Advertisement

ভোটের মুখে বীরভূমের পুলিশ প্রশাসনে বড়সড় রদবদল, সরানো হল দুবরাজপুর ও নলহাটির ওসিকে

12:41 PM Apr 26, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদনি ডিজিটাল বুর়্যো: ভোটের (West Bengal Assembly Election) মুখে ফের ওসি বদল। এবার সরানো হল নলহাটি (Nalhati) ও দুবরাজপুর থানার ওসিকে। অসুস্থ থাকায় সরানো হয়েছে তাঁদের। পাশাপাশি বদল করা হয়েছে মুর্শিদাবাদের আইসিকেও।

Advertisement

দুবরাজপুর থানার ওসির দায়িত্বে ছিলেন দেবব্রত সিনহা। বেশ কিছুদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন তিনি। পা ভেঙে গিয়েছিল। অন্যদিকে নলহাটি থানার ওসির দায়িত্বে ছিলেন মহম্মদ আলি। তিনি করোনা আক্রান্ত বলেই জানা গিয়েছে। অসুস্থ অবস্থায় দুর্গাপুর হাসপাতালে ভরতি রয়েছেন তিনি। কমিশন সূত্রে খবর, ভোট পরিস্থিতিতে কাজে গতি আনতেই সরানো হয়েছে এই দুই ওসিকে। তবে তাঁদের জায়গায় কারা দায়িত্ব পেলেন, তা এখনও জানা যায়নি। 

[আরও পড়ুন:‘বিজেপিকে ভোট না দিলে লাঠিপেটার হুমকি কেন্দ্রীয় বাহিনীর’, বিস্ফোরক সুতির ]

উল্লেখ্য, বাংলায় বিধানসভা নির্বাচন শুরু হওয়ার আগে নির্বাচনী বিধি মেনে পুলিশ আধিকারিকদের রুটিন বদলি করা হয়েছিল নির্বাচন কমিশনের তরফে। সেসময়ে বীরভূমের এসপি শ্যাম সিংকে বদলি করে আনা হয়েছিল মীরাজ খালিদকে। ভোটের মাঝেই আবার ওই পদে বদল করে কমিশন।মীরাজ খালিদকে সরিয়ে দায়িত্ব দেওয়া হয় IPS নগেন্দ্র ত্রিপাঠীকে। এবার সরানো হল দুই ওসিকে। ওয়াকিবহাল মহলের একাংশের মত, এই সিদ্ধান্ত থেকেই স্পষ্ট, উত্তেজনাপ্রবণ বীরভূম জেলাকে এবারের ভোটে বাড়তি গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। বিশেষত এখানকার দোর্দণ্ডপ্রতাপ নেতা অনুব্রত মণ্ডলকে (Anubrata Mandal) আগেই নজরবন্দি করা হয়েছে। তাঁর প্রতিটি গতিবিধির দিকে নজর রাখা হচ্ছে। নগেন্দ্র ত্রিপাঠীকে এই জেলার দায়িত্ব দেওয়ার অন্যতম কারণ এটাই। বীরভূম জেলার ১১ টি কেন্দ্রে ভোট শেষ দফায় অর্থাৎ ২৯ এপ্রিল।

[আরও পড়ুন: ‘বিজেপিকে ভোট না দিলে লাঠিপেটার হুমকি কেন্দ্রীয় বাহিনীর’, বিস্ফোরক সুতির ভোটাররা]

Advertisement
Next