Advertisement

পেতে চান ভাল রিটার্ন? স্টকে বিনিয়োগের সময় মাথায় রাখুন এই বিষয়গুলি

03:23 PM Sep 23, 2021 |

জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে নির্বাচন তথা ‘সিলেকশন’ শব্দটি একটা বড় ভূমিকা পালন করে। স্কুল-কলেজ থেকে শুরু করে কেরিয়ার-পেশা এমনকী জীবনসঙ্গীও প্রত্যেকে ‘বেছে’ নেন। তাই তো? তাহলে লগ্নির এই বিশাল দুনিয়াও এর বাইরে থাকে কীভাবে? এখানেও সাফল্যের স্বাদ পেতে গেলে, স্টক ‘সিলেকশন’ করে নিতে হয়, রীতিমতো জহুরির চোখ দিয়ে। তা কোন স্টক হালে এগিয়ে রয়েছে-আগামীতে থাকবেও আর কোনটিই বা রয়েছে পিছিয়ে, তারই হদিশ দিলেন সোমকান্তি সরকার

 

Advertisement

প্রাসঙ্গিকতার ছোঁয়া বা সমসাময়িক কোনও বিশ্বাস অথবা ধারণা আমরা সর্বদাই খুঁজি। সভ‌্যতার ইতিহাস সেই সাক্ষ‌্য বহন করে, লগ্নির ক্ষেত্রেও এর ব‌্যতিক্রম নেই। সঞ্চয়ের বিস্তৃত গণ্ডির ভিতর বারেবারেই তা লক্ষ‌্য করা গিয়েছে। আজ যে বিষয়টি নিয়ে লিখতে বসেছি, স্টক সিলেকশন, সেখানেও ব‌্যাপারটি বিদ‌্যমান।

‘দ্রুত রিটার্নই চাই’, এই তাড়নায় যাঁরা লগ্নি করেন, বা ‘ঢিমে তালে কিন্তু ধারাবাহিক ডিভিডেন্ডই দরকার’, এই ইচ্ছা যাঁরা প্রকাশ করেন, তাঁরা সকলেই এক বাক্যে স্বীকার করেন যে, নতুন ধাঁচের স্টক হয়তো বহুলাংশে ভাল, পোর্টফোলিওর জন‌্য উপযোগী। আজ স্টক সিলেকশনের ধরনধারণে পরিবর্তন এসেছে। বেশ কিছু নতুন ব‌্যবসায়িক ক্ষেত্র অগ্রণী ভূমিকা নিয়েছে, আবার অন‌্য কিছু ক্ষেত্রে পিছিয়ে পড়ার লক্ষণ‌ও আছে। যেমন ধরুন, ফসিল ফুয়েল। এনার্জির কথা এলে কিন্তু নব‌্য বিনিয়োগকারী ফসিল ফুয়েল ছাড়াও আজ অন‌্য কিছু বোঝেন- নন-কনভেনশনাল এনার্জি নিয়ে চিন্তাভাবনা পৃথিবীময় চলছে। অথবা ধরুন আরও একটি বিস্তৃত ক্ষেত্র-লাইফস্টাইল। এটি আজ আর কেবল জামাকাপড় বা প্রসাধনী পণ‌্য বোঝায় না। সঙ্গে যে নামগুলি মনে পড়ে সেগুলির মধ্যে আছে নেটফ্লিক্স বা জোম্যাটো।

[আরও পড়ুন: ছোট প্রিমিয়াম, বড় ভরসা, জেনে নিন পোস্টাল আমানত প্রকল্পে বিনিয়োগ করার খুঁটিনাটি]

আগামী কয়েক বছরে কী ধরনের ব‌্যবসা আমাদের নজরে আসতে পারে তা নিয়ে বেশ কিছু দিন ধরে ভেবেছি। পাঁচটির কথা বিশেষভাবে উল্লেখ করতে চাই :
১) জল-পরিশোধন
২) ডিজিটাল সার্ভিস/পরিষেবা
৩) খাদ‌্যাভাস ও আনুসঙ্গিক ব‌্যবসা
৪) অ‌্যাপ নির্ভর ক্ষেত্র
৫) বিকল্প শক্তি

জল পরিশোধন: জলই জীবন, কিন্তু টাটকা জলের উৎস কমে আসছে। এবং অপচয়ও সাংঘাতিক। বুঝতে কোনও অসুবিধা নেই যে, বিশ্বের অন‌্যতম লাভজনক ব‌্যবসা হয়ে উঠতে চলেছে জল পরিশোধন এবং আনুসঙ্গিক ক্ষেত্রগুলি। দুটি কোম্পানির কথা নির্দিষ্টভাবে বলছি, পড়ুন।

প্রথমটি Thermax, যেটি নানা ইঞ্জিনিয়ারিং ব‌্যবসার সঙ্গে Water Waste Management- এও নাম করেছে। এরই সঙ্গে বলি Va Tech Wabag-এর কথা, অল্পদিনেই নাম করেছে। আসুন, একটু তুলনামূলক চর্চায় আসি। নিচের চার্ট দেখুন।

