বাংলাদেশে সুষ্ঠু নির্বাচনে বাধা দিলেই নিষেধাজ্ঞা, মার্কিন ভিসানীতি নিয়ে বার্তা মন্ত্রীর

03:34 PM Nov 28, 2023 |
Advertisement

সুকুমার সরকার, ঢাকা: আগামী ৭ জানুয়ারি বাংলাদেশে জাতীয় নির্বাচন (General Election in Bangladesh)। তাতে যাঁরা বাধা দেবে, তাঁদের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রকে ভিসানীতি আরোপের আহ্বান জানিয়েছেন বিদেশমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন। নির্বাচন প্রসঙ্গে এর আগে যুক্তরাষ্ট্রের নানা মন্তব্যের সমালোচনা করলেও এবার মোমেন বলেছেন, ”মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র (US) সুপার পাওয়ার। আমরা তাদের প্রত্যাখ্যান করতে পারি না। আমাদের কোনও উদ্দেশ্যও নেই। যুক্তরাষ্ট্র বেশি কিছু চায় না, অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচন চায়। বাংলাদেশও তাই চায়।” সোমবার বিদেশ মন্ত্রকে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি।

Advertisement

মন্ত্রী আবদুল মোমেনের বক্তব্য, আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় র‌্যাবের (RAB) অবদান যুক্তরাষ্ট্রও জানে। তাদের উপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের চেষ্টা জারি রয়েছে। ড. মোমেন বলেন, ”উন্নত দেশ যুক্তরাষ্ট্র, তাদের তো আমরা কখনওই অগ্রাহ্য করতে পারি না।” দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনে সব দলকে আসার আহ্বান জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ”নির্বাচন সুষ্ঠু হলে কোনও দল না এলেও বিশ্বে তার গ্রহণযোগ্যতা পাবে। সরকার চায় সবাই আসুক। বরং আমরা যুক্তরাষ্ট্রকে আহ্বান জানাই, যারা নির্বাচন বানচাল করার চেষ্টা করছে, তাদের তারা ভিসা পলিসির আওতায়। আমরা গণতান্ত্রিক ব্যবস্থাকে নষ্ট করতে চাই না। আমেরিকা গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে। আমরা তাদের সঙ্গে আছি, তারা আমাদের সঙ্গে আছে।”

[আরও পড়ুন: খুব তাড়াতাড়িই নেতৃত্বের ‘বোঝা’ শুভমানের ঘাড়ে! বিস্ফোরক ক্রিকেট বিশেষজ্ঞ]

বিএনপি (BNP) নির্বাচনে অংশ না নেওয়ার পরও যদি অবাধ ও সুষ্ঠু ভোটে হয়, বিদেশিরা তা গ্রহণ করবে কি? এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে বিদেশমন্ত্রী বলেন, ”অবশ্যই গ্রহণ করবে। যদি অবাধ ও গ্রহণযোগ্য হয়। মিশরে বড় দল ছিল ব্রাদারহুড। তারা নির্বাচনে আসেনি। আফগানিস্তানে তালিবান আসেনি। যুক্তরাষ্ট্র এটা গ্রহণ করেছে। কোনও একটি বিশেষ দল যদি না আসে, এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ নয়। সরকারের তরফে চাই, সব দল নির্বাচনে আসুক। আর আমরা আমাদের নিজেদেরও যাচাই করতে চাই। তাদের যদি কোনও জনসমর্থন থাকে, তারা নির্বাচনে আসবে এবং প্রমাণ করবে তাদের অবস্থান।”

[আরও পড়ুন: শিবরাত্রি, জন্মাষ্টমীতে নেই, বাড়তি ছুটি ইদে, ‘ইসলামিক’ বিহারকে তোপ বিজেপির]

Advertisement
Next