Advertisement

‘অহিন্দুদের মন্দিরে প্রবেশাধিকার নয়,’উত্তরাখণ্ডের ধর্মস্থানের সামনে ব্যানারে বিতর্ক

01:11 PM Mar 23, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের বিতর্কে হিন্দু যুব বাহিনী। হিন্দু না হলে প্রবেশ করা যাবে না মন্দিরে। উত্তরাখণ্ডের (Uttarakhand) দেরাদুনের (Dehradun) ঘণ্টা ঘরের একটি মন্দিরের সামনে এমনই এক ব্যানার ঘিরে বিতর্ক উসকে উঠেছে। শেষপর্যন্ত অবশ্য বিতর্কের মুখে পড়ে সেটি সরানো হয়েছে। এমনকী মামলাও দায়ের হয়েছে।

Advertisement

সংবাদসংস্থা এএনআইয়ের পক্ষ থেকে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, ঘণ্টা ঘর এলাকার ওই মন্দিরের সামনে ব্যানারটি দেখে অনেকেই অবাক হয়ে যান। ওই ব্যানারে লেখা ছিল, “এটি হিন্দুদের জন্য পবিত্র স্থান। এখানে অ-হিন্দুদের প্রবেশ নিষেধ।” নিচে আবার নাম লেখা ছিল হিন্দু যুব বাহিনীর। শুধু ওই মন্দিরে নয়, জানা গিয়েছে, একাধিক হিন্দু মন্দিরের সামনে এই ধরনের ব্যানার টাঙানো হয়। আর এটি সামনে আসতেই রীতিমতো বিতর্ক দেখা দেয়। অনেকেই এই কাজের সমালোচনা করেন। বিতর্কের মুখে পড়ে অবশ্য মন্দির কর্তৃপক্ষ অবশ্য জানিয়েছে, এই ধরনের কোনও ব্যানারের ব্যাপারে তাঁরা কিছু জানেন না। ইতিমধ্যে সেটি সরানো হয়েছে বলেও খবর। শুধু তাই নয়, যে ব্যক্তির ফোন নম্বর ওই ব্যানারটিতে ছিল, তাঁর বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধি ১৫৩এ ধারায় মামলাও দায়ের করা হয়েছে।

 

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: প্যাংগংয়ের পর এবার গোগরা-হটস্প্রিং নিয়ে আলোচনায় বসতে চলেছে ভারত ও চিন]

এর আগে সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশে মন্দিরে ঢুকে জল পান করায় এক মুসলিম কিশোরকে বেধড়ক মারধর করা হয়। ঘটনাটি উত্তরপ্রদেশের গাজিয়াবাদের ঘটনা। পুলিশ সূত্রে খবর, ওই মুসলিম (Muslim) কিশোর গাজিয়াবাদের মন্দিরে ঢুকে জলপান করে। সে ঘটনা দেখতে পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে তার নাম-পরিচয় জানতে চায় এক ব্যক্তি। এর পরই ওই কিশোরকে বেধড়ক মারধর শুরু করে সে। গোটা ঘটনার ভিডিও করে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল করে দেন স্থানীয় বাসিন্দারা। নিন্দার ঝড়ে চাপ পড়ে যায় উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। তড়িঘড়ি অভিযুক্তদের গ্রেপ্তার করে তারা।

[আরও পড়ুন: ভারতকে নাকি ২০০ বছর শাসন করেছে আমেরিকা ! উত্তরাখণ্ডের নয়া মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্যে হাসির রোল]

Advertisement
Next