাজারে বিরাট চাহিদা, তা অনেকেরই হয়তো অজানা। তবে কর্ণাটকের (Karnataka) বাসিন্দা শ্রীনিবাস গৌড়া (Srinivas Gowda) অন্যধারার মানুষ। তিনি গাধাকে কেবল মালবহনকরী সামান্য প্রাণী ভাবেননি। ফলে ঐতিহাসিক কাণ্ড করে ফেলেছেন। ভারতে দ্বিতীয় গাধার খামার (Donkey Farm) তৈরি করে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন। সফটওয়্যার সংস্থার ‘ভাল’ চাকরি ছেড়ে গাধার খামার করে লাখ লাখ টাকা উপার্জন করছেন।

Advertisement

বছর বিয়াল্লিশের শ্রীনিবাস খামারটি তৈরি করেছেন রাজ্যের দক্ষিণ কান্নাড়া জেলার ইরা গ্রামে। গত ৮ জুন আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হয় ওই খামারের। আর এই কাজ করতেই স্নাতক শ্রীনিবাস সফটওয়্যার সংস্থার ভাল চাকরি ছেড়েছেন বলে জানা গিয়েছে। তবে ২০২০ সালেই ২.৩ একর জমিতে বিভিন্ন ধরনের পশুপালন, পশুচিকিৎসা পরিষেবা, প্রশিক্ষণ এবং পশুখাদ্য উন্নয়ন কেন্দ্র গড়ে তুলেছিলেন তিনি। কিন্তু হঠাৎ গাধা প্রতিপালনে উৎসাহ পেলেন কোথা থেকে?

[আরও পড়ুন: ‘বুলডোজার দিয়ে বাড়ি ভাঙা বেআইনি’, যোগী সরকারের ভূমিকায় সরব প্রাক্তন বিচারপতি]

শ্রীনিবাস জানিয়েছেন, দেশে গাধার দুর্দশা দেখেই এই সিদ্ধান্ত নেন তিনি। তার কথায়, এখানে প্রাণীটির সঠিক মূল্যায়ণ হয় না কখনওই। ফলে ছাগল, মুরগি প্রতিপালনের পাশাপাশি ২০টি গাধা নিয়ে খামার শুরু করে দেন তিনি। তবে গাধার খামারের কথা জেনে অনেকেই তাঁকে কটাক্ষ করেছিলেন। সকলেই বলছিলেন মাথা খারাপ হয়েছে তরুণের।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: কর সংক্রান্ত সচেতনতায় উদ্যোগ, শিশুদের জন্য গেমস-পাজল-কমিকস আনছে অর্থমন্ত্রক]

শ্রীনিবাস বলেন, “ওরা জানেন না। গাধার দুধের দারুণ স্বাদ। তা অত্যন্ত দামি। এছাড়াও বিশেষ ঔষধি মূল্য রয়েছে এই প্রাণীটির দুধের। এমনকী সৌন্দর্য চর্চায় বিভিন্ন প্রসাধনী তৈরিতে গাধার দুধ ব্যবহার করা হয়।” ইতিমধ্যে প্যাকেট করে গাধার দুধ বিক্রি করা শুরু করে দিয়েছেন তিনি। ৩০ মিলিলিটার গাধার দুধের একটি প্যাকেটের দাম ১৫০ টাকা। চাহিদা অনুযায়ী শ্রীনিবাস যা সরবরাহ করছেন একাধিক বড় দোকান, শপিং মল ও সুপার মার্কেটগুলিতে। শ্রীনিবাসের দাবি, বর্তমানে ১৭ লক্ষ টাকার গাধার দুধের অর্ডার রয়েছে তাঁর হাতে।

Advertisement
Next