Advertisement

দিল্লির রায়: ১৬ ফেব্রুয়ারি তৃতীয়বারের জন্য শপথ নেবেন কেজরিওয়াল, হাজির থাকবেন মমতাও

04:25 PM Feb 12, 2020 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিজেপিকে হারিয়ে তৃতীয়বারের জন্য দিল্লির মসনদে বসতে চলেছেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল। আশা জাগিয়েও, শেষ পর্যন্ত লজ্জাজনক ফল করল বিজেপি। রাজধানীর বুক থেকে ধুয়েমুছে সাফ কংগ্রেস।

Advertisement

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

সন্ধে ৭টা: ৭০টির মধ্যে শেষপর্যন্ত আপ জয়ী হয় ৬২টি ও বিজেপি আটটি আসনে।

সন্ধে ৬টা:  আগামী ১৬ ফেব্রুয়ারি তৃতীয়বারের জন্য দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নিতে চলেছেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল। ভালবাসার দিনেই ফের সফর শুরু করতে চলেছেন তিনি।

বিকেল ৫টা: দলের সদর দপ্তর থেকে কর্মী ও সমর্থকদের দিয়ে একটি বিজয় মিছিলও বের করেন আপ সুপ্রিমো অরবিন্দ কেজরিওয়াল। তারপর স্থানীয় হনুমান মন্দিরে গিয়ে প্রণামও করেন আসেন। তাঁর সঙ্গে ছিলেন মণীশ শিসোদিয়া-সহ অন্যরাও।

দুপুর ৪টে: ‘দিল্লির জনমত মাথা পেতে স্বীকার করে নিচ্ছি। আমরা গঠনমূলক বিরোধী দলের ভূমিকা পালন করব।’ দিল্লি নির্বাচনের প্রেক্ষিতে টুইট বিজেপি সভাপতি জে পি নাড্ডার।

 

দুপুর ৩ টে ৩০মিনিট: বিরাট জয়ের পর প্রথম মুখ খুললেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। বক্তব্য দিতে গিয়ে ভারত মাতার জয়, জয় হনুমান, বন্দেমাতরম ও ইনকিলাব জিন্দাবাদ বলে স্লোগান দেন। বললেন, ” আজ মঙ্গলবার হনুমানজির দিন। এইদিনে দিল্লির বাসিন্দাদের আর্শীবাদ করেছেন তিনি। আমরা চাই আগামী পাঁচবছর তিনি এভাবেই আমাদের আর্শীবাদ করতে থাকুন। যাতে দিল্লিবাসীর সবরকম উন্নয়ন করতে পারি আমরা। তবে দিল্লির বাসিন্দারাও চমকে দিয়েছেন আমাদের। আমি আপনাদের ভালবাসি। আপনারা যাঁরা আমাকে নিজের ছেলে ভেবে এত সমর্থন করলেন, আমাকে ভোট দিলেন, এটা তাঁদের সবার জয়।এটা সেইসব পরিবারের জয় যাঁরা বিনামূল্যে বিদ্যুৎ পান। এটা তাঁদের জয় যাঁরা হাসাপাতালে ফ্রিতে চিকিৎসা পান। দিল্লির মানুষ বার্তা দিয়েছেন, যাঁরা কাজ করেছে তাঁরাই ভোট পাবেন। এই জয় বিজলি-পানি-সড়কের জয়। এটা শুধু দিল্লির জয় নয়, এটা আমাদের ভারত মাতার জয়। গোটা দেশের জয়। গত পাঁচবছর আমরা যেভাবে কাজ করেছি। আগামী পাঁচ বছরও একইভাবে কাজ করব। আমি সব দিল্লিবাসীকে ধন্যবাদ দিতে চাই। দলের কর্মীদের ধন্যবাদ দিতে চাই।”

দুপুর ২টো ৪৫ মিনিট: হাড্ডাহাড্ডি লড়াই শেষে দিল্লির পাটপড়গঞ্জ আসনে জিতলেন আম আদমি পার্টি প্রার্থী তথা দিল্লির উপমুখ্যমন্ত্রী মণীশ শিসোদিয়া।সকাল থেকে একাধিকবার পিছিয়ে পড়েছিলেন তিনি।

 

দুপুর ২টো: আম আদমি পার্টির শক্তি আরও বাড়ছে বিধানসভায়। এই মুহূর্তে আপ এগিয়ে ৬২টি আসনে। বিজেপি এগিয়ে ৮ আসনে।

