আরও একা হচ্ছেন উদ্ধব! শিণ্ডে শিবিরে ৫০ বিধায়ক, যোগ দিচ্ছেন সাংসদরাও

09:26 AM Jun 24, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যত সময় যাচ্ছে দলে ততই যেন নিঃসঙ্গ হচ্ছেন উদ্ধব ঠাকরে । একে একে বিধায়করা তো সঙ্গ ছাড়ছেনই, সাংসদরাও ধীরে ধীরে ভিড়ে যাচ্ছেন একনাথ শিণ্ডের দলে। যা পরিস্থিতি, তাতে কোনও ম্যাজিক মিরাকল না হলে উদ্ধবের গদি বাঁচা মুশকিল।

Advertisement

বৃহস্পতিবার রাতে শিণ্ডে (Eknath Shinde) শিবিরের তরফে একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়। সেখানে দাবি করা হয়, শিব সেনার ৪২-সহ তাঁদের কাছে মোট ৪৯ জন বিধায়ক রয়েছেন। একটি ভিডিওতে গুয়াহাটির হোটেলে বিজেপির হেফাজতে থাকা অনুগামী বিধায়কদের উদ্দেশে‌ শিণ্ডেকে বলতে শোনা গিয়েছে, ‘একটি জাতীয় দল আমাদের সমর্থন দিচ্ছে। তারা বলেছে আমাদের একটি ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত নিতে হবে। সবার সঙ্গে কথা বলেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। সবার মত চাওয়া হবে।’ শুক্রবার আবার তিনি দাবি করেছেন, বিধায়ক সংখ্যা বেড়ে ৫০ হয়েছে। শুধু বিধায়করা নন, শিণ্ডের শিবিরে এবার যোগ দিচ্ছেন সাংসদরাও। সূত্রের দাবি, অন্তত ৯ জন শিব সেনা সাংসদও শিণ্ডে শিবিরে যোগ দেবেন। তার মধ্যে জনা কয়েক ইতিমধ্যেই গুয়াহাটি পৌঁছে গিয়েছেন।

[আরও পড়ুন: সরানো হল কল্যাণময়কে, মধ্যশিক্ষা পর্ষদ সভাপতির দায়িত্ব পাচ্ছেন রামানুজ গঙ্গোপাধ্যায়]

এই অবস্থায় শিব সেনার (Shiv Sena) মুখপাত্র তথা দলের সাংসদ সঞ্জয় রাউত বিদ্রোহী গোষ্ঠীর উদ্দেশে বলেন, “যদি আপনাদের সমস্যা নেতৃত্ব নয় জোট সরকার হয়, যদি আপনারা শিব সেনা ছাড়বেন না বলছেন, তাহলে আমরা মহা বিকাশ আগাড়ি (MVA) থেকে বেরিয়ে আসতে রাজি। কিন্তু তার আগে সামনে আসার সাহস দেখান। আর এসে উদ্ধব ঠাকরের সামনে নিজেদের শর্ত রাখুন। আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ফিরলে দাবি নিয়ে ভাবনাচিন্তা হবে।” পালটা শিণ্ডে শিবির জানিয়ে দিয়েছে, তাঁদের সঙ্গে ৫০ বিধায়ক রয়েছে। তাই ফেরার কোনও কারণই নেই।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ভঙ্গের অভিযোগ, এবার নূপুর শর্মাকে তলব আমহার্স্ট স্ট্রিট থানার]

বুধবার রাতেই মহারাষ্ট্রে বিজেপির (BJP) সরকার গঠনের তৎপরতা প্রকাশ্যে এসে পড়ে। উপমুখ‌্যমন্ত্রী পদের আশ্বাস দিয়ে সমর্থন চাওয়া হয়। শিব সেনা শেষপর্যন্ত শিণ্ডেদের কাছে ‘আত্মসমর্পণ’ করে এনডিএতে ফেরার চিন্তাভাবনা করে থাকলেও, তা ঠেকাতে তৎপর মহা বিকাশ আগাড়ির দুই শরিক এনসিপি এবং কংগ্রেস (Congress)। তারা উদ্ধব সরকারকে বাইরে থেকে সমর্থন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেবে। কংগ্রেস ‘ওয়েট অ‌্যান্ড ওয়াচ’ নীতি নিয়ে চলার পক্ষে। এনসিপি নেতাদের সঙ্গে বৈঠকের পর পাওয়ার দাবি করেছন, আগাড়ির হাতে এখনও যথেষ্ঠ সংখ‌্যক বিধায়ক আছে। বিধানসভাতেই গরিষ্ঠতার প্রমাণ নেওয়া হোক। কিন্তু, শিব সেনার কাছে সরকার বা জোট নয়, দলকে ভাঙনের হাত থেকে বাঁচানোই বড় কথা। রাউত জানিয়েছেন, বিদ্রোহী বিধায়করা ঘরে ফিরলে শিব সেনা, কংগ্রেস এবং এনসিপির সঙ্গে জোট ভাঙতেও প্রস্তুত! এতেই স্পষ্ট, দলের ভাঙন ঠেকাতে এখন মরিয়া শিব সেনা।

Advertisement
Next