Advertisement

কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে সুপ্রিম কোর্টে কৃষকরা, পালটা মহামারী আইনে মামলা দিল্লি পুলিশের

08:51 AM Dec 11, 2020 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিল্লির কৃষক বিক্ষোভ (Farmers Protest) দু’সপ্তাহ অতিক্রম করেছে। এর মধ্যে কেন্দ্র এবং বিক্ষোভরত কৃষক সংঠনগুলির মধ্যে ৬ দফা বৈঠক হয়েছে। কিন্তু সমস্যা মেটেনি। বিতর্কিত আইন বাতিলের দাবিতে অনড় কৃষক সংঠনগুলি। অবস্থান-আন্দোলনে কর্ণপাত করছে না সরকার। তাই এবার ৩টি বিতর্কিত কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হচ্ছে কৃষকদের একটি সংঠন। এদিকে, সিঙ্ঘু সীমান্তে বিক্ষোভরত কৃষকদের বিরুদ্ধে পালটা পদক্ষেপ করেছে দিল্লি পুলিশও। সামাজিক দুরত্ব না মানায় তাদের বিরুদ্ধে মহামারী আইনে দায়ের হয়েছে মামলা।

Advertisement

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

বৃহস্পতিবারই কৃষকদের একটি সংঠন জানিয়ে দিয়েছে, নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে সরকার আইন (Farm Laws) প্রত্যাহার না করলে তারা বৃহত্তর এবং কঠোরতর আন্দোলনে যাবেন। প্রয়োজনে দেশজুড়ে স্তব্ধ করে দেওয়া হবে রেল পরিষেবা। এই চরমপন্থার পাশাপাশি আইনি লড়াইয়ের রাস্তাও খোলা রাখছে কৃষক সংঠন ভারতীয় কিষাণ ইউনিয়ন (Bharatiya Kisan Union)। গতকালই তারা ঘোষণা করেছে, বিতর্কিত তিন আইনকে চ্যালেঞ্জ করে সর্বোচ্চ আদালতে মামলা করা হবে। প্রসঙ্গত, ইতিমধ্যেই সুপ্রিম কোর্টে এই তিন আইন বাতিলের দাবিতে ছ’টি আবেদন জমা পড়েছে। গত ১২ অক্টোবর এই সংক্রান্ত মামলার শুনানিতে কেন্দ্রের জবাবও চেয়েছে সর্বোচ্চ আদালত।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

[আরও পড়ুন: প্রধানমন্ত্রী কথা না শুনলে দেশজুড়ে ‘রেল রোকো’র হুঙ্কার কৃষকদের]

এদিকে, কৃষকদের এই পদক্ষেপের সিদ্ধান্ত ঘোষণার পরই আরও একটি চাঞ্চল্যকর ঘটনা প্রকাশ্যে এসেছে। সুত্রের খবর, দিল্লির সিঙ্ঘু সীমান্তে বিক্ষোভরত কৃষকদের বিরুদ্ধে মহামারী আইনে মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। দিল্লি পুলিশের অভিযোগ, বিক্ষোভরত ওই কৃষকরা সামাজিক দুরত্ব মানছেন না। যা করোনা পরিস্থিতিতে বিপজ্জনক। গত ৭ ডিসেম্বর দিল্লির আলিপুর থানায় এই সংক্রান্ত মামলাটি দায়ের হয়েছে। দিল্লি পুলিশের এই পদক্ষেপ নিয়েও প্রশ্ন তুলছেন অনেকে। প্রশ্ন উঠছে, বিভিন্ন রাজনৈতিক সমাবেশেও একইভাবে সামাজিক দূরত্ব মানা হচ্ছে না। অথচ, সেক্ষেত্রে পুলিশ কেন কোনও পদক্ষেপ করে না? নাকি কেন্দ্রের অঙ্গুলিহেলনে কৃষকদের বিপাকে ফেলতেই এই সিদ্ধান্ত?

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
Advertisement
Next