Advertisement

নয়া চাল নীরব মোদির! ফের থমকে গেল ঋণখেলাপিকে দেশে ফেরানোর প্রক্রিয়া

10:35 AM May 01, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ব্রিটিশ সরকার সায় দেওয়ার পরও পিএনবি কাণ্ডে অভিযুক্ত নীরব মোদিকে এখনই দেশে ফেরাতে পারছে না ভারত সরকার। ঋণখেলাপি হীরে ব্যবসায়ীর প্রত্যর্পণ প্রক্রিয়া ফের থমকে গেল। খানিকটা বিজয় মালিয়ার (Vijay Mallya) দেখানো পথে হেঁটে ভারতের জেলের মান এবং বিচারব্যবস্থার উপর অনাস্থা দেখিয়ে ব্রিটেনের হাই কোর্টে পালটা আবেদন জানিয়েছেন নীরব। তাঁর দাবি, ভারতে ফিরলে তিনি উপযুক্ত বিচার পাবেন না। আর ভারতে জেলের যা মান, সেখানে তাঁর পক্ষে থাকা সম্ভব নয়। এই যুক্তিতে প্রত্যর্পণের সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানানোর অনুমতি চেয়েছেন তিনি। বিচার প্রক্রিয়া শেষ না হওয়া পর্যন্ত নীরবকে দেশে ফেরানোর প্রশ্ন উঠছে না।

Advertisement

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতেই নীরবকে ( Nirav Modi ) দেশে ফেরানোর ব্যাপারে সায় দিয়েছিল লন্ডনের ওয়েস্টমিনস্টার ম্যাজিস্ট্রেটস কোর্ট। বিচারক স্পষ্ট ভাষায় জানিয়ে দিয়েছিলেন, ভারতীয় বিচারব্যবস্থার মুখোমুখি হতে হবে আর্থিক দুর্নীতিতে জড়িত ওই ব্যবসায়ীকে। তাঁর বিরুদ্ধে দুর্নীতির যথেষ্ট প্রমাণ ভারতের তদন্তকারী সংস্থাগুলি দেখিয়েছে। আদালতের নির্দেশের পর থেকেই প্রত্যর্পণের ব্যাপারে ব্রিটেনের মুখ্য সচিবের অনুমতির অপেক্ষায় ছিল ভারত। গত ১৫ এপ্রিল ব্রিটেনের মুখ্য সচিব প্রীতি প্যাটেল (Priti Patel) নীরবকে ভারতে প্রত্যর্পণের চুক্তিতে সই করেন। তারপরই কোটি কোটি টাকার ঋণখেলাপিতে অভিযুক্ত এই অলঙ্কার ব্যবসায়ীকে প্রত্যর্পণের ব্যাপারে আশা দেখছিল ভারত। কিন্তু নীরবের কৌশলী চালে সেই আশা আপাতত জলাঞ্জলি দিতে হচ্ছে।

[আরও পড়ুন: অস্ট্রেলিয়ার পরে এবার ফ্রান্স, ফের দেশের করোনা পরিস্থিতির জন্য আন্তর্জাতিক কাঠগড়ায় মোদি]

শনিবার ওয়েস্টমিনস্টার ম্যাজিস্ট্রেটস কোর্টের রায় এবং ব্রিটেনের মুখ্য সচিব প্রীতি প্যাটেলের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ব্রিটেনের হাই কোর্টে আবেদন জানিয়েছেন নীরব মোদি। তাঁর দাবি, ভারতে প্রত্যর্পণ করা হলে তিনি সুবিচার পাবেন না। কারণ, এদেশে তাঁর বিরুদ্ধে রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র চলছে। তাছাড়া ভারতের তদন্তকারী সংস্থাগুলির কাছে তাঁর বিরুদ্ধে উপযুক্ত প্রমাণ নেই বলেও দাবি করেছেন এই অলঙ্কার ব্যবসায়ী। ভারতে জেলের মান নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি। আপাতত ব্রিটেন হাই কোর্টের বিচার প্রক্রিয়া শেষ না হওয়া পর্যন্ত নীরবকে দেশে ফেরাতে পারবে না ভারত সরকার।

Advertisement
Next