Advertisement

‘লুঠপাট-জাতপাতের নয়, বাংলায় চাই জনহিতের সরকার’, ব্রিগেড থেকে ‘বদলের’ডাক ইয়েচুরির

03:40 PM Feb 28, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বাংলায় ভোটের ঢাকে কাঠি পড়েছে। নির্বাচনের উত্তাপ বাড়িয়ে রবিবার ছিল বামেদের ব্রিগেড। সেখান থেকে রাজ্যে পরিবর্তনের ডাক দিলেন সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি (Sitaram Yechury)। স্লোগান তুললেন, “লুঠপাটের নয়, জাতপাতেরও নয়। বাংলায় চাই জনহিতের সরকার।” সভামঞ্চ থেকে বিজেপি-তৃণমূলের আঁতাঁত নিয়ে সরব হলেন তিনি।

Advertisement

এদিনের ব্রিগেড ছিল ‘ঐতিহাসিক।’ সাধারণত এত মানুষের জমায়েত আগে কোনওদিন দেখা যায়নি। আবার বামেদের ডাকে ব্রিগেডে ছিলেন কংগ্রেস এবং ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের নেতা-কর্মীরা। আমজনতার ভিড় এবং এই রাজনৈতিক মেলবন্ধনকে ‘ঐতিহাসিক’ বলে উল্লেখ করলেন ইয়েচুরি। তাঁর কথায়, “এবারের ব্রিগেড সবদিক থেকেই ঐতিহাসিক। এই ভিড় বুঝিয়ে দিচ্ছে এ রাজ্যের মানুষ পরিবর্তন চাইছে। মানুষের কাছে তৃণমূলের বিকল্প বিজেপি নয়। কারণ একদল দুর্নীতি, লুঠে বিশ্বাসী। আর অন্যদল মানুষ-মানুষে বিভেদ তৈরি করতে ব্যস্ত। তাই এবার বাংলায় পরিবর্তন চাই। এবার এ রাজ্যে তৈরি হবে জনহিতের সরকার।”

[আরও পড়ুন : ‘মমতাকে জিরো করে দেব’, ব্রিগেড থেকে ‘স্বাধীনতা যুদ্ধ’ জয়ের হুঙ্কার আব্বাসের]

এদিনের বক্তব্যের শুরুতেই রাজ্য সরকারের সংখ্যালঘুদের অনুদান নিয়েও প্রশ্ন তোলেন বর্ষীয়ান বাম নেতা। তাঁর কথায়, “সম্প্রতি এ রাজ্যের তৃণমূল সরকার মোটা অংকের অনুদান দিয়েছে। ভোটের আগেই কেন এই অনুদান দেওয়া হল? আর উন্নয়নের জন্য অনুদান জাতপাত দেখে নয়, সমাজের পিছিয়ে পড়া সমস্ত মানুষের জন্য দেওয়া উচিৎ।” এর পরই তাঁর হুঙ্কার, “এ রাজ্যের সরকারের মনে রাখা উচিৎ সকলকে টাকা দিয়ে কেনা যায় না।” ধর্মের রাজনীতি নিয়ে বলতে গিয়ে কলিযুগের অবতারের কথাও টেনে আনেন সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক। তাঁর কথায়, “কলিযুগে ঈশ্বরের অবতার হিসেবে নিজেদেরকে উল্লেখ করেন যাঁরা, তাঁরা আসলে মানুষের অধিকার হরণ করছেন। তাঁদের হারাতেই হবে।।” বক্তব্য শেষের আগে সকলকে নিজের ভোট দেওয়ার আহ্বান জানান ইয়েচুরি।

এদিনের ব্রিগেডের মঞ্চ থেকে নয়া সরকার গড়ার স্বপ্ন দেখান সূর্যকান্ত মিশ্রও। তৃণমূলের ‘দিদিকে বলো’, ‘পাড়ায় সমাধান’ প্রকল্পের সমালোচনা করে তিনি বলেন, “সবাই বলল কিছু হল না। তারপর পাড়ায় সমাধান। এমন সমাধান করেছেন যে বাকি দলটা বিজেপি হয়ে গেল। উনি একাই বাকি। সরকার চাই, যে সরকার আপনারা ঠিক করবেন। আমরা চাই না, একা একা কেউ ঠিক করুক রাজ্য কীভাবে চলবে।”

এদিকে ব্রিগেড থেকে তৃণমূলকে খোঁচা দিলেন বাম সংখ্যালঘু নেতা মহম্মদ সেলিমও। তাঁর কথায়, “ব্রিগেডের জৌলুস খাটো করতে এরপর রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ফের নাটক শুরু করবেন।” সেলিমের প্রতিশ্রুতি, “সংযুক্ত মোর্চা ক্ষমতায় এলে চিটফান্ডের সম্পত্তি বেচে আমজনতার টাকা ফিরিয়ে দেওয়া হবে।”

[আরও পড়ুন : করোনামুক্ত মন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়, হাসপাতাল থেকে ফিরলেন বাড়ি]

Advertisement
Next