১০০ দিনের প্রকল্পে দুর্নীতি মামলায় কেন্দ্র-রাজ্যের হলফনামা চাইল হাই কোর্ট

03:34 PM Nov 28, 2022 |
Advertisement

গোবিন্দ রায়: ১০০ দিনের প্রকল্পে দুর্নীতি, আর্থিক তছরুপ মামলায় কেন্দ্র ও রাজ্যের হলফনামা চাইল কলকাতা হাই কোর্ট (Calcutta High Court)। আগামী ২০ ডিসেম্বরের মধ্যে কেন্দ্র ও রাজ্যকে নিজেদের মত জানাতে হবে। ওই দিনই মামলার পরবর্তী শুনানি।

Advertisement

১০০ দিনের কাজে দুর্নীতির অভিযোগ (MNREGA Scam) তুলে কলকাতা হাই কোর্টে জনস্বার্থ মামলা করেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। সোমবার সেই মামলার শুনানিতে শুভেন্দুর তরফে আইনজীবী সৌম্য মজুমদার দাবি করেন, ভুয়ো জব কার্ড তৈরি করে ১০০ দিনের কাজের সরকারি টাকা তছরুপ করা হয়েছে। তৃণমূল সরকার নিজেদের পরিচিতদের মধ্যে সেই টাকা বিলিয়ে দিয়েছে। তাঁর আরও দাবি, কেন্দ্রীয় গ্রামোন্নয়ন মন্ত্রক জানিয়েছে, গ্রামে বাড়ি তৈরি থেকে শুরু করে ১০০ দিনের কাজে ভুয়ো কাগজপত্র বানিয়ে টাকা আত্মসাত করা হয়েছে। বেনামে টাকা তোলা হয়েছে। যে সমস্ত নামের কোনও হদিশ পাওয়া যায়নি। মাস্টার রোলেও বিস্তর গলদ পাওয়া গিয়েছে।

[আরও পড়ুন: ভারচুয়াল শুনানি চলাকালীন বিছানায় অর্ধনগ্ন, সঙ্গে সুখটান, বরখাস্ত মহিলা বিচারপতি]

এদিন অতিরিক্ত সলিসিটার জেনারেল অশোক চক্রবর্তী বলেন, “গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে। কেন্দ্রের টাকা যেভাবে ইচ্ছেমতো তছরুপ করা হয়েছে তা সংবিধান বিরোধী। সাংবিধানিক আইন লঙ্ঘন করা হয়েছে। পালটা রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল দাবি করেন, “রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপূর্ণ মামলা। মামলাকারী ভারতীয় জনতা পার্টির সদস্য। তিনি বিরোধী দলনেতা। এ ব্যাপারে আমরা হলফনামা দিয়ে সমস্ত বক্তব্য জানাতে চাই।” বক্তব্য জানাতে রাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল দু’সপ্তাহ সময় চেয়েছেন।

Advertising
Advertising

দু’পক্ষের সওয়াল জবাব শুনে হাই কোর্টের প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ জানায়, মূলত ১০০ দিনের প্রকল্পের তহবিল অপব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে। রাজ্যের পাশাপাশি কেন্দ্রের অতিরিক্ত সলিসিটার জেনারেলকেও নিজের বক্তব্য জানাতে নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি। ২০ ডিসেম্বর ফের শুনানি।

[আরও পড়ুন: পরকীয়া সন্দেহে খুন দিল্লিতে, স্বামীর দেহ ২২ টুকরো করে ফ্রিজে ভরল স্ত্রী-ছেলে!]

Advertisement
Next