দুপুর ১টা ৩০ মিনিট: দিল্লির সর্বশেষ আপাডেট, আম আদমি পার্টি ৫৮, বিজেপি ১২। কংগ্রেস শূন্য।

দুপুর ১২টা: জয় নিয়ে প্রথম প্রতিক্রিয়া দিল আম আদমি পার্টি। আপ সাংসদ সঞ্জয় সিং বললেন, “ঘৃণার রাজনীতির বিরুদ্ধে এই জয়। অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে কেউ হারাতে পারবে না।”

সকাল ১১টা ৫০: কেজরির জয়ে খুশি মমতা।বাংলার মুখ্যমন্ত্রী বললেন, “দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় আসার পরও ওঁরা প্রতিহিংসার রাজনীতি এবং বিভাজনের রাজনীতি করেছে। ওঁরা সবসময় অপপ্রচার করে, ঘৃণার রাজনীতি করে, গুজব ছড়ায়।এটা রাজনীতির ইস্যু হতে পারে না। রাজনীতির ইস্যু হওয়া উচিত অর্থনীতি, বেকারত্বর মতো। কেজরিওয়ালের এই জয় গণতন্ত্রের জয়।” আপ সুপ্রিমোকে ফোন করেও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মমতা। 

সকাল ১১টা ৪০মিনিট: জয়ের দিনেও অস্বস্তির কাঁটা আপের। পিছিয়ে উপমুখ্যমন্ত্রী মণীশ শিসোদিয়া। শাহিনবাগেও পিছিয়ে আপ। ওখলা কেন্দ্রে এগিয়ে বিজেপির ব্রহ্ম সিং।

সকাল ১১টি ২০ মিনিট: লজ্জাজনক হারের দায় নিয়ে দিল্লি কংগ্রেস সভাপতির পদ থেকে ইস্তফা দিচ্ছেন সুভাষ চোপড়া। দিল্লি নির্বাচনে খাতা খুলতে পারেনি কংগ্রেস। 

সকাল ১১টা: বিজেপির সঙ্গে ব্যবধান আরও বাড়িয়ে নিল আম আদমি পার্টি। আপাতত তাঁরা এগিয়ে ৫৮টি আসনে। বিজেপি এগিয়ে ১২ আসনে।

সকাল ১০টি ৪০ মিনিট: দিল্লির ফলাফল ভাল বার্তা দিচ্ছে না কংগ্রেস কর্মীদের। স্বীকার করলেন অধীর চৌধুরী। তাঁর মতে, ‘সবাই জানত কেজরিওয়াল জিতবেন। তাঁর এই জয় বিজেপির ধর্মীয় রাজনীতির বিরুদ্ধে জয়।’

 

সকাল ১০টা ৩০ মিনিট: আপের লিড মজবুত হলেও আশা একেবারেই ছাড়ছেন না দিল্লি বিজেপি সুপ্রিমো মনোজ তিওয়ারি। তাঁর দাবি, অন্তত ২৭টি আসনে কঠিন লড়াই চলছে আম আদমি পার্টি এবং বিজেপির। এই ২৭টি আসনে তাঁরা জিতে এখনও ক্ষমতায় ফিরতে পারেন।বিজেপি সদর দপ্তরে অবশ্য উৎসাহের চিহ্নমাত্র নেই।

 

 

সকাল ১০টা ১৫ মিনিট: ফের বিজেপির থেকে ব্যবধান বাড়িয়ে নিল আম আদমি পার্টি। আপাতত তাঁরা এগিয়ে ৫০টি আসনে। ২০টি আসনে এগিয়ে বিজেপি। 

সকাল ১০টা ১০মিনিট: এখনও আশা ছাড়ছেন না দিল্লি বিজেপি সভাপতি মনোজ তিওয়ারি।বেলা গড়ালে ফলাফল ভাল হবে দাবি, দিল্লি বিজেপি সভাপতির।

 

সকাল ১০ টা: আম আদমি পার্টি নেতা তথা দিল্লির উপমুখ্যমন্ত্রী মণীশ শিসোদিয়া এগিয়ে। ৯৮ ভোটে এগিয়ে বিজেপি প্রার্থী কপিল মিশ্র।

সকাল ৯টা ৫০ মিনিট: নির্বাচন কমিশনের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী আপ এগিয়ে ২৬ আসনে। বিজেপি এগিয়ে ১৪ আসনে।আপ ৫০.৬০ শতাংশ ভোটে এগিয়ে, অন্যদিকে বিজেপি পেয়েছে ৪১ শতাংশ ভোট। 

