Advertisement

Kabul Blast-এর নেপথ্যে Taliban-ISIS আঁতাত! পাকিস্তানকেও ঠুকলেন আফগান ‘কার্যকরী প্রেসিডেন্ট’

11:14 AM Aug 27, 2021 |

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কাবুল হামলার নেপথ্যে তালিবান-আইসিস (Taliban-ISIS) আঁতাত? আফগানিস্তানের বর্তমান ‘কার্যকরী প্রেসিডেন্ট’ আমরুল্লাহ সালেহর দাবি অন্তত তেমনটাই। ধারাবাহিক বিস্ফোরণে প্রাণহানির নিন্দা করতে গিয়ে পাকিস্তানকেও ছাড়েননি তিনি। খোঁচা দিয়ে বললেন, “আইসিসের সঙ্গে তালিবানের যোগাযোগ না থাকা আর কোয়েত্তা শুরা (জঙ্গিগোষ্ঠী)-র সঙ্গে পাকিস্তানের আঁতাত অস্বীকার দুই-ই সমান। প্রভুর কাছ থেকে দায় ঝেড়ে ফেলার পন্থা ভালই শিখেছে তালিবরা।” বলাইবাহুল্য, নাম না করে পাকিস্তানকে তালিবানের প্রভু বা আসল পরিচালক বলে কটাক্ষ করেছেন সালেহ।

Advertisement

বৃহস্পতিবার রাতে ধারাবাহিক বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে কাবুল (Kabul Blast)। মূলত বিমানবন্দরে চত্বরে জোরালো বিস্ফোরণ হয়। সেই সময় তালিবান (Taliban Terror) অধিকৃত আফগানিস্তান ছাড়তে চাওয়া কয়েক হাজার আফগান নাগরিক জড়ো হয়েছিলেন বিমানবন্দরে। আফগান নাগরিকদের নিয়ে মার্কিন বিমান ওড়ার আগেই পরপর বিস্ফোরণ ঘটে। এখনও পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুযায়ী, বিস্ফোরণে ৯০ জনের মৃত্যু হয়েছে। তাঁদের মধ্যে ১৩ জন মার্কিন সেনা (US Troop) জওয়ান রয়েছেন। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

[আরও পড়ুন: Kabul Blast: ‘দোষীদের রেয়াত করব না, খুঁজে খুঁজে মারব’, চরম হুঁশিয়ারি মার্কিন প্রেসিডেন্টের]

এই হামলার তীব্র নিন্দা করেছেন আমরুল্লাহ সালেহ (Amrullah Saleh)। টুইটারে তিনি লিখেছেন, “ইসলামিক স্টেট খোরাশানের শিকড় রয়েছে তালিবান এবং হাক্কানি নেটওয়ার্কের অন্দরে। আমাদের হাতে একাধিক প্রমাণ রয়েছে যা এটা প্রমাণ করার জন্য যথেষ্ট। বলে রাখা ভাল, এই হাক্কানি নেটওয়ার্কই কাবুল নিয়ন্ত্রণ করছে।” যদিও আমেরিকার তরফে আবার তালিব-আইএসকে (IS-K) যোগাযোগের কথা স্বীকার করা হয়নি।

এদিকে আফগানিস্তানে ISIS-এর এহেন হামলার তীব্র নিন্দা করেছে নয়াদিল্লি। সরকারি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “এই ঘৃন্য হামলার তীব্র নিন্দা করছে ভারত। এবার গোটা বিশ্বের একসঙ্গে হাত মিলিয়ে সন্ত্রাসবাদের মোকাবিলা করা প্রয়োজন।” এই নিন্দা করতে গিয়ে বিদেশমন্ত্রকের তরফে নাম না করে পাকিস্তানের (Pakistan) সমালোচনা করা হয়েছে। তাদের কথায়, শুধু সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে নয়, যারা সন্ত্রাসে (Terrorism) মদত জোগাচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে একসঙ্গে লড়াই করা প্রয়োজন। নিন্দা করেছেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন, রাষ্ট্রসংঘের মহাসচিব অ্যান্তিনিও গুতারেসও।

 

 

[আরও পড়ুন: UCL Draw: চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্বেই Manchester City বনাম PSG, বায়ার্নের গ্রুপে বার্সেলোনা]

এদিকে আফগান নাগরিকদের উদ্ধারকাজ চলাকালীন ১৩ মার্কিন সেনা জওয়ানের (US Troop) মৃত্যুতে রাষ্ট্রীয় শোক পালনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে আমেরিকা (US)। ৩০ আগস্টের সন্ধে পর্যন্ত সে দেশের জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হবে।

 

Advertisement
Next