ডিজিটাল পরিষেবা: বছর দশেক আগেও একটি সামান‌্য ট্রেন জার্নির জন‌্য কত অসুবিধাই না সহ‌্য করতে হত! লাইনে দাঁড়িয়ে টিকিট কেনা থেকে যাত্রার মাঝপথে খাবারের অন্বেষণ, সবই সাধারণ যাত্রীর জন‌্য বিশ্রী অভিজ্ঞতা হয়ে পড়ত। আজ এর প্রায় পুরোটাই সামলে নেয় Indian Railway Catering & Tourism Corporation (IRCTC)। আবার ধরুন পাসপোর্ট করানো। ভাবলেই বিদেশে যাওয়ার ইচ্ছা নষ্ট হয়ে যেত। কিন্তু আজ তার সমস্তটাই TCS-এর দৌলতে সুসম্পন্ন হয়। নিচের চার্ট লক্ষ‌্য করুন।

খাদ‌্যাভ‌্যাস: আজ পিৎজা-বার্গার অনেকেরই জীবনের অবিচ্ছেদ‌্য অংশ, তাই খাদ‌্যাভ‌্যাসের বদলের কথা বললে সবসময় কিন্তু সাবেকি চাল-ডাল-আটার কথা মনে আসে না। তার বদলে Jubilant Food বা Burger King-এর কথা ভাবতে বসি। ফের চার্ট দিয়ে আর দুটির তুলনায় যাচ্ছি না, তার বদলে কয়েকটি পয়েন্ট লিখছি।

Jubilant Food: ২০১০ সালে-তে লিস্টিং হওয়া শেয়ার আজ ৪,০৫৭/- টাকা। বিদেশি লগ্নিকারীগণ, যাদের ফরেন ইনস্টিটিউশনাল ইনভেস্টার বলা হয়, তারা লাগাতার তাদের হোল্ডিং বৃদ্ধি করে চলেছে। সমগ্র ভারতে ছড়িয়ে রয়েছে কোম্পানিটির নেটওয়ার্ক।

Burger King: ২০২০ সালে লিস্টিং হওয়া শেয়ার আজ ১৫৮/-টাকায় বিকোচ্ছে। বুক ভ‌্যালু পার শেয়ার বেশ ভালই বলতে হবে। হয়তো আগামিদিনে এই কোম্পানিটির ভবিষ‌্যত উজ্জ্বলতর হবে, কে বলতে পারে!

অ‌্যাপ-নির্ভর জীবনশৈলী: অন্ন-বস্ত্র-বাসস্থান তো হল, জীবনের বহু ব‌্যবহারিক দিক আজ সহজতর হয়েছে অ‌্যাপ দিয়ে কাজকর্ম সারা যাচ্ছে বলে। খাবার অানাবেন? নির্দিষ্ট অ‌্যাপ ডাউনলোড করা আছে নিশ্চয়ই। অন‌্য শহরে বয়স্ক বাবা-মাকে ওষুধ পাঠাবেন? পছন্দের অ‌্যাপ ব‌্যবহার করে ফেলুন। অসুখ বিসুখে পেশাদার কোনও বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নেবেন? ডাক্তারকে ‘কনসাল্ট’ করুন অ‌্যাপ দিয়েই। এখানেই বলে রাখি Apollo Hospital Enterprise-এর কথা, ভারত সহ বিভিন্ন দেশে যেটির নেটওয়ার্ক চালু। হসপিটাল সার্ভিস থেকে ওষুধের দোকানের চেন, অ‌্যাপোলো আজ একাধিক ব‌্যবসায় জড়িত। অ‌্যাপের মাধ‌্যমে তো অনেক কাজই এখানে করা সম্ভবপর। Zomato-র কথা আজ আর বেশি না-ই বা বললাম। নতুন ইস্যুর দৌলতে মার্কেটে এখনও বড় খবর হয়ে রয়েছে এই অ‌্যাপ-ভিত্তিক ব‌্যবসাটি। ফুড ডেলিভারি, বা রেস্তরাঁ বুকিং-এর জগতের প্রায় একচেটিয়া ব‌্যবসা এই কোম্পানির। ৩০ মিলিয়নের বেশি অ‌্যাক্টিভ ইউজার রয়েছে, কম কথা নয় বটে।

বিকল্প শক্তি: সৌর ও বায়ু শক্তির কথা বারেবারেই উঠে আসে। ভারতীয় মার্কেটে পুরনো এবং নতুন এনার্জি কোম্পানি অনেকগুলি আছে, মোটামুটিভাবে পরিচিত নাম বেশ কয়েকটি। কনভেনশানাল এনার্জির দিন হয়তো সত্যিই শেষ, এখন কম খরচে নতুন শক্তির দিকে আমরা ব‌্যাপকভাবে ঝুঁকছি। BHEL, NTPC, Tata Power-জাতীয় পুরোনো সংস্থাগুলিও বিকল্প শক্তি তৈরির কথা ভাবছে, পরিকল্পনা করছে। অফুরান সৌরশক্তি ভারতে তৈরি করা সম্ভব, বিশেষজ্ঞরা বলেই থাকেন। বায়ু শক্তির ক্ষেত্রেও আমরা অনেক এগিয়ে যেতে পারব, এ আশাও করা যায়। ভবিষ‌্যতে এই দুটি ক্ষেত্রই আমাদের দেশে নতুন আলোর দিশা দেখাবে।

(লেখক লগ্নি বিশেষজ্ঞ)

[আরও পড়ুন: অল্প বিনিয়োগে ভাল রিটার্ন পেতে চান? বিনিয়োগ করুন ইনডেক্স ফান্ড-এ]

Advertisement
Next