Advertisement

ভোটের সকালে প্রয়াত মুর্শিদাবাদ তৃণমূলের ‘প্রতিষ্ঠাতা’সাগির হোসেন

01:55 PM Apr 26, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সাবিরুজ্জামান, লালবাগ: প্রয়াত মুর্শিদাবাদের (Murshidabad) দাপুটে তৃণমূল নেতা সাগির হোসেন। বেশ কিছুদিন ধরেই মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন তিনি। সোমবার সকালে ঢলে পড়েন মৃত্যুর কোলে। বর্ষীয়ান এই নেতার মৃত্যুতে শোকের ছায়া জেলা তৃণমূলের অন্দরে।

Advertisement

মুর্শিদাবাদে তৃণমূলের জন্মলগ্ন থেকেই দলের সঙ্গী ছিলেন সাগির হোসেন।বলা যায়, ওই জেলায় দলের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন তিনি। তাঁর উপরে প্রথম থেকেই ভরসা করেছিল দল ও দলনেত্রী। পূর্বে জেলা সভাপতির দায়িত্ব ছিল তাঁর কাঁধে। রাজ্যের প্রাক্তন সহ-সভাপতিও ছিলেন তিনি। মুর্শিদাবাদ শিক্ষা সংসদের প্রাক্তন চেয়ারম্যান ছিলেন সাগির হোসেন। বর্তমানে জেলা তৃণমূলের সহ-সভাপতি পদে ছিলেন। দু’ বার লোকসভা ভোটে ও দু’ বার বিধানসভা ভোটে তৃণমূলের হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন তিনি। যদিও জয়ীর মুকুটে পাননি।

[আরও পড়ুন: ফের ভোটের সকালে বাংলায় টুইট শাহর, করোনা বিধি মেনে ভোটদানের আরজি মোদির]

চলতি নির্বাচনেও (West Bengal Assembly Election) ভগবানগোলা আসনে তৃণমূলের হয়ে লড়াই করার কথা ছিল তাঁর। সেই মতো প্রস্তুতিও নিয়েছিলেন। কিন্তু শেষমুূহূর্তে সিদ্ধান্ত বদল করে দল। ভগবানগোলা আসনে প্রার্থী করা হয় ইদ্রিশ আলিকে। সেই থেকেই ঘরবন্দি হয়ে যান সাগির হোসেন। মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছিলেন তিনি। দলের কোনও কর্মসূচিতেই সেভাবে দেখা যাচ্ছিল না তাঁকে। এই পরিস্থিতিতে সোমবার সকালে অর্থাৎ মুর্শিদাবাদে ভোটের দিনই মৃত্যুু হয় তাঁর। বর্ষীয়ান ওই তৃণমূল নেতার স্ত্রী জানিয়েছেন, প্রার্থী হতে না পারায় মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছিলেন সাগির হোসেন। নিজেকে কার্যত একঘরে করে দিয়েছিলেন। দলের দীর্ঘদিনের সৈনিকের মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ জেলা তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা। 

[আরও পড়ুন: ভোটের মুখে বীরভূমের পুলিশ প্রশাসনে বড়সড় রদবদল, সরানো হল দুবরাজপুর ও নলহাটির ওসিকে]

Advertisement
Next