Advertisement

ধারাবাহিক ডাকাতির ঘটনার নেপথ্যে বিহারের গ্যাং? কলকাতায় দিনেই বাড়ল পুলিশের টহলদারি

12:07 PM Sep 21, 2021 |

অর্ণব আইচ: কলকাতায় (Kolkata) পরপর দু’টি ডাকাতির ঘটনা পিছনে বিহার (Bihar)অথবা ঝাড়খণ্ডের ডাকাতদের থাকার সম্ভাবনা প্রবল। এবার তাই শহরবাসীর সুরক্ষার স্বার্থে দিনের বেলায়ও মধ্য কলকাতা জুড়ে টহলদারি বাড়াল পুলিশ (Kolkata Police)। সিসিটিভির ফুটেজ (CCTV footage) দেখে ডাকাতদের শনাক্ত করার চেষ্টা চলছে বলে খবর পুলিশ সূত্রে।

Advertisement

পুলিশ জানিয়েছে, গত কয়েকদিনের মধ্যেই মধ্য কলকাতার বউবাজারের মলঙ্গা লেন ও জোড়াসাঁকোর কাশীনাথ মল্লিক লেনে পরপর দু’টি ডাকাতির (Dacoity) ঘটনা ঘটে। বউবাজারে ওষুধের দোকানে ডাকাতির পর এলাকার বেশ কয়েকটি সিসিটিভির ফুটেজ পরীক্ষা করা হয়। দেখা যায়, মলঙ্গা লেন থেকে বেরিয়ে ডাকাতরা হেঁটে গণেশচন্দ্র অ্যাভিনিউয়ে এসেছে। তারপর একটি ট্যাক্সিতে উঠে তাদের চলে যেতে দেখা গিয়েছে।

googletag.cmd.push(function() { googletag.display('div-gpt-ad-1630720090-3');});

[আরও পড়ুন: বাংলার চিকিৎসা জগতে ইতিহাস, রোগীর শরীরে সফলভাবে ফুসফুস প্রতিস্থাপন কলকাতায়]

আবার জোড়াসাঁকোয় ডাকাতির ঘটনায় কুড়িটিরও বেশি সিসিটিভির ফুটেজ পাওয়া গিয়েছে। তাতেও দুষ্কৃতীদের হাওড়ার দিকে যেতে দেখা গিয়েছে। পুলিশের ধারণা, দু’টি ক্ষেত্রেই এক ডাকাতদল লুটপাট চালিয়েছে, এমন সম্ভাবনাই বেশি। সম্ভবত তারা হাওড়া বা হুগলির কোনও জায়গায় থেকে ডাকাতি করছে। যদিও তারা বিহার অথবা ঝাড়খণ্ড (Jharkhand) থেকে এসেছে বলে সন্দেহ পুলিশের।

[আরও পড়ুন: প্রাণহানি ১৪ জনের, নষ্ট ফসল, দুর্যোগে ক্ষয়ক্ষতির খতিয়ান প্রকাশ নবান্নের]

এদিকে, যেহেতু দু’টি ডাকাতির ঘটনাই দিনের বেলায় ঘটেছে, তাই সকাল থেকে সন্ধে পর্যন্ত সারা মধ্য কলকাতাজুড়ে অতিরিক্ত টহল (Patrolling) দিচ্ছে প্রত্যেকটি থানার পুলিশ। বিশেষ করে জোড়সাঁকো, বড়বাজার, পোস্তা, বউবাজার এলাকায় দিনের বেলায় বাইকে চড়ে ও হেঁটে পুলিশ টহলদারি করছে। একসঙ্গে কয়েকজনকে দেখলেই তাঁদের উপর নজর রাখা হচ্ছে। সন্দেহজনক কোনও ব্যক্তিকে দেখলেও তাঁকে জেরা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

Advertisement
Next