Advertisement

পাহাড়ের রাজনীতিতে চমক, গ্লেনারিস রেস্তরাঁ কর্তা অজয় এডওয়ার্ডের ‘হামরো পার্টি’র আত্মপ্রকাশ

03:52 PM Nov 25, 2021 |

অভ্রবরণ চট্টোপাধ্যায়, শিলিগুড়ি: পাহাড়ের রাজনীতিতে নয়া চমক। ফের আত্মপ্রকাশ করল একটি নতুন দল। ব্যবসার পাশাপাশি এবার রাজনীতির ময়দানে বড় ভূমিকায় গ্লেনারিস (Glenary’s) কর্তা অজয় এডওয়ার্ডস। বৃহস্পতিবারই মিরিকে সাংবাদিক বৈঠক করে দলের নাম এবং লোগো প্রকাশ করেন তিনি।

Advertisement

পাহাড়ে বরাবরই বেশ পরিচিত মুখ অজয় এডওয়ার্ড। গ্লেনারিস রেস্তরার কর্তা এডওয়ার্ডের ব্যবসায়ী মহলে যথেষ্ট পরিচিতি রয়েছে। তিনি এক সময় জিএনএলএফের দার্জিলিং শাখার সভাপতি ছিলেন। জিএনএলএফ সভাপতি মন ঘিসিং এর সঙ্গে তার দলের নেতা অজয় এডওয়ার্ডের একটি ঠান্ডা লড়াই চলছিল। তার জেরেই অজয় দল থেকে ইস্তফা দেন। পরে জানিয়েছিলেন নতুন কিছু করবেন। এরপর গোটা পাহাড় চষে বেড়ান।

[আরও পড়ুন: পুরনো বন্ধুত্ব কি নতুন রূপে ফিরবে ‘আবার বছর কুড়ি পরে’? মুক্তি পেল টিজার]

নিজের রাজনৈতিক জমি ঠিক করতে পাহাড়ের বাসিন্দাদের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠক করেন। তখন তিনি বারবার বলেছিলেন দল গড়ব মানুষের রায় নিয়ে। সেই অনুযায়ী অনুরাগীদের দলের নাম ঠিক করতে বলেন অজয় এডওয়ার্ড। দু’শোটিরও বেশি নাম জমা পড়ে। তার মধ্যে ভোটাভুটি হয়। হোয়াটসঅ্যাপ, এসএমএস এবং ই-মেলের মাধ্যমে নাম চূড়ান্ত হয়। জনশক্তি, জনতা কল্যাণ পার্টি, জন আওয়াজ ও হামরো পার্টি এই চারটি নাম নির্বাচিত হয়।

বৃহস্পতিবার মিরিকে সাংবাদিক বৈঠক করে ওই চারটির মধ্যে একটি নাম চূড়ান্ত করা হয়। গ্লেনারিস কর্তা অজয় এডওয়ার্ড নতুন দলের লোগো এবং নাম প্রকাশ করেন। তাঁর নতুন দলের নাম ‘হামরো পার্টি’। তিনি বলেন, “দল তৈরির আগে পাহাড়ের বিভিন্ন প্রান্তে ঘুরে বেড়াই। কালিম্পং, কার্শিয়াং, দার্জিলিং, মিরিকে যাই। অনুরাগীদের সঙ্গে কথা বলি। সবাই কী চায়, তা বুঝতে পেরেছি। পাহাড়বাসীর হয়ে কাজ করব।” পৃথক গোর্খাল্যান্ড এবং পাহাড়ে ভোটের দাবিতে সরব অজয় এডওয়ার্ড।

[আরও পড়ুন: ‘অন্যের রান্নাঘরে যৌন মিলন করেছিলাম’, নুসরতের শোয়ে গোপন কথা ফাঁস ঋতাভরীর]

Advertisement
Next