Indian helicopter Taliban: আফগান সেনাকে ভারতের দেওয়া অ্যাটাক হেলিকপ্টার দখল তালিবানের

10:16 AM Aug 12, 2021 |
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আফগানিস্তানে (Afghanistan) পটপরিবর্তনে উদ্বিগ্ন ভারত। কাবুলের দিকে তালিবানের কুচকাওয়াজে সাউথ ব্লকের নীতি নির্ধারকদের কপালে চিন্তার ভাঁজ আরও গভীর হচ্ছে। সেই উদ্বেগ আরও বাড়িয়ে এবার জানা গিয়েছে যে আফগান সেনাকে ‘উপহার’ হিসেবে দেওয়া ভারতের একটি অ্যাটাক হেলিকপ্টার কবজা করেছে তালিবান।

Advertisement

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

[আরও পড়ুন: Pakistan temple: চাপের মুখে ক্ষতিগ্রস্ত হিন্দু মন্দির দ্রুত মেরামত করল ইমরান সরকার]

২০১৯ সালে বন্ধু দেশ আফগান বায়ুসেনা চারটি ‘Mi-35’ অ্যাটাক হেলিকপ্টার। অত্যাধুনিক ওই গানশিপগুলিতে রকেট ও মিসাইল থেকে শুরু করে অনেক রকমের হাতিয়ার বহন করা যায়। তারমধ্যে একটি রাখা ছিল কুন্দুজ বিমানবন্দরে। একটি স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমে একটি সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টকে উদ্ধৃত করে দাবি করা হয়েছে, ভারত আফগান সেনাবাহিনীকে যে কয়েকটি এমআই-৩৫ হেলিকপ্টার গানশিপ দিয়েছিল, তার মধ্যে একটি গতকাল কুন্দুজ বিমানবন্দর থেকে নিয়ে নিয়েছে তালিবান। তবে আর একটি স্থানীয় সূত্রে আবার দাবি করা হয়েছে যে, কপ্টারটি অকেজো হয়ে পড়ে ছিল। ফলে তালিবান বাহিনী সেটিকে কোনও কাজে লাগাতে পারবে না। যদিও এই বিষয়ে কোনও মন্তব্য করেনি ভারতীয় বিদেশমন্ত্রক। বলে রাখা ভাল ২০১৬ সালে এই চারটি Mi-35 হেলিকপ্টার পাঠানকোট বায়ুসেনা ঘাঁটিতে মজুত ছিল। সেবার এই কপ্টারগুলিও জঙ্গিদের নিশানা ছিল বলে জানা যায়।

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});

উল্লেখ্য, মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আফগানিস্তান থেকে সেনা সরানো শুরু করেছেন। তাঁর সিদ্ধান্ত, আফগানরাই তাঁদের ভবিষ্যৎ-নিয়ন্ত্রক হবেন। তালিবানরা উৎসাহিত। উদ্দীপিতও। তাদের হামলার মুখে আফগান সরকার তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ছে। একরের পর এক প্রদেশ দখল করে অমানুষিক অত্যাচার চালাচ্ছে জঙ্গিরা। গত কুড়ি বছরে আফগানিস্তানের ৩৪টি প্রদেশে ভারত চারশোরও বেশি প্রকল্প তৈরি করেছে। দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্যের পরিমাণ দেড় বিলিয়ন ডলার। ভারতীয় প্রকল্পের হানি তালিবানরা করবে না বলে মৌখিক আশ্বাস দিয়েছে। কিন্তু ভারত নিশ্চিত নয়। চিন তার ‘বেল্ট অ্যান্ড রোড ইনিশিয়েটিভ’ প্রকল্পে আফগানিস্তানকে শামিল করার চেষ্টা চালাচ্ছে পুরোদমে। পূর্ব লাদাখে তারা ভারতকে যে নতুন করে বিব্রত করবে না, সেই নিশ্চয়তা নেই। মোটকথা, আফগানিস্তানে ভারতের ভাল-মন্দ এবার থেকে নির্ভর করবে অন্যদের মর্জির উপর। ভারতের ভূমিকা স্রেফ দর্শকের।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: Taliban attack Kabul: ৩ মাসের মধ্যে পতন নিশ্চিত কাবুলের, দাবি পেন্টাগনের রিপোর্টে]

(adsbygoogle = window.adsbygoogle || []).push({});
Advertisement
Next