Advertisement

‘বউকে বলেছিলাম, ছেড়ে চলে যাও’, #MeToo নিয়ে মুখ খুললেন চেতন ভগত

08:58 PM Nov 18, 2018 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটল ডেস্ক: একাধিকবার #MeToo বিতর্কে জড়িয়েছে লেখক চেতন ভগতের নাম। প্রথমবার অভিযোগ ওঠার পর লেখক এনিয়ে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছিলেন। কিন্তু তারপরও ইরা ত্রিবেদী তাঁর বিরুদ্ধে তুলেছিলেন অভিযোগ। সেই সময় পরিস্থিতি অনেক কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছিল। এতটাই কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে ছিলেন তিনি, যে স্ত্রী-কে ছেড়ে চলে যেতে বলেছিলেন তিনি।

Advertisement

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

নিজের সেই অভিজ্ঞতার কথা সম্প্রতি শেয়ার করেছেন তিনি। বলেছেন, প্রথম যিনি তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছিলেন, তাঁর কাছে তিনি ক্ষমা চেয়েছেন। কিন্তু দ্বিতীয় মহিলার অভিযোগ ছিল সর্বৈব মিথ্যা। নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করার সমস্ত প্রমাণ লেখকের কাছে ছিল। কিন্তু তিনি আদালতে যাননি। কারণ, তাঁর মনে হয় না এই সব সমস্যার সমাধান আদালতে গিয়ে হবে। আর যদিও বা হয়, তব তাঁর পরিবারের উপর দিয়ে সেই সময় যে ঝড় গিয়েছে, তার সমাধান হবে কী করে?

অবক্ষয়ের পথে আমাদের সমাজ? ‘১৫ই আগস্ট’-এ প্রশ্ন আত্মিকের ]

লেখক এও বলেছেন, তাঁর স্ত্রী তাঁর থেকেও বেশি কঠিন মনের মানুষ। তাই এই যাত্রায় মানে মানে উতরে গিয়েছেন চেতন ভগত। লেখকের মানসিক অবস্থা তখন এতটাই খারাপ ছিল যে তিনি স্ত্রী অনুষাকে ছেড়ে চলে যেতে বলেছিলেন। তাহলে তাঁর জীবন অনেক স্বাভাবিক হত। কিন্তু অনুষা তা মেনে নেননি। লেখককে ছেড়ে চলে যাননি তিনি। উলটে বলেছিলেন, “তুমি কি পাগল? তুমি আর আমি শিব-পার্বতীর মতো। আমরা অর্ধনারীশ্বর।” তখন লেখকের মনে হয়েছিল, তিনি কতটা বোকা। ঘরে এমন স্ত্রী থাকতে তিনি অন্য মহিলার সঙ্গে চ্যাট করতেন কীভাবে?

তবে নিজের বিরুদ্ধে যতই অভিযোগ উঠুক, #MeToo মুভমেন্টকে তিনি সমর্থন করেন বলে জানিয়েছেন চেতন ভগত। এর ফলে অনেকে নিজের কথা সবার সামনে তুলে ধরার সুযোগ পাচ্ছে। তবে অবশ্যই এই সুযোগে কারওর উপর মিথ্যে অভিযোগ তোলার পক্ষপাতী নন তিনি। লেখক জানিয়েছেন, তিনি যথেষ্ট শিক্ষা পেয়েছেন। এমন ঘটনা আর কারওর সঙ্গে ঘটুক, চান না তিনি।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

আয়ুব বাচ্চুর স্মরণে শহরে ‘দুই বাংলার রকবাজি’ ]

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

The post ‘বউকে বলেছিলাম, ছেড়ে চলে যাও’, #MeToo নিয়ে মুখ খুললেন চেতন ভগত appeared first on Sangbad Pratidin.

Advertisement
Next