Advertisement

Toy Train: দার্জিলিং-NJP লং রুটে চালু হল টয় ট্রেন, এই সফরে সেরে নিতে পারেন জঙ্গল সাফারিও

09:20 PM Aug 25, 2021 |
Advertisement
Advertisement

অভ্রবরণ চট্টোপাধ্যায়, শিলিগুড়ি: শুরু হল স্বপ্নের যাত্রা। ভিস্তা ডোম কোচ লাগানোয় এবার আরও স্পষ্ট প্রাকৃতিক দৃশ্য উপভোগ করতে পারবেন পর্যটকরা। বুধবার থেকে শুরু হয়ে গেল নিউ জলপাইগুড়ি (NJP)-দার্জিলিং (Darjeeling) পর্যন্ত টয় ট্রেন যাত্রা। কু ঝিক ঝিক করতে করতে পাহাড়ের বুক চিরে এগিয়ে যাবে প্রিয় ‘খেলনা’ ট্রেন (Toy train)। শুধু তাই নয়, আকর্ষণ বাড়াতে নতুন সংযোজন – জঙ্গল সাফারি। আবার ৩০ বছর পর শুরু হল পার্সেল ভ্যানও।

Advertisement

দার্জিলিং পাহাড়ে দেশ-বিদেশের পর্যটকরা ছুটে আসেন এই টয় ট্রেনের প্রেমেই। কবিতা থেকে গল্প, এমনকী গান – সবকিছুতেই তার অবাধ বিচরণ। কিন্তু ধসের কারণে তা মাঝেমধ্যেই বন্ধ থাকে। এবার আবার করোনার (Coronavirus) কারণে বন্ধ ছিল এক বছরেরও বেশি সময়। অবশেষে সব সংশয় কাটিয়ে বুধবার থেকেই চালু হয়ে গেল টয় ট্রেন। উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলওয়ের DRM এস কে চৌধুরী এর সূচনা করেন। উপস্থিত ছিলেন রেলের অন্যান্য অধিকর্তারাও।

[আরও পড়ুন: দেড় বছর পর রাতে খুলল Taj Mahal-এর দরজা, অনন্য দৃশ্যের সাক্ষী পর্যটকরা]

প্রথমদিন হাতে গোনা যাত্রী নিয়েই পাহাড়ের দিকে ছুটল এই ট্রেন। কতজন যাত্রী, তা নিয়ে ভাবতে নারাজ রেল। তাদের লক্ষ্য ট্রেনটা চালানো। কিন্তু সবথেকে বেশি আকর্ষণ ছিল ৩০ বছর পর পার্সেল ভ্যান চালু। এ প্রসঙ্গে এস কে চৌধুরী বললেন, ”আমরা টয় ট্রেনকে আরও আকর্ষণীয় করে তুলব। এই কারণে পার্সেল ভ্যান চালু করা হয়েছে। যে কোনও ব্যবসায়ী ৫ টন মাল ৫০০০টাকা ভাড়া দিয়ে নিয়ে যেতে পারবেন। এর চেয়ে কমও মাল নিয়ে যেতে পারবে সেক্ষেত্রে ভাড়াও কম লাগবে। এছাড়া আমরা শিলিগুড়ি জংশন থেকে রংটং পর্যন্ত জঙ্গল সাফারি চালু করছি। সেটা ভিস্তা ডোম কোচেই নিয়ে যাওয়া হবে।”

[আরও পড়ুন: Travel in COVID-19 Time: অতিমারীতে বেড়াতে যাওয়ার আগে এগুলির খেয়াল অবশ্যই রাখবেন]

এদিন বিকেল ৪টেয় ট্রেন ছাড়ার সময়। অর্থাৎ সন্ধের সময় পাহাড়ের সৌন্দর্য উপভোগ করতে পারবেন যাত্রীরা। এর ভাড়া মাথাপিছু ১০০০টাকা। সিজন টাইমে তা বেড়ে হবে ১২০০টাকা। তিনি আরও বলেন, ”টয় ট্রেন হেরিটেজ (Heritage)তকমা পাওয়া তাই আমরা এই পরিষেবা চালু রাখতে বদ্ধপরিকর। তাই আমরা নতুন কোচ বানানোর পাশাপাশি নতুন রেললাইন ও ইঞ্জিনও নতুন করে তৈরি করব। আমরা চাই, ট্যুর অপারেটররা তাঁদের প্যাকেজে এই ট্রেনটিকেও যুক্ত করুক। তাহলে এর প্রতি মানুষের আকর্ষণ আরও বাড়বে। রেলও লাভবান হবে।” প্রসঙ্গত, গত ১৬ আগস্ট দার্জিলিং হিমালয়ান রেলওয়ে দার্জিলিং থেকে ঘুম পর্যন্ত জয়রাইড (Joy ride) চালু করেছিল। এবার তারা নিউ জলপাইগুড়ি থেকে দার্জিলিং রুটে ট্রেন চালু করল।

Advertisement
Next