Advertisement

মেদিনীপুরে ‘শাহি’রোড-শো, উৎসাহী জনতার ভিড়ে আরও উদ্দীপ্ত গেরুয়া শিবির

08:00 PM Mar 23, 2021 |
Advertisement
Advertisement

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বঙ্গে ভোটের (WB Elections 2021) উত্তাপ বাড়ছে। বঙ্গে পদ্মফুল ফোটাতে বিজেপির একাধিক কেন্দ্রীয় নেতা-নেত্রীরা ঝাঁপিয়েছেন। এর মাঝে মেদিনীপুরে তৃণমূল বনাম বিজেপির প্রেস্টিজ ফাইট। আর সেই লড়াইয়ে তৃণমূলকে ধরাশায়ী করতে আসরে নেমেছেন ‘সুকৌশলী’ রাজনীতিবিদ তথা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah)। নির্বাচনের আগে দুই মেদিনীপুরে প্রচারে ঝড় তুলেছেন তিনি। মঙ্গলবার মেদিনীপুরের কেরানীটোলা, বড়তলা ও গোলকুয়া চকে ছিল শাহি রোড-শো।

Advertisement

[আরও পড়ুন : বিজেপির প্রার্থী তালিকায় চমক, রাসবিহারী থেকে লড়াইয়ে সেনার ‘পোস্টার বয়’]

প্রচার করতে সোমবার রাতেই বাংলায় এসেছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। মঙ্গলবার সকালে গোসাবায় ছিল তাঁর জনসভা। সেই সভা সেরে কপ্টারে চেপে মেদিনীপুরে উপস্থিত হন তিনি। বিকেলে বিজেপি প্রার্থীর সমর্থনে বিশাল রোড শো (Road Show) করেন শাহ।

[আরও পড়ুন : ‘মানুষ আতঙ্কিত, বাড়ি থেকে বেরলেই প্রার্থী করে দিচ্ছে BJP’, তীব্র কটাক্ষ অভিষেকের]

এদিনের শাহি রোড শো-কে ঘিরে সাধারণ মানুষের মধ্যেও উন্মাদনা ছিল তুঙ্গে। রোড শোয়ের শুরু থেকেই সেখানে উপস্থিত ছিলেন কয়েক হাজার বিজেপি কর্মী সমর্থক। এরপর রোড শোয়ের সময় রাস্তার দু’দিকেই মানুষের ঢল নেমেছিল। ফুল ছুঁড়ে স্বাগত জানানো হয় অমিত শাহকে। রাস্তার দুপাশের বাড়ির ছাদ, বারান্দায়ও বহু উৎসাহিত মানুষ জড়ো হয়েছিলেন। রাজনৈতিক মহল বলছে, এবার মেদিনীপুরে তৃণমূল-বিজেপির কড়া টক্কর। এই পরিস্থিতিতে এদিনের এই ‘জনজোয়ার’ নির্বাচনের আগে গেরুয়া শিবিরকে আরও উৎসাহিত করবে। একইসঙ্গে শাহি শোয়ে কিছুটা হলে চিন্তা পড়তে পারে ঘাসফুল শিবিরও। 

প্রসঙ্গত, ক্ষমতায় এলে দু’বছরের মধ্যে বিশুদ্ধ পানীয় জলের ব্যবস্থা, সেই সঙ্গে সুন্দরবনের উন্নয়নের জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির (PM Modi) পাঠানো টাকা যারা সরিয়েছে, তাদের শাস্তির ব্যবস্থা করা। এভাবেই এদিনের গোসাবায় (Gosaba) নির্বাচনী জনসভায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ (Amit Shah) বক্তব্য শুরু করেন। এরপরই উন্নয়নের আশ্বাসের সঙ্গে বজায় রাখেন তৃণমূল (TMC) সরকারকে আক্রমণের কৌশল। সরাসরি অভিযোগ জানিয়েছেন, আমফানের ত্রাণের টাকা লুঠ হওয়া নিয়েও। সবমিলিয়ে এদিন শাহি সফর ঘিরে সরগরম বঙ্গ রাজনীতি। 

Advertisement
Next