Advertisement

‘কেন্দ্রের গাইডলাইনই জানেন না রাজ্যপাল’, প্রধানমন্ত্রীর সামনেই ধনকড়কে তোপ মমতার

04:37 PM Jan 07, 2022 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আরও দীর্ঘায়িত হল রাজ্য়-রাজ্য়পাল সংঘাত। চিত্তরঞ্জন ক্যানসার হাসপাতালের দ্বিতীয় ক্যাম্পাসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানেও ফের প্রকট হল রাজ্য প্রশাসনের সঙ্গে রাজ্য়পাল জগদীপ ধনকড়ের সংঘাত। ভারচুয়াল অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সামনেই বাংলার রাজ্য়পালকে একহাত নিলেন মুখ্য়মন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্য়ায়। বলে দিলেন, কেন্দ্রের গাইডলাইনই জানেন না রাজ্যপাল। উলটে প্রতিপদে রাজ্যের কাজ নিয়ে প্রশ্ন তোলেন।

Advertisement

এদিন উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মঞ্চেই স্বাস্থ্য পরিষেবায় রাজ্যের একাধিক দিক উল্লেখ করে, তথ্য পরিবেশন করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে (PM Narendra Modi) কার্যত বিঁধলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। এরপরই তোপ দাগেন রাজ্যপালের বিরুদ্ধে। মমতা বলে দেন, করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কেন্দ্রের নির্দেশিকা ৯৯ শতাংশ মেনে চলার চেষ্টা করে রাজ্য। রাজনৈতিক মতভেদ থাকলেও সংক্রমণ রুখতে কেন্দ্রের দেওয়া সবধরনের নিয়ম পালন করারই চেষ্টা করা হয়। কিন্তু রাজ্যপাল সেসব গাইডলাইন না জেনেই প্রশ্ন তোলেন।

[আরও পড়ুন: Bulli Bai App: মুসলিম মহিলাদের বিক্রির চক্রান্ত, ‘আফশোস নেই’, বলছে ‘বুল্লি বাই’ অ্যাপ নির্মাতা]

করোনা কালে প্রধানমন্ত্রীর কাছে চিকিৎসকদের কোটা বাড়ানোর আরজি জানান মমতা। মুখ্যমন্ত্রীর কথায়, “একই হাসপাতালের ৭৫ জন ডাক্তার একসঙ্গে কোভিড আক্রান্ত (COVID Positive) হলে কীভাবে চলবে বলুন। আপনার কাছে অনুরোধ চিকিৎসকের কোটা বাড়ান। অফিসারও প্রয়োজন। কেন্দ্র পরামর্শ দিয়েছে বাইরে থেকে লোক নিতে। তা মেনে আমরা সে পথেও হেঁটেছি। কিন্তু তাতে আবার গভর্নর প্রশ্ন করছেন, এমনটা কেন হল? কোন প্রক্রিয়ায় হল? কেন্দ্রের গাইডলাইনই তো জানেন না রাজ্যপাল।”

Advertising
Advertising

প্রসঙ্গত এদিন মোদিকে বিঁধে মমতা বলেন, নিউটাউনে যে ক্যাম্পাসটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করছেন প্রধানমন্ত্রী, তা অনেক আগেই চালু করা হয়েছে। পাশাপাশি, ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজ পর্যাপ্ত পরিমাণে রাজ্যে যাতে বণ্টন করা হয়, এই অনুষ্ঠানের মঞ্চ থেকে সেই দাবিও তোলেন তিনি। ফলে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান নিছকই এক অনুষ্ঠানে সীমাবদ্ধ রইল না। কেন্দ্র-রাজ্য এবং রাজ্যপাল দ্বন্দ্বের কাঁটাও রয়ে গেল সেখানে।

[আরও পড়ুন: TMC in Tripura: ত্রিপুরায় নিহত তৃণমূল নেতাকে শেষশ্রদ্ধা ব্রাত্য-রাজীবদের, শামিল বিক্ষুব্ধ ২ বিজেপি নেতাও]

Advertisement
Next