IPL 14: দুই হারেই অশান্তি নাইট শিবিরে! বরুণের স্পেল নিয়ে দুই মেরুতে কোচ-অধিনায়ক

12:34 PM Apr 19, 2021 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রথম জন বলছেন, তাঁর সিদ্ধান্ত ঠিকই ছিল। পাওয়ার প্লে-তে বরুণ চক্রবর্তী (Varun Chakravorty) এক ওভারে দু’উইকেট নেওয়ার পর তার পরের ওভার তাঁকে না দেওয়ার মধ্যে ভুল কিছু নেই। কারণ, শুধুমাত্র গ্লেন ম্যাক্সওয়েল নিয়ে ভাবলে চলত না। ভাবতে হত, এবি ডি’ভিলিয়ার্সকে নিয়েও। যিনি নামতেন পরের দিকে। তাঁর জন্য বরুণের দু’একটা ওভার রাখতে হত। দ্বিতীয় জন বলছেন, ভুল হয়েছে। পরে এবি ডি’ভিলিয়ার্স নামতেন ঠিকই। কিন্তু তখন বরুণকে আরও একটা ওভার করালে খেলা কেকেআরের দিকে পুরোপুরি চলে আসত না কে বলতে পারে?এঁরা কে? প্রথম জন, ইয়ন মর্গ্যান। নাইট অধিনায়ক। দ্বিতীয় জন, ব্রেন্ডন ম্যাকালাম। নাইট কোচ! যাঁরা এই মুহূর্তে বরুণের ওভার নিয়ে দুই মেরুতে।

Advertisement

আরসিবি (RCB) ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে বিরাট কোহলি এবং রজত পতিদারকে আউট করে দেন বরুণ। কিন্তু তার পরের ওভারে তাঁকে না এনে শাকিব আল হাসানকে (Shakib Al Hasan) নিয়ে আসেন মর্গ্যান। যা নিয়ে সমালোচনার ঝড় চলছে। কারণ তার পর আরসিবি তোলে ২০৪, এবং হারতে হয় কেকেআরকে। “আমার সিদ্ধান্তে ভুল কিছু নেই। আরসিবিতে গ্লেন ম্যাক্সওয়েলই একমাত্র বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান নয়। আমাকে এবি ডে’ভিলিয়ার্সের জন্যও বরুণের একটা-দু’টো ওভার রাখতে হত। আরসিবির ব্যাটিং গভীরতা কিন্তু বেশ ভাল। তাই একজনকে নিয়ে প্ল্যান তৈরি করলে চলে না,” খেলা শেষে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে এসে বলে দেন মর্গ্যান (Eoin Morgan)। কিন্তু ম্যাচ শেষে সাংবাদিক সম্মেলনে এসে কোচ ব্রেন্ডন ম্যাকালাম বলে দেন, “এখন মনে হচ্ছে, বরুণকে সরানোটা ভুলই হয়েছে। এবি আসত ঠিকই পরে। কিন্তু তখন বরুণকে দিয়েই করালেই ভাল হত। প্ল্যানটা পুরো ব্যাকফায়ার করে গেল।” পাশাপাশি নাইট কোচ বলে দেন, সিএসকে-র বিরুদ্ধে আগামী ম্যাচে টিমে পরিবর্তন। যা খবর, তাতে সাকিব আর হরভজন সিং, দু’জনেই বাদ পড়তে পারেন।

[আরও পড়ুন: ‘এত জঘন্য অধিনায়কত্ব কখনও দেখিনি,’ কেকেআরের হারের পর মর্গ্যানকে বিঁধলেন গম্ভীর]

এদিকে, টিমকে ম্যাচ জিতিয়ে উঠে এবি ডি’ভিলিয়ার্স ঘোষণা করে দিলেন, তিনি ভারতের মাটিতে আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলতে চান। ২০১৮ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছিলেন এবি। কিন্তু তার এক বছরের মধ্যে ইংল্যান্ডে ওয়ান ডে বিশ্বকাপের আগে অবসর ভেঙে ফেরার ইচ্ছেপ্রকাশ করেন দক্ষিণ আফ্রিকার কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান। কিন্তু তখন ‘দেরি’ হওয়ার অজুহাতে এবিকে টিমে নেয়নি দক্ষিণ আফ্রিকা। পরিণাম– বিশ্বকাপে শোচনীয় পারফরম্যান্স। গত বছরও এবি দেশের হয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলার ইচ্ছে দেখিয়েছিলেন। গত বছরও এবি দেশের হয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলার ইচ্ছে দেখিয়েছিলেন। কিন্তু করোনার কারণে বিশ্বকাপ পিছিয়ে যায় এক বছর। এ বছর শেষের দিকে ভারতে তা হওয়ার কথা। এবং তার আগে ডে’ভিলিয়ার্স বলে দিলেন, টিম ম্যানেজমেন্ট যদি রাজি থাকে, তা হলে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ তিনি খেলতেই পারেন। অবসর ভেঙে ফিরে আসতেই পারেন।

Advertising
Advertising

Advertisement
Next