Advertisement

Taliban Terror: কাবুল বিমানবন্দরের কাছে তালিবানদের কবজায় বহু ভারতীয়-সহ ১৫০ জন

02:18 PM Aug 21, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কাবুল (Kabul) বিমানবন্দরের বাইরে তালিবানদের (Taliban) হাতে অপহৃত ভারতীয়রা (Indian)। ভারতীয় ও অন্যান্য মিলিয়ে প্রায় ১৫০ জনকে অপহরণ করা হয়। স্থানীয় সংবাদমাধ্যম সূত্রে এমনটাই জানা গিয়েছে। অপহৃতদের মধ্যে ছিলেন শিখ আফগানরাও। পরে অবশ্য অপহৃতদের ছেড়ে দেয় তালিবান জঙ্গিরা। বিদেশমন্ত্রক এখনই এই নিয়ে কোনও মন্তব্য না করতে চাইলেও তাদের তরফে পুরো বিষয়টি সম্পর্কে খোঁজখবর করা হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে। 

Advertisement

প্রথমে তালিবান মুখপাত্রের তরফে দাবি করা হয়, এই ধরনের কোনও অপহরণ তারা করেনি। বিমানবন্দরের অন্য একটি পথ দিয়ে তাঁদের বিমানবন্দরের অন্যত্র ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছে। গত রবিবার তালিবান কাবুলের দখল নেওয়ার পর থেকেই পরিষ্কার হয়ে যায় আফগানিস্তান (Afghanistan) আবারও তালিবানের কবজায়। এরপর থেকেই আতঙ্কিত হয়ে বহু মানুষ দেশ ছাড়তে বিমানবন্দরে ভিড় করেছেন। শনিবারই আফগানিস্তানে আটক ৮৫ জনেরও বেশি ভারতীয়কে তাজাকিস্তানে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সেখান থেকে তাঁদের দেশে ফেরানো হচ্ছে। আরও একটি বিমানও তৈরি রাখা হয়েছে বাকি ভারতীয়দের ফেরানোর জন্য। এই পরিস্থিতিতে ঘটল অপহরণের ঘটনা। 

[আরও পড়ুন: Taliban Terror: দরজায় তালিবান, বাথরুমে গাদাগাদি করে লুকিয়ে সবাই! বাড়ি বাড়ি তল্লাশি জঙ্গিদের়়]

উল্লেখ্য, ভারত ইতিমধ্যেই কাবুলের ভারতীয় দূতাবাসের সমস্ত কর্মী ও সদস্যকে দেশে ফিরিয়ে আনতে পারলেও এখনও আফগানিস্তানের নানা প্রান্তে অন্তত ১ হাজার ভারতীয় রয়ে গিয়েছেন। তাঁদেরই যত দ্রুত সম্ভব সেখান থেকে বের করে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক জানিয়েছে, ফেরানোর কাজে বড় বাধা হয়ে দাঁড়াচ্ছে আফগানিস্তানে থাকা ভারতীয়দের অনেকেরই দূতাবাসে নিজেদের নাম নথিভুক্ত না করানো।

কাবুলের এক গুরুদ্বারে আশ্রয় নিয়েছেন অন্তত ২০০ শিখ ও হিন্দু। গত বুধবার এক তালিবান মুখপাত্র একটি ভিডিও প্রকাশ করে। তাতে দেখা গিয়েছে, গুরুদ্বারের প্রধান জানাচ্ছেন, তালিবানের তরফে নিরাপত্তার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে। এদিকে দিল্লির কাছেও তালিবান বার্তা পাঠিয়েছে, আফগানিস্তানে থাকা ভারতীয়রা যেন নিরাপত্তা নিয়ে ভয় না পান। যদিও তাদের মুখের কথায় যে নিশ্চিন্ত হওয়ার মতো কিছু নেই তা পরিষ্কার হয়ে গিয়েছে ভারতীয় দূতাবাসে তালিবানের তল্লাশির ঘটনায়। ফলে আতঙ্ক পুরামাত্রায় বজায় থাকার যথেষ্ট কারণ রয়েছে। এরই মধ্যে এবার সামনে এল অপহরণের এই ঘটনা। 

[আরও পড়ুন: Joe Biden: ‘কী হবে বলতে পারছি না’, আফগানিস্তান নিয়ে সংশয়ে খোদ মার্কিন প্রেসিডেন্ট]

Advertisement
Next