ব্যাংক অ্যাকাউন্টে থাবা, প্রতারণা চক্রের ফাঁদে এবার বন আধিকারিক

11:48 AM Jul 19, 2021 |
Advertisement

শান্তনু কর, জলপাইগুড়ি: এবার প্রতারণা চক্রের ফাঁদে বনদপ্তরের শীর্ষ আধিকারিক। ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা হাতিয়েই ক্ষান্ত থাকেননি হ্যাকাররা। আধিকারিকের ফেসবুক (Facebook) প্রোফাইল জাল করে টাকা তোলা এবং অন্যদের থেকে টাকা আদায়ের অভিযোগ উঠেছে। এতে বিপাকে পড়েছেন বন বিভাগের CCF পদ মর্যাদার আধিকারিক মণীন্দ্র বিশ্বাস। বর্তমানে কলকাতায় কর্মরত জলপাইগুড়ির বাসিন্দা। বিষয়টি নিয়ে পুলিশ এবং সাইবার (Cyber) থানার দারস্থ হয়েছেন মণীন্দ্রবাবু।

Advertisement

বনদপ্তরের আধিকারিক মণীন্দ্র বিশ্বাস জানান, গত ৪ জুলাই প্রথম হ্যাকারদের খপ্পরে পড়েন তিনি। প্রথমে মোবাইল ফোনে মেসেজ পাঠিয়ে বলা হয়, তাঁর BSNL নম্বরের আধার (ADHAR) লিংক করতে হবে। না হলে পরিষেবা বন্ধ হয়ে যাবে। আর এর জন্য একটা অ্যাপ ডাউনলোড করতে হবে। সঙ্গে ১০ টাকা রিচার্জ করতে হবে। জানান, রবিবার থাকায় বাড়িতে বসেই রিচার্জ করেন। কিছুক্ষণ পর ফোন করে বলা হয় যে আইডি, পাসওয়ার্ড দিয়ে রিচার্জ করেছেন, তা নিজের নম্বরে মেসেজ করে জানান। মণীন্দ্রবাবু জানান, কিছুক্ষণ পর বুঝতে পারেন যে তাঁর ব্যাংক অ্যাকাউন্ট (Bank account) থেকে টাকা কাটা হচ্ছে। কয়েক মিনিটের মধ্যে ২৬ হাজার ৫১১ টাকা কেটে নেয়। ওই দিনই বিষয়টি SBI-এর নজরে আনেন তিনি।

[আরও পড়ুন: Purulia: ডুমুর গাছে অজগর, লেজ-মুখ টেনে উত্যক্তের অভিযোগ

এরপর রবিবার তিনি জানতে পারেন, তাঁর ফেসবুক প্রোফাইল নকল করে বিভিন্ন জনের কাছে টাকা চাওয়া হচ্ছে। দীর্ঘদিন কর্মসূত্রে উত্তরবঙ্গে ছিলেন মণীন্দ্রবাবু। জানান, ভুয়ো ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে ঘনিষ্ঠ বেশ কয়েকজনের কাছে টাকা চাওয়া হয়েছে। একের পর এক ঘটনায় রীতিমতো বিব্রত হয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছেন বন আধিকারিক। একইসঙ্গে ঘনিষ্ঠদের কাছে তাঁর ভুয়ো প্রোফাইল থেকে পাঠানো মেসেজ পড়ে প্রতারকের ফাঁদে পা না দেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি। জানান, পুলিশকে গোটা ঘটনা জানিয়েছেন। প্রতারককে চিহ্নিত করে শাস্তি দেওয়ার দাবি তুলেছেন তিনি।

Advertising
Advertising

[আরও পড়ুন: করোনা কালে দীর্ঘদিন বন্ধ গ্রন্থাগার, কীটপতঙ্গের হাত থেকে বই বাঁচানোর আর্তি বইপ্রেমীদের]

Advertisement
Next