ভরসন্ধেয় ভবানীপুরে জোড়া খুন, বাড়ি থেকে উদ্ধার বৃদ্ধ দম্পতির রক্তাক্ত দেহ

08:22 AM Jun 07, 2022 |
Advertisement

অর্ণব আইচ: ভরসন্ধেয় খাস কলকাতায় (Kolkata) জোড়া খুন। হরিশ মুখার্জি রোডের বাড়ি থেকে উদ্ধার বৃদ্ধ দম্পতির রক্তাক্ত দেহ। ঘটনাকে কেন্দ্র করে তীব্র উত্তেজনা ছড়াল এলাকায়। ইতিমধ্যেই দেহ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পুলিশ। ঘটনাস্থলে হোমিসাইড শাখা।

Advertisement

ঘটনাস্থলে ফিরহাদ হাকিম।

জানা গিয়েছে, বর্তমানে হরিশ মুখার্জি রোডের তিনতলা একটি বাড়িতে থাকতেন ওই বৃদ্ধ গুজরাটি দম্পতি। তাঁদের তিন মেয়ে। দুই মেয়ের বিয়ে হয়ে গিয়েছে। এক মেয়ে তাঁদের সঙ্গে থাকতেন। সোমবার সন্ধেয় বাড়ি থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার হয় বৃদ্ধ ও তাঁর স্ত্রীর দেহ। ঘর ভেসে যাচ্ছিল রক্তে। বিষয়টি জানাজানি হতেই খবর দেওয়া হয় থানায়। সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে যান ৭৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর কাজরী বন্দ্যোপাধ্যায়, মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম (Firhad Hakim)।

[আরও পড়ুন: আলিমুদ্দিনকে বুড়ো আঙুল! ‘হোলটাইমার’ বিধি ভেঙে উত্তর ২৪পরগনা জেলা কমিটির শীর্ষপদেই তন্ময়রা]

ছবি: পিন্টু প্রধান।

সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই দেহ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ কুকুর নিয়ে বাড়ি ও এলাকায় তল্লাশি চালাচ্ছেন আধিকারিকরা। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, খুন করা হয়েছে ওই দম্পতিকে। তবে আঘাতের চিহ্ন দেখে বোঝা সম্ভব হয়নি যে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করা হয়েছে দম্পতিকে নাকি গুলি চালানো হয়েছে। যদিও গুলির শব্দ পাননি স্থানীয়রা কেউই। কিন্তু কারণ যাই হোক, কেন এই নৃশংসতা, তা এখনও রহস্য। সূত্রের খবর, ওই দম্পতির ঘরের আলমারির দরজা খোলা ছিল। ফলে লুঠের উদ্দেশ্যে এসে দম্পতিকে খুনের তত্ত্বও ওড়াতে পারছেন না তদন্তকারীরা। ঘটনার পিছনে পরিচিত কেউ থাকতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। পাশাপাশি দম্পতির মধ্যে অশান্তি চলছিল কি না, তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলেই খবর। 

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: অবলুপ্ত রিক্রুটমেন্ট বোর্ড, এবার থেকে গ্রুপ ডি পদে সরাসরি কর্মী নিয়োগ করবে না রাজ্য]

Advertisement
Next