সকাল ৯টা ৪৫ মিনিট: বেশ কয়েকটি আসনে কড়া টক্কর আপ-বিজেপির। আপাতত আপ এগিয়ে ৫০ আসনে। বিজেপি এগিয়ে ২০ আসনে। ফের পিছিয়ে গিলেন আপের অতীশী মারলেনা।

সকাল ৯টা ৩৮মিনিট: এগিয়ে বিজেপির হেভিওয়েট প্রার্থী কপিল মিশ্র।

সকাল ৯টা ৩৫মিনিট: কঠিন লড়াইয়ের মুখে উপমুখ্যমন্ত্রী মণীশ শিসোদিয়া। আপাতত সামান্য ভোটে এগিয়ে তিনি।

সকাল ৯টা ৩০ মিনিট: ইভিএম খুলতেই এগোচ্ছে বিজেপি। এখনও পর্যন্ত নির্বাচন কমিশনের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী মোট ৪৩ শতাংশ ভোট পেয়েছে গেরুয়া শিবির। এর আগে বিজেপি এত বেশি ভোট কখনও পায়নি। আসনসংখ্যার বিচারেও আগের তুলনায় এগিয়ে এসেছে বিজেপি। আপাতত আপ ৪৭ আসনে এগিয়ে। বিজেপি এগিয়ে ২৩ আসনে।

সকাল ৯টা ২০: দিল্লিতে নিশ্চিহ্ন কংগ্রেস। এগিয়ে আপের কেজরিওয়াল, শিসোদিয়া, গোপাল রায়, রাঘব চাড্ডা। পিছিয়ে বিজেপির কপিল মিশ্র, তেজিন্দর পাল সিং বগ্গা। আপাতত আপ ৫২টি এবং বিজেপি ১৮টি আসনে এগিয়ে। 

সকাল ৯টা: ইভিএম খুলতেই ধীরে ধীরে এগোচ্ছে বিজেপি। আপাতত তাঁরা এগিয়ে ২২টি আসনে। আপ এখনও ৪৮টি আসনে এগিয়ে।

সকাল ৮টা ৫৮ মিনিট: এগিয়ে গেলেন বিজেপির হেভিওয়েট প্রার্থী তেজিন্দর পাল সিং বগ্গা।

সকাল ৮টা ৫৫ মিনিট: কালকাঝি আসনে এগিয়ে আপের অতীশী, পিছিয়ে দিল্লি কংগ্রেস সুপ্রিমো সুভাষ চোপড়ার মেয়ে শিবানী চোপড়া।

সকাল ৮টা ৫০ মিনিট:  সপরিবারে আম আদমি পার্টির সদর দপ্তরে পৌঁছলেন মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল।  

সকাল ৮টা ৪০ মিনিট: ৭০টি আসনেরই প্রাথমিক ট্রেন্ড প্রকাশ্যে। ৫৬ আসনে এগিয়ে আম আদমি পার্টি। ১৪টি আসনে এগিয়ে বিজেপি। 

 

সকাল ৮টা ৩৫ মিনিট: পিছিয়ে বিজেপির হেভিওয়েট প্রার্থী তেজিন্দর পাল সিং বগ্গা।পিছিয়ে কংগ্রেসের অলকা লম্বা, অরবিন্দ সিং লাভলি।

সকাল ৮টা ৩০ মিনিট: এখনও পর্যন্ত ৪৭ আসনে এগিয়ে আম আদমি পার্টি। বিজেপি এগিয়ে ১৩টি আসনে। একটি আসনে এগিয়ে কংগ্রেস।

সকাল ৮টা ২৫ মিনিট: এগিয়ে বিজেপি প্রার্থী কপিল মিশ্র। আপ প্রার্থী তথা রাজ্যের মন্ত্রী গোপাল রাইও এগিয়ে গেলেন।

সকাল ৮টা ২০ মিনিট: দিল্লিতে এখনও এগিয়ে আম আদমি পার্টি প্রার্থী রাঘব চাড্ডা। ওখলায় এগিয়ে আমানতুল্লাহ খান। চাঁদনি চকে এগিয়ে আপের প্রহ্লাদ সিং যোশি। পিছিয়ে কংগ্রেসের অলকা লম্বা।

সকাল ৮টা ১৬ মিনিট: প্রথম ২০ মিনিটের ফলাফলের নিরিখে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেরিয়ে গেল আম আদমি পার্টি।আপাতত তাঁরা এগিয়ে ৪১ আসনে। বিজেপি এগিয়ে ১৬ আসনে। কংগ্রেস এগিয়ে একটি আসনে।

সকাল ৮টা ১৫ মিনিট: এখনও পর্যন্ত ৩৩ আসনে এগিয়ে আম আদমি পার্টি। বিজেপি এগিয়ে ১০ আসনে।

সকাল ৮ টা ১২ মিনিট: প্রথম ১০ মিনিটে ঝড়ের গতিতে এগোচ্ছে আম আদমি পার্টি। ২৬টি আসনে ইতিমধ্যেই এগিয়ে গিয়েছে আপ। ১১টি আসনে এগিয়ে বিজেপি।   

সকাল ৮টা ১০ মিনিট: প্রাথমিকভাবে দিল্লির ওখলা কেন্দ্রে এগিয়ে আপ প্রার্থী আমানতুল্লাহ খান। এই কেন্দ্রের অধীনেই পড়ে শাহিনবাগ।

শাহিনবাগ বিক্ষোভ

সকাল ৮টা ৫ মিনিট: ফলাফলের একেবারে প্রথম ট্রেন্ড আসা শুরু। প্রথম পাঁচ মিনিটেই ৫ আসনে এগিয়ে গেল আম আদমি পার্টি।বিজেপি এগিয়ে ২ আসনে। বাকিরা ১ আসনে।

সকাল ৮টা: কড়া নিরাপত্তায় শুরু ৭০ আসনবিশিষ্ট দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনের ভোটগণনা।  

সকাল ৭টা ৫০ মিনিট: এক্সিট পোলের পূর্বাভাস উড়িয়ে দিয়ে এখনও জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী গেরুয়া সভাপতি। দিল্লির বিজেপি সভাপতি মনোজ তিওয়ারি বলছেন, “আমি এতটুকুও চিন্তিত নই। আমি আত্মবিশ্বাসী আজকের দিনটা বিজেপির জন্য ভাল যাবে। আমরা ক্ষমতায় ফিরছিই। ৫৫টি আসন পেলেও অবাক হব না।”

 

সকাল ৭টা ৪৫মিনিট: ইতিমধ্যেই দিল্লিতে আম আদমি পার্টির সদর দপ্তরে ভিড় জমিয়েছেন কর্মী সমর্থকরা। মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল দূষণের কথা মাথায় রেখে বিজয়োল্লাসে কর্মীদের বাজি না পোড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

 

সকাল ৭টা ৪০ মিনিট: গণনা শুরুর আগে মন্দিরে পুজো দিলেন দিল্লির উপমুখ্যমন্ত্রী মণীশ শিসোদিয়া।জয়ের ব্যপারে আত্মবিশ্বাসী মণীশ। জানালেন, ৫ বছরের ভাল কাজের পুরস্কার দেবে মানুষ।

 

সকাল ৭টা ৩০ মিনিট: ইতিমধ্যেই ভোটগণনাকেন্দ্রে পৌছে গিয়েছেন আধিকারিকরা। রাজনৈতিক দলগুলির এজেন্টরাও ধীরে ধীরে ভিড় করছেনগণনাকেন্দ্রগুলিতে।

সকাল ৭টা ২০ মিনিট: গণনা পর্যবেক্ষণের জন্য মোট ৩৩জন পর্যবেক্ষক নিয়োগ করেছে নির্বাচন কমিশন।

সকাল ৭টা ১০ মিনিট: মোট ২১ জায়গায় গণনা করা হবে ভোট। এই গণনাকেন্দ্রগুলি ছড়িয়ে আছে দিল্লির ১১টি জেলায়। এর মধ্যে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য গণনাকেন্দ্রগুলি হল, CWG Sports Complex, রাজীব গান্ধী স্টেডিয়াম, মীরাবাঈ ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

সকাল ৭টা: ৭০ আসনবিশিষ্ট দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনের ভোটগণনা শুরু হবে সকাল আটটায়। তার আগে রাজধানীজুড়ে কড়া নিরাপত্তার বন্দোবস্ত করেছে নির্বাচন কমিশন। 

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

The post দিল্লির রায়: ১৬ ফেব্রুয়ারি তৃতীয়বারের জন্য শপথ নেবেন কেজরিওয়াল, হাজির থাকবেন মমতাও appeared first on Sangbad Pratidin.

Advertisement
Next