George Floyd: ব্ল্যাক লাইভস আন্দোলনে অংশ নেওয়ার বদলা? জর্জ ফ্লয়েডের চার বছরের নাতনিকে গুলি

11:14 AM Jan 06, 2022 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এবার আমেরিকায় (America) বন্দুকের নিশানায় সেই জর্জ ফ্লয়েডের চার বছরের নাতনি। অভিযোগ, নতুন বছরের প্রথমে নিজের ঘরে ঘুমন্ত অবস্থায় খুদে আরিয়ানা ডিলানের বুক-পেট ফুঁড়ে বেরিয়ে যায় গুলি। প্রাণ বাঁচাতে তার জটিল অস্ত্রোপচার করতে হয় বলে পরিবার সূত্রে খবর। ফ্লয়েডের পরিবারের অভিযোগ, তাঁদের পরিবারকে নিশানা করা হয়েছিল। এটা উদ্দেশ্য প্রণোদিত হামলা। খবর পেয়েও অনেক দেরিতে আসে পুলিশ। আর পুলিশের এহেন আচরণ নিয়ে ক্ষুব্ধ জর্জ ফ্লয়েডের পরিবার।

Advertisement

আরিয়ানা ডিলান, বয়স মাত্র চার। নববর্ষের প্রথম রাতে টেক্সাসে (Texas) বাড়ির তিন তলায় নিজের ঘরে বাবা-মায়ের সঙ্গে ঘুমোচ্ছিল সে। রাত তিনটের সময় রক্তাক্ত অবস্থায় জেগে ওঠে। তার কান্না শুনে পরিবারের বাকি সদস্যরাও জেগে যায়। আরিয়ানা দাবি করে, তাকে মারা হয়েছে। সঙ্গে সঙ্গে নিকটবর্তী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাকে। জটিল অস্ত্রপোচার করে প্রাণ বাঁচানো সম্ভব হয় আরিয়ানার।

[আরও পড়ুন: Coronavirus: দেশে একদিনে করোনার কবলে ৯০ হাজার, চলতি মাসেই সংক্রমণ শীর্ষে পৌঁছানোর আশঙ্কা]

হামলা প্রসঙ্গে আরিয়ানার বাবা ডেররিক ডিলানের দাবি, “প্রথমে আমিও বিশ্বাস করিনি। পরে মেয়েকে রক্তাক্ত দেখে বিশ্বাস হয়। ও জানে না কী হয়েছিল, কারণ ও ঘুমোচ্ছিল।” তাঁর দাবি, ফ্লয়েডের আত্মীয়দের নিশানা করা হচ্ছে। রাত তিনটে নাগাদ এই ঘটনা ঘটলেও সকাল ৭টা পর্যন্ত পুলিশ কোনও পদক্ষেপ করেনি বলে অভিযোগ আরিয়ানার পরিবারের। এই অভিযোগ প্রসঙ্গে হাউস্টন পুলিশ প্রধান টনি ফিনার বলেন, “পুলিশ দেরিতে পৌঁছেছে বলে খবর পেয়েছি। তদন্ত করে দেখা হচ্ছে পুরো বিষয়টি। বাচ্চা মেয়েটি দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠুক এই কামনা করি। আমরা ওর পরিবারের পাশে আছি। দ্রুত দোষীকে খুঁজে বের করা হবে।”

Advertising
Advertising

কিন্তু কে এই জর্জ ফ্লয়েড, মনে আছে কি? ২০২০ সালের মে মাসে আমেরিকার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। যেখানে দেখা গিয়েছিল, মিনেপোলিসের পুলিশ আধিকারিক ডেরেক শভিন হাঁটু দিয়ে কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েডের শ্বাসরোধ করে রেখেছেন। জর্জ ফ্লয়েড বারংবার অনুরোধ করছিলেন শভিনের কাছে যে তিনি শ্বাস নিতে পারছেন না। কিন্তু শভিন হাঁটু সরাননি। প্রায় সাড়ে ন’মিনিট এভাবে থাকার পর মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন ফ্লয়েড। এর পরই গোটা বিশ্বে ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ আন্দোলন শুরু হয়। সেই চাপে অভিযুক্ত পুলিশ আধিকারিকের ২০ বছরের জেল হয়।

[আরও পড়ুন: পাইলটের মুহূর্তের অসতর্কতায় দুর্ঘটনার কবলে রাওয়াতের কপ্টার? চাঞ্চল্যকর ইঙ্গিত তদন্ত রিপোর্টে]

উল্লেখ্য, আরিয়ানার ঠাকুমা লাটনিয়া সম্পর্কে জর্জের বোন হন। ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার আন্দোলনে পরিবারের সঙ্গে অংশ নিয়েছিল খুদে আরিয়ানাও। সেই বদলা নিতেই কি এই হামলা? উত্তর দেবে সময়।

Advertisement
Next