Advertisement

শীতলকুচিতে নিহত বিজেপি কর্মীর ছবি আসলে দিল্লির সাংবাদিকের! ভিডিও ঘিরে অস্বস্তিতে বিজেপি

06:16 PM May 06, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ঘুম থেকে উঠতে সামান্য দেরি হয়েছিল তাঁর। উঠেই দেখেন ফোনে শ’খানেক মিসড কল। আর তারপরই আঁতকে ওঠেন নিজের ‘মৃত্যুসংবাদ’ শুনে! তাও বাড়ি থেকে ১ হাজার ৩০০ কিমি দূরে! জানতে পারেন, ভোট-পরবর্তী হিংসায় (WB Elections 2021) পশ্চিমবঙ্গের শীতলকুচিতে (Shitalkuchi) যে দু’জন বিজেপি কর্মীর মৃত্যু হয়েছে, তাঁদেরই একজন মানিক মৈত্র নাকি তিনিই! এমনই বিচিত্র অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হলেন ‘ইন্ডিয়া টুডে’র সাংবাদিক অভ্র বন্দ্যোপাধ্যায়। আজই টুইটারে নিজের এই বিড়ম্বনার কথা জানিয়েছেন তিনি।

Advertisement

ঠিক কী হয়েছিল? বুধবার সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও শেয়ার করে বিজেপি (BJP)। ৫ মিনিট ২৮ সেকেন্ডের ওই ভিডিওয় পশ্চিমবঙ্গে ভোট-পরবর্তী হিংসায় আক্রান্ত বিজেপি নেতা-সমর্থকদের কথা বলা হয়েছে। বিজেপি আগেই দাবি করেছিল, মোট ৯ জন হিংসার বলি হয়েছেন। এর মধ্যেই ছিল শীতলকুচির দু’জনের নাম। তাঁরা হলেন মিন্টু বর্ম‌ন ও মানিক মৈত্র। এই মানিক মৈত্রের ছবি হিসেবেই ব্যবহৃত হয়েছে অভ্র বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখ! যিনি থাকেন দিল্লিতে। প্রসঙ্গত, বিজেপির জাতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা পশ্চিমবঙ্গে এসে যে সাংবাদিক সম্মেলনে অংশ নিয়েছিলেন, সেখানেও এই ভিডিও চালানো হয়েছিল।

[আরও পড়ুন: এবার কিষাণ নিধির টাকা দিক কেন্দ্র, তৃতীয়বার মুখ্যমন্ত্রী হয়ে ফের মোদিকে চিঠি মমতার]

গোটা ঘটনায় স্তম্ভিত অভ্র তাঁর টুইটারে তীব্র ভাষায় এই ধরনের ভুয়ো খবর ছড়ানোর জন্য বিজেপির আইটি সেলকে আক্রমণ করেছেন। তিনি লিখেছেন, ‘‘আমি অভ্র বন্দ্যোপাধ্যায়। শীতলকুচি থেকে ১,৩০০ কিমি দূরে সুস্থ অবস্থাতেই রয়েছি। যদিও বিজেপি আইটি সেলের দাবি, আমি নাকি মানিক মৈত্র এবং শীতকুচিতে আমার মৃত্যু হয়েছে! দয়া করে এই ধরনের ভুয়ো খবরে বিশ্বাস করবেন না। উদ্বিগ্ন হবেন না। আবারও বলছি আমি এখনও জীবিত রয়েছি।’’ অভ্র্রর অভিযোগের পরে অবশ্য পুরো ভিডিওটাই মুছে দিয়েছে বিজেপি। এখনও পর্যন্ত মানিক মৈত্রর আসল ছবি প্রকাশ করতে পারেনি গেরুয়া শিবির।

প্রসঙ্গত, রবিবার ভোটের ফল প্রকাশ হতেই পরিষ্কার হয়ে যায় নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে আবারও রাজ্যের মসনদে বসতে চলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Bandyopadhyay)। তারপর থেকেই খবর আসতে থাকে ভোট-পরবর্তী হিংসায় মৃত্যু হয়েছে অনেকের। এযাবৎ ৬ জনের মৃত্যুর কথা জানা গিয়েছে। যদিও বিজেপির দাবি, হিংসার বলি হয়েছেন অন্তত ১৪ জন বিজেপি সমর্থক। ঘরছাড়া ১ লক্ষ জন। খুন ছাড়াও বিজেপির মহিলা কর্মীদের উপরে হামলা, ঘর ভাঙচুরের অভিযোগও তোলা হয়েছে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে।

[আরও পড়ুন: তৃতীয় মমতা সরকারের অর্থমন্ত্রী ফের অমিত মিত্রই? মন্ত্রিসভা গঠনের আগে তুঙ্গে জল্পনা]

Advertisement